প্রতীকী ছবি। ছবি: সংগৃহীত

৩৪ বছরের শিক্ষিকার লালসার শিকার ১৪ বছরের ছাত্র

মাত্র ১৪ বছর বয়সী ছাত্রের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক গড়ে তোলার কারণে ভারতে ৩৪ বছর বয়সী এক শিক্ষিকাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আশরাফ ইসলাম
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৬ মে ২০১৮, ১৪:০৪ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০


প্রতীকী ছবি। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) মাত্র ১৪ বছর বয়সী ছাত্রের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক গড়ে তোলার কারণে ভারতে ৩৪ বছর বয়সী এক শিক্ষিকাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি একটি সরকারি স্কুলের বিজ্ঞানের শিক্ষিকা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমসের এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, নির্যাতিত ছাত্রের পরিবার ও শিক্ষিকা পূর্বপরিচিত। ওই ছাত্র ও তার ছোট বোন গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে ওই শিক্ষিকার কাছে পড়া শুরু করে। এক পর্যায়ে ভাই ও বোনকে আলাদা আলাদা পড়াবেন বলে ওই শিক্ষিকা ছাত্রের বাবা মাকে জানান। এতে করে তাদের পড়াশোনায় আরও ভালোভাবে নজর দিতে পারবেন বলে জানান তিনি। মা-বাবাও শিক্ষিকার কথায় রাজি হয়ে যান। 

এরপর ছাত্র পড়তে গেলে ওই শিক্ষকা শারীরিকভাবে প্রলোভন দেখাতে শুরু করেন। এমন কি সবসময় যোগাযোগ রাখার জন্য ছাত্রকে একটি মোবাইল সিমও কিনে দেন।

পরে পরীক্ষার ফলাফল খারাপ হলে ছেলেটির বাবা-মা ওই শিক্ষিকার কাছে পড়ানো বন্ধ করে দেন। কিন্তু এরইমধ্যে ওই ছেলেটি সম্পর্কে অধিকারবোধ গড়ে ওঠে ওই শিক্ষিকার। এরপর হঠাৎ একদিন ওই শিক্ষিকা ছেলেটির বাবা-মাকে ফোন দিয়ে একবারের জন্য ছেলেটিকে তার বাসায় পাঠাতে বলেন।  

গত সোমবার শিক্ষিকার বাড়িতে গেলে ছেলেটির বাবা-মার সামনেই শিক্ষিকা একটি রুমে আটকে দেয় ছেলেটিকে। এ সময় ওই শিক্ষিকার স্বামী ও সন্তানরাও উপস্থিত ছিলেন। ছেলেটির বাবা-মা চেঁচামেচি করলে আশেপাশের প্রতিবেশীরা এসে ছেলেটিকে উদ্ধার করে। 

এদিন নির্যাতিত ছাত্রের বাবা-মায়ের সঙ্গে ওই শিক্ষিকার কথা কাটাকাটি হয়। এরপর তারা চাইল্ডলাইনে ফোন দিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, এই ঘটনায় শিশুদের যৌন অপরাধ থেকে সুরক্ষা আইনের ৬ ধারায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

তবে ঘটনা এখানেই শেষ নয়। ওই শিক্ষিকা ছেলেটির বাসায় গিয়ে কাশির সিরাপ খেয়ে দাবি করেন তিনি আত্মহত্যা করছেন। ছেলেটির বাবা-মা পুলিশে ফোন করে জানালে ওই শিক্ষিকাকে পুলিশ হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এদিকে অভিযোগের ভিত্তিতে গত বৃহস্পতিবার ওই শিক্ষিকাকে স্থানীয় আদালতে পেশ করা হলে তার বিচারবিভাগীয় হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্রিয় সংবাদ/আশরাফ/গোরা 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
জাফরুল্লাহর বিরুদ্ধে আরও এক মামলা
আবদুল কাইয়ুম ২৪ অক্টোবর ২০১৮
টেকনাফে ‘গোলাগুলিতে’ নিহত ১
শেখ নোমান ২৪ অক্টোবর ২০১৮
আজ শুভ প্রবারণা পূর্ণিমা
শেখ নোমান ২৪ অক্টোবর ২০১৮
সিলেটে মাজার জিয়ারত করলেন ঐক্যফ্রন্ট নেতারা
মোক্তাদির হোসেন প্রান্তিক ২৪ অক্টোবর ২০১৮
ভোটারের তথ্য বেহাত হচ্ছে?
প্রদীপ দাস ২৪ অক্টোবর ২০১৮
স্পন্সরড কনটেন্ট
ট্রেন্ডিং