নরসিংদী জেলার মানচিত্র। প্রতীকী ছবি

কলেজছাত্রীর শরীরে আগুন, যুবক আটক

পুলিশ সুপারের নির্দেশে রাতেই অভিযানে নামে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সজিব নামে ওই যুবককে আটক করা হয়েছে।

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৪ জুন ২০১৯, ১৪:০৮ আপডেট: ১৪ জুন ২০১৯, ১৪:০৮
প্রকাশিত: ১৪ জুন ২০১৯, ১৪:০৮ আপডেট: ১৪ জুন ২০১৯, ১৪:০৮


নরসিংদী জেলার মানচিত্র। প্রতীকী ছবি

(প্রিয়.কম) নরসিংদীতে কলেজছাত্রীর শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার ঘটনায় সজিব নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

১৩ জুন, বৃহস্পতিবার রাতে রায়পুরা উপজেলা থেকে ওই ছাত্রীর ভাইয়ের শ্যালক সজিবকে আটক করা হয়। ওই কলেজছাত্রীর নাম ফুলন রানী বর্মণ (২২)।

জানা গেছে, দগ্ধ ফুলনের চাচাতো ভাই সুমনের শ্যালক সজিব ফুলনকে পছন্দ করত। গত দুই বছর ধরে ফুলনকে প্রেম প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন সজিব। কিন্তু ফুলন এতে রাজি ছিল না। এরই পরপ্রেক্ষিতে এ আগুন দেওয়ার ঘটনা ঘটতে পারে।

এর আগে গত রাত ৯টার দিকে নরসিংদী পৌর এলাকার বীরপুর মহল্লায় ফুলনের শরীরে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। এতে তার শরীরের ২০ ভাগ পুড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। গুরুতর অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

রায়পুরা থানা পুলিশের ওসি (অপারেশন) মোজাফফর হোসেন আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ সুপারের নির্দেশে রাতেই অভিযানে নামে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সজিব নামে ওই যুবককে আটক করা হয়েছে।

পুলিশ ও দগ্ধ কলেজছাত্রীর পরিবারের সদস্যরা জানায়, রাত সাড়ে ৮টার দিকে তার মামার সঙ্গে দোকানে কেক আনতে যায়। মামা কেক কিনে দিয়ে তাকে বাড়িতে যেতে বলেন। ফুলন কেক নিয়ে বাড়ির আঙিনায় পৌঁছালে অজ্ঞাত দুইজন তার হাত মুখ চেপে ধরে পাশের একটি নির্জন স্থানে নিয়ে যায়। পরে কেরোসিন ঢেলে তার শরীরে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায় তারা।

প্রিয় সংবাদ/রুহুল