প্রতীকী ছবি

ফেসবুক, গুগল কাজ না করলে অর্থ ‘ফেরত দেবে’ হুয়াওয়ে!

যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার পরেও চলতি বছর শেষে হুয়াওয়ের মুনাফা হবে প্রায় ১০০ বিলিয়ন ডালার। আর ২০২১ সালে মুনাফার পরিমাণ আরও বাড়বে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) রেন ঝেংফেই।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ১৯ জুন ২০১৯, ১৪:৩৫ আপডেট: ১৯ জুন ২০১৯, ১৪:৩৫
প্রকাশিত: ১৯ জুন ২০১৯, ১৪:৩৫ আপডেট: ১৯ জুন ২০১৯, ১৪:৩৫


প্রতীকী ছবি

(প্রিয়.কম) নিজেদের তৈরি স্মার্টফোন বা ট্যাবে গুগল, ফেসবুকসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সেবা না পাওয়া গেলে ফিলিপাইনের গ্রাহকদেরকে অর্থ ফেরত দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে হুয়াওয়ে। ফিলিপাইনের স্থানীয় এক সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট

প্রতিবেদনে বলা হয়, সম্প্রতি ফিলিপাইনে অনুষ্ঠিত এক ইভেন্টে হুয়াওয়ে টেকনোলজিস দেশটির গ্রাহকদের এই আশ্বাস দেয়। অনুষ্ঠানে দেশটিতে থাকা হুয়াওয়ের পার্টনার, রিটেইলার এবং ডিলাররা অংশ নেয়।

হুয়াওয়ে জানিয়েছে, ফিলিপাইনে থাকা হুয়াওয়ের স্মার্টফোন বা ট্যাবে গুগলের জি-মেইল, ইউটিউব এবং ফেসবুকের ইনস্টাগ্রাম ও হোয়াটস অ্যাপের ব্যবহার না করতে পারলে তারা গ্রাহককে পুরো অর্থ ফেরত দিয়ে দেবেন।

দেশটির সংবাদমাধ্যম রেভু প্রতিবেদনটি প্রথম প্রকাশ করে। অনুষ্ঠানের বিষয়টি সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টকে নিশ্চিত করে হুয়াওয়ে। তবে হুয়াওয়ে এ বিষয়ক নতুন কোনো পলিসি নিয়ে আসছে কিনা তা জানায়নি। চীনা এই প্রতিষ্ঠানটির ওপর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার পর মানুষকে আশ্বস্ত করতে এমন পন্থা বেছে নিলো হুয়াওয়ে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞার পরও চলতি বছর শেষে হুয়াওয়ের মুনাফা হবে প্রায় ১০০ বিলিয়ন ডালার। আর ২০২১ সালে মুনাফার পরিমাণ আরও বাড়বে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) রেন ঝেংফেই।

রেন ঝেংফেই বলেন, ‘যখন কম শক্তিশালী ছিলাম তখনও আমরা যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাজ করতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ছিলাম, এখনও কাজ করিছ এবং ভবিষ্যতেও তাদের সঙ্গে কাজ করতে চাই। কিন্তু এমন কিছু প্রতিষ্ঠান আছে যারা যুক্তরাষ্ট্রের যন্ত্রাংশ ব্যবহার করতে শঙ্কা বোধ করে। কিন্তু হুয়াওয়ে তেমন করে চিন্তা করে না। হুয়াওয়ে শক্তিশালী, আত্মবিশ্বাসী এর নিরাপত্তার বিষয়ে।’

আলোচনায় হুয়াওয়ের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগের বিষয়ে রেন ঝেংফেই, হুয়াওয়ের যন্ত্রাংশে কোনো ধরনের ব্যাকডোর নেই, এমনকি সেখানে কেউ প্রবেশও করতে পারে না। যদি কোনো রাষ্ট্র চায় তবে হুয়াওয়ে ‘‘নো ব্যাকডোর’’ চুক্তি করতে প্রস্তুত। এমনকি হুয়াওয়ের নেটওয়ার্ক ব্যবস্থা এতোটাই সুরক্ষিত যে সেখান থেকে ডাটা নেওয়ার আশঙ্কা নেই।’

প্রিয় প্রযুক্তি/রুহুল

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...