ভারতীয় পেঁয়াজ। ছবি : সংগৃহীত

৪ রুপির পেঁয়াজ বাংলাদেশে ৩১ টাকা

গ্রীষ্মকালীন মৌসুমে ব্যাপক উৎপাদন ও সরবরাহের তুলনায় রমজানে চাহিদা কমে যাওয়ায় ভারতে পেঁয়াজের বাজারে ধস নেমেছে।

আয়েশা সিদ্দিকা শিরিন
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৩ মে ২০১৮, ১১:৫৮ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ০৪:৪৮
প্রকাশিত: ২৩ মে ২০১৮, ১১:৫৮ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ০৪:৪৮


ভারতীয় পেঁয়াজ। ছবি : সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) ভারতে পেঁয়াজের সবচেয়ে বড় পাইকারি বাজার লাসাগাঁও। পেঁয়াজের দামে ব্যাপক ধস নামায় গত দুই দিনে সেখানে চার রুপি (৪ টাকা ৯৭ পয়সা) কেজিতে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। আর সেই পেঁয়াজ আমদানির পরে বাংলাদেশে বিক্রি হচ্ছে ৩১ টাকায়।

২৩ মে, বুধবার দৈনিক কালের কণ্ঠে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশ করা হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত তিন মাসে লাসাগাঁওয়ে পেঁয়াজের দাম ৬৫ শতাংশ কমেছে। মধ্যপ্রদেশে কৃষকরা ৫০ পয়সা থেকে পাঁচ রুপিতে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি করছেন। এমতাবস্থায় সরকারের কাছে আর্থিক সহায়তা দাবি করেছেন কৃষকরা।

পেঁয়াজের বাজারে ধস নামার কারণ হিসেবে ভারতের শীর্ষ গণমাধ্যমগুলো বলছে, গ্রীষ্মকালীন মৌসুমে পেঁয়াজের ব্যাপক উৎপাদন ও সরবরাহের তুলনায় রমজানে চাহিদা কমে যাওয়া।

তবে ভারতের পেঁয়াজের বাজারের ধসের প্রভাব পড়েনি বাংলাদেশে। গতকালও চট্টগ্রামের কাজীর দেউড়ী বাজারে ভারতীয় পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে প্রতি কেজি ৩১ টাকায়। এ ব্যাপারে আল মদিনা স্টোরের নাসির উদ্দিন বলেন, ‘সোমবার খাতুনগঞ্জ থেকে কিনেছি ২৩ টাকা দরে, গতকাল বিক্রি করেছি ৩১ টাকা কেজিতে।’

হিলি, ভোমরা, সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি করা ভারতীয় পেঁয়াজ বাংলাদেশে আসে। হিলি স্থলবন্দরের পেঁয়াজ আমদানিকারক শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘এখনো সেই দামে পেঁয়াজ বাংলাদেশে আসেনি। আরও কয়েক দিন সময় লাগবে। তখন দাম কমবে।’

প্রিয় সংবাদ/গোরা