জিম্বাবুইয়ান ব্যাটসম্যান সিকান্দার রাজা। ছবি: সংগৃহীত

‘আমরা কি ব্যাট-প্যাড পুড়িয়ে চাকরিতে আবেদন করব?’

কোনো অবস্থাতেই এভাবে বিদায় নিতে চাননি আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বেশ সুনাম কুড়োনো জিম্বাবুয়ের এই ব্যাটসম্যান।

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৯ জুলাই ২০১৯, ১৪:৩৭ আপডেট: ১৯ জুলাই ২০১৯, ১৪:৩৭
প্রকাশিত: ১৯ জুলাই ২০১৯, ১৪:৩৭ আপডেট: ১৯ জুলাই ২০১৯, ১৪:৩৭


জিম্বাবুইয়ান ব্যাটসম্যান সিকান্দার রাজা। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) দুর্নীতি ও রাজনৈতিক সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে জিম্বাবুয়ের সদস্য পদ স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল  ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)। ফলে আইসিসি থেকে কোনো অর্থের অনুদান পাবে না দেশটির ক্রিকেট বোর্ড। শুধু তাই নয়, আইসিসির কোনো ইভেন্টেও অংশ নিতে পারবে না জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল।

এই ঘোষণার পর জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটারদের হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছে। আর হবেই বা না কেন? বহিষ্কারাদেশ বহাল থাকলে হয়তো আর কখনোই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলা হবে না জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটারদের। যা তাদের ঠেলে দেবে জোরপূর্বক অবসরের দিকে। তখন কি করবেন তারা? প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়েছেন সিকান্দার রাজাও।

জিম্বাবুয়ের এই তারকা ক্রিকেটারের প্রশ্ন, ‘আমি জানি না আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার হিসেবে এখন আমরা কোথায় যাব। ক্লাব ক্রিকেটে নাকি কোনো ক্রিকেটই খেলব না? আমরা কি বাট-প্যাড পুড়িয়ে চাকরিতে আবেদন করব?’

জনপ্রিয় ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিক ইনফোকে দেওয়া সাক্ষাতকারে সিকান্দার এ নিয়ে বলেন, ‘আমাদের হৃদয় ভেঙে গেছে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ার এভাবে শেষ হওয়ায় বড় ধাক্কা পেয়েছে সবাই। এটা শুধু একজন ক্রিকেটার নয়, গোটা দেশের জন্যই। আমার জন্য এটা মেনে নেওয়া কঠিন। সতীর্থদের ভাবনাও যে একইরকম তা নিশ্চিত। এখান থেকে আমরা কোথায় যাব?’

সেপ্টেম্বরে বাংলাদেশের মাটিতে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলার কথা ছিল জিম্বাবুয়ের। অক্টোবরে রয়েছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব। এ ছাড়াও আগস্টে মেয়েদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাইপর্বেও জিম্বাবুয়ের অংশ নেওয়া ভীষণভাবে অনিশ্চিত হয়ে পড়ল। তবে বহিষ্কারাদেশের মাধ্যমেই সব শেষ হয়ে যায়নি। আগামী তিন মাসের মধ্যে আইসিসিকে সন্তোষজনক খবর দিতে পারলে পুনরায় সদস্যপদ ফিরে পাবে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট।

এ নিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বেশ সুনাম কুড়োনো এই জিম্বাবুইয়ান ব্যাটসম্যানের ভাষ্য, ‘মুক্তির পথটা আমরা জানি না। বলা হয়েছে আমরা নিষিদ্ধ, কিন্তু কত দিনের জন্য তা বলা হয়নি। দুই বছর হলে অনেকের ক্যারিয়ারই শেষ হয়ে যাবে। শর্তটা আমি জানি না আসলে জিম্বাবুয়েতে ক্রিকেটটাই বন্ধ করে দেওয়া হলো। আমি জানি না কেউ এটা কীভাবে করতে পারে কিন্তু আমাদের সঙ্গে তাই ঘটল। এখন ঠিক কী করা উচিত তা আমি জানি না।’

জিম্বাবুয়ের হয়ে ১২ টেস্ট ও ৯৭ ওয়ানডে খেলা রাজা মনে করেন, আইসিসি সদস্যপদ স্থগিত করায় তিনি দেশের হয়ে শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচটি খেলে ফেলেছেন। কিন্তু কোনো অবস্থাতেই এভাবে বিদায় নিতে চাননি আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বেশ সুনাম কুড়োনো এ ব্যাটসম্যান।

নিষিদ্ধ হওয়ার ঘোষণার পরপর সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে একটি টুইট করেন তিনি। সেখান সিকান্দার লিখেছেন, ‘একটা সিদ্ধান্ত কীভাবে একটা দলকে অচেনা করে দেয়। একটা সিদ্ধান্তে কীভাবে অনেকে বেকার হয়ে পড়ে। একটা সিদ্ধান্ত অনেক পরিবারের ওপর প্রভাব ফেলে। একটা সিদ্ধান্ত কীভাবে অনেক ক্যারিয়ার শেষ করে দেয়। অবশ্যই আমি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে এভাবে বিদায় জানাতে চাইনি।’

প্রিয় খেলা/রুহুল