কোরবানির পশুর হাট। ফাইল ছবি

সারা দেশে ২৩৬২টি পশুরহাট, রাজধানীতে ২৪টি

ঈদ উল আজহাকে সামনে রেখে সারা দেশে সড়ক ও মহাসড়কের পাশে পশুর হাট বসানোর অনুমতি না দিতে জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৭ জুলাই ২০১৯, ১৫:৫৬ আপডেট: ১৭ জুলাই ২০১৯, ১৫:৫৭
প্রকাশিত: ১৭ জুলাই ২০১৯, ১৫:৫৬ আপডেট: ১৭ জুলাই ২০১৯, ১৫:৫৭


কোরবানির পশুর হাট। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) ক্রেতা বিক্রেতাদের উপস্থিতিতে সরগরম হয়ে উঠার অপেক্ষায় দেশের পশুর হাটগুলো। চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ১২ অগাস্ট কোরবানির ঈদ হতে পারে। সেই ধারাবাহিকতায় এবার রাজধানীর ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এই দুই এলাকায় ঈদে ২৪টি স্থানে কোরবানির পশু কেনাবেচার জন্য জায়গা নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে উত্তর সিটি করপোরেশনের ১০টি স্থানে ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে ১৪টি স্থানে কোরবানির পশু কেনাবেচা করা যাবে।

১৬ জুলাই, মঙ্গলবার মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ  মন্ত্রণালয় এ সিদ্ধান্ত  নিয়েছে। 

ঈদুল আজহার দিন ও তার আগের তিন দিনসহ মোট চার দিন অস্থায়ী কোরবানির পশুরহাট ইজারা দিয়েছে ডিএনসিসি-ডিএসসিসি। এবার হাটগুলোতে সরকারি মূল্য ও শিডিউল মূল্যসহ পরিচ্ছন্ন ফি নির্ধারণ করা হয়েছে।

প্রাণিসম্পদ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক (খামার) ড. এ বি এম খালেদুজ্জামান জানান, ডিএসসিসি-ডিএনসিসির আওতায় ২৩টি অস্থায়ী ও একটি স্থায়ী পশুরহাট বসবে। সবার মতামতের ভিত্তিতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পশুরহাটে পশুর প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার জন্য ২৫টি ভেটেরিনারি মেডিকেল টিম গঠন করে যথাযথভাবে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়াও সারা দেশে মোট ২ হাজার ৩৬২টি পশুর হাট বসবে।

ডিএনসিসি’র যে সব স্পটে বসবে পশুর হাট

ডিএনসিসি এলাকার মধ্যে উত্তরা ১৫ নম্বর সেক্টরের ২ নম্বর সেতুর পশ্চিমে গোলচত্বর পর্যন্ত সড়কের উভয়পাশের ফাঁকা জায়গা, খিলক্ষেত বনরূপা আবাসিক প্রকল্পের খালি জায়গা, খিলক্ষেত ৩০০ ফুট সড়ক সংলগ্ন উত্তর পাশে, ভাটারা (সাইদ নগর), ঢাকা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের খেলার মাঠ, মোহাম্মদপুর বুদ্ধিজীবী সড়কসংলগ্ন (বছিলা) পুলিশ লাইনসের খালি জায়গা, মিরপুর সেকশন-৬ (ইস্টার্ন হাউজিং) খালি জায়গা, মিরপুর ডিওএইচএসের উত্তর পাশে সেতু প্রোপার্টি, উত্তরখান মৈনারটেক শহিদ নগর হাউজিংয়ের খালি জায়গায় অস্থায়ীভাবে পশুরহাট বসবে।

 ডিএসসিসি’র যে সব স্পটে বসবে পশুর হাট

এবার দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১৪টি স্থানে অস্থায়ী কোরবানির পশুরহাট বসবে। গত কোরবানির ঈদের ১৩টি স্থানে হাট বসেছিল, এবার নতুন করে আমুলিয়া মডেল টাউনের আশপাশের খালি জায়গায় এবার হাট বসবে। এছাড়া ডিএসসিসির  উত্তর শাহজাহানপুরের খিলগাঁও রেলগেট-মৈত্রী সংঘ মাঠ, ঝিগাতলা হাজারীবাগ মাঠ, লালবাগ রহমত খেলার মাঠ, কামরাঙ্গীরচর ইসলাম চেয়ারম্যান বাড়ি মোড়, পোস্তগোলা শ্মশানঘাট , শ্যামপুর বালুর মাঠ, মেরাদিয়া বাজার, ৩২ নম্বর ওয়ার্ডের সামসাবাদ মাঠ, কমলাপুর স্টেডিয়াম-সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, শনির আখড়া-দনিয়া কলেজ মাঠ, ধূপখোলা ইস্ট অ্যান্ড ক্লাব মাঠ, ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউয়ার টেক মাঠ ও আফতাব নগর ইস্টার্ন হাউজিং মেরাদিয়া বাজার।

প্রাণিসম্পদ অধিদফতর সূত্র জানায়,  সারা দেশে মোট ২ হাজার ৩৬২টি কোরবানির পশুরহাটে দায়িত্ব পালনের জন্য ১ হাজার ১৯৩টি ভেটেরিনারি মেডিক্যাল টিম গঠন করা হয়েছে। হাটে ভেটেরিনারি মেডিকেল টিমের কার্যক্রম মনিটারিংয়ের জন্য কেন্দ্রীয় মনিটারিং টিম ও বিশেষজ্ঞ টিম থাকবে।

এ ছাড়াও কোরবানির হাট ব্যবস্থাপনার জন্য চারটি মনিটরিং টিম ও কন্ট্রোলরুমের দায়িত্ব পালনের জন্য কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়। পশুরহাটে প্রাণি স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণে প্রয়োজনীয় কর্মকর্তা ও কর্মচারী সমন্বয়ে রিজার্ভ টিম গঠন করা হয়েছে। কোরবানির পশুর হাটগুলোতে সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা, আইনশৃঙ্খলা রক্ষা, ভেটেরিনারি মেডিকেল টিমের জন্য প্রয়োজনীয় ক্যাম্প গঠন করা হবে বলেও জানা যায়। 

সড়কের পাশে পশুর হাট বসার অনুমতি না দিতে ডিসিদের নির্দেশ

এদিকে ঈদ উল আজহাকে সামনে রেখে সারা দেশে সড়ক ও মহাসড়কের পাশে পশুর হাট বসানোর অনুমতি না দিতে জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ১৭ জুলাই বুধবার সকালে সচিবালয়ে ডিসিদের সঙ্গে এক বৈঠক শেষে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো. নজরুল ইসলাম সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

কোরবানির ঈদ পর্যন্ত সীমান্ত পথে গরু ঢোকা বন্ধ

কোরবানির ঈদে সম্ভাব্য চাহিদার চেয়ে বেশি গবাদি পশু দেশে রয়েছে বলে ব্যবসায়ী ও খামারিদের স্বার্থে এই সময় ভারত থেকে গরু আনা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরুর সভাপতিত্বে গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে এক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়।

এবার ঈদে এক কোটি ১০ লাখ পশু কোরবানি হতে পারে ধরে নিয়ে মন্ত্রণালয় বলছে, দেশে কোরবানিযোগ্য গবাদিপশুর সংখ্যা এর থেকেও আট লাখ বেশি রয়েছে। মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এবার সারা দেশে কোরবানিযোগ্য ৪৫ লাখ ৮২ হাজার গরু-মহিষ, ৭২ লাখ ছাগল-ভেড়া এবং ৬ হাজার ৫৬৩টি অন্যান্য পশুর প্রাপ্যতা নিশ্চিত করেছে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর।

গত বছর ঈদে কোরবানিযোগ্য গবাদিপশুর সংখ্যা ছিল ১ কোটি ১৫ লাখ এবং কোরবানি হয়েছিল ১ কোটি ৫ লাখের মতো। মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় সারা দেশে কোরবানিযোগ্য প্রায় ১ কোটি ১৮ লাখ গবাদিপশুর মজুদের পাশাপাশি কোরবানির হাট-বাজারে স্বাস্থ্যসম্মত পশুর সরবরাহ ও নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের যাবতীয় উদ্যোগ নিয়েছে। এবং দেশের পশু বিক্রেতাদের স্বার্থে ঈদ উল আজহা পর্যন্ত সীমান্ত পথে বৈধ-অবৈধ সকল প্রকার গবাদির অনুপ্রবেশ বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলা হয় বিজ্ঞপ্তিতে।

রাস্তার পাশে পশুর হাট বসতে দেওয়া হবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

এদিকে আসন্ন ঈদ উল আজহায় দেশে কোথাও রাস্তার পাশে পশুর হাট বসতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। একই সঙ্গে কোরবানির পশুবাহী ট্রাক ও ট্রলারে চাঁদাবাজি বন্ধে নির্দিষ্ট হাটের ব্যানার টাঙানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, ঈদুল আজহায় রাজধানীতে সিটি করপোরেশন নির্ধারিত স্থান ছাড়া কোনো স্থানে পশু কোরবানি দেওয়া যাবে না। সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষ আমাদের পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে আলোচনা করে নির্ধারিত স্থান নির্ধারণ করবেন। সেই স্থানের বাইরে কোথাও কোরবানির হাট ও পশু জবাই করা যাবে না।

গত ১৪ জুলাই রবিবার সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আসন্ন ঈদ উপলক্ষে দেশের সার্বিক আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি পর্যালোচনা, নিয়ন্ত্রণে করণীয় ও প্রাসঙ্গিক বিষয় নিয়ে অনুষ্ঠিত সভায় তিনি একথা বলেন।

ঈদে সন্ত্রাসীচক্র ও দুষ্কৃতিকারীদের তৎপরতা রোধে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। পশুরহাট, বাস, রেল, লঞ্চ টার্মিনালে বিশেষ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

প্রিয় সংবাদ/আশরাফ