২০১০ সালে সাদা পোশাককে বিদায় জানালেও ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে নিয়মিত খেলে আসছিলেন লাসিথ মালিঙ্গা। ছবি: সংগৃহীত

বাংলাদেশের বিপক্ষেই অবসর, অস্ট্রেলিয়ায় স্থায়ী হচ্ছেন মালিঙ্গা!

ক্রিকেট ক্যারিয়ার শেষে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটারদের অস্ট্রেলিয়ায় পাড়ি জমানো নতুন কিছু নয়!

সৌরভ মাহমুদ
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২১ জুলাই ২০১৯, ০৯:৫৭ আপডেট: ২১ জুলাই ২০১৯, ০৯:৫৭
প্রকাশিত: ২১ জুলাই ২০১৯, ০৯:৫৭ আপডেট: ২১ জুলাই ২০১৯, ০৯:৫৭


২০১০ সালে সাদা পোশাককে বিদায় জানালেও ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে নিয়মিত খেলে আসছিলেন লাসিথ মালিঙ্গা। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ২০০৪ সালে ওয়ানডে অভিষেক হবার পর লঙ্কানদের হয়ে ২২৫টি ওয়ানডেতে মাঠে নেমেছেন। নিয়েছেন ৩৩৫টি উইকেট যা দেশটির ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ। ২০১০ সালে সাদা পোশাককে বিদায় জানালেও ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে নিয়মিত খেলে আসছিলেন লাসিথ মালিঙ্গা।

বর্তমানে অস্ট্রেলিয়াতেই অবস্থান করছেন এই তারকা পেসার। অবসরের বিষয়ে নিয়ে এরই মধ্যে লঙ্কানদের প্রধান নির্বাচক অশন্থা ডি মেল’র সঙ্গে প্রাথমিক আলোচনা সেরেছেন। লঙ্কান সংবাদমাধ্যম আইল্যান্ড ক্রিকেটের খবর, বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ খেলেই যাবেন অবসরে। 

শুধু তাই নয়। দেশটির খ্যাতনামা দৈনিকটি আরও জানাচ্ছে, অবসর নেওয়ার পর স্থায়ীভাবে অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস করবেন মালিঙ্গা। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় কোচিং ক্যারিয়ার শুরু করার ইচ্ছে আছে মালিঙ্গার। এরইমধ্যে দেশটির স্থায়ী নাগরিকত্বও পেয়ে গেছেন ৩৫ বছর বয়সী এই পেসার।

ক্রিকেট ক্যারিয়ার শেষে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটারদের অস্ট্রেলিয়ায় পাড়ি জমানো নতুন কিছু নয়। কয়েকজন ক্রিকেটার দেশটির ক্লাব, বিশ্ববিদ্যালয় ক্রিকেটের সঙ্গেও যুক্ত। শ্রীলঙ্কার বর্তমান কোচ চান্দিকা হাতুরুসিংহেও অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক। এবার সেই তালিকায় নাম লেখাবেন মালিঙ্গাও।

চলতি মাসের ২৬ তারিখ থেকে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে সিরিজ শুরু হচ্ছে শ্রীলঙ্কার। প্রথম ম্যাচের আগেই ২২ তারিখে দেশে ফিরবেন মালিঙ্গা। লঙ্কান গণমাধ্যম বলছে, দেশে ফিরে বেশ কিছু বন্ধু-বান্ধবদের সঙ্গে দেখা করতে পারেন তিনি। তারপরই অবসর ঘোষণা ও অস্ট্রেলিয়ায় থাকার বিষয়টি সরকারিভাবে জানাবেন। 

প্রিয় খেলা/আশরাফ