মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও ছাত্রদলের দলীয় লোগো। ফাইল ছবি

ছাত্রদলের বিলুপ্ত কমিটির ১২ নেতা বহিষ্কার

এবারই প্রথম কোনো অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাদের বহিস্কার করেছে মূল দল বিএনপি।

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ২৩ জুন ২০১৯, ০৯:৩৭ আপডেট: ২৩ জুন ২০১৯, ০৯:৩৭
প্রকাশিত: ২৩ জুন ২০১৯, ০৯:৩৭ আপডেট: ২৩ জুন ২০১৯, ০৯:৩৭


মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও ছাত্রদলের দলীয় লোগো। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) বয়সসীমা নির্ধারণ না করে ধারাবাহিক ছাত্রদলের কমিটি গঠনের দাবিতে যারা বেশ কয়েকদিন ধরে আন্দোলন করছিল তাদের ১২ জনকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

২২ জুন, শনিবার রাতে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দলীয় শৃঙ্খলা বহির্ভূত কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার সুষ্পষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের বিলুপ্ত কমিটির ১২ নেতৃবৃন্দকে দলের প্রাথমিক সদস্য পদসহ সকল পর্যায়ের পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এই আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হবে।

বহিষ্কারকৃত ছাত্রনেতারা হলেন-  এজমল হোসেন পাইলট, ইকতিয়ার কবির, জয়দেব জয়, মামুন বিল্লাহ, আসাদুজ্জামান আসাদ, বায়েজিদ আরেফিন, দবির উদ্দিন তুষার, গোলাম আজম সৈকত, আব্দুল মালেক, আজীম পাটোয়ারী,বাশার সিদ্দিকি, জহির উদ্দিন তুহিন প্রমুখ।

গত ৩ জুন ঈদের আগের দিন রাতে ছাত্র দলের কমিটি ভেঙে দেয় বিএনপি। আগামী ৪৫ দিনের মধ্যে কাউন্সিলের মাধ্যমে নতুন কমিটি গঠনের কথা বলা হয়। তাতে বলা হয়, ২০০০ সালের পর থেকে এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণরাই ছাত্রদলের কমিটিতে স্থান পাবে। এরপর বিক্ষুব্ধ ছাত্রদল নেতারা গত ১০ জুন নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে দেয়। কার্যালয়ের ভেতরে রিজভীকেও তারা অবরুদ্ধ করে রাখে। সেদিন লন্ডনে থাকা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে স্কাইপিতে কথা বলার পর বিক্ষুব্ধরা শান্ত হলেও দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত প্রতিদিন দুই ঘণ্টা অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছে।

প্রসঙ্গত, দলীয় শৃঙ্খলা বহির্ভূত কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগ সাধারণত সংগঠন থেকে বহিস্কার করে থাকে সংগঠনের নেতৃত্ব। কিন্তু এবারই প্রথম কোনো অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাদের বহিস্কার করেছে মূল দল বিএনপি।

প্রিয় সংবাদ/আশরাফ