(প্রিয়.কম) মাছ-মাংস, ফল-সবজি কিংবা তৈরি খাবার তো আমরা অহরহ ফ্রিজে রাখি। আবার অনেকে এমন অনেক কিছুই ফ্রিজে রেখে দিই, যা রাখবার তেমন কোন প্রয়োজন নেই। যেমন, ফল বা সবজি, রুটি বা কেক ইত্যাদি ফ্রিজে না রেখে খাওয়াই উত্তম। এগুলো স্বাভাবিক তাপমাত্রাতেই বেশ কদিন ফ্রেশ থাকে। এই ফ্রেশনেস ভাবটা থাকতে থাকতেই খেয়ে শেষ করে ফেলুন। অল্প করে কিনুন, ফুরিয়ে গেলে আবার কিনবেন। 

কিন্তু হ্যাঁ, এমন অনেক খাবারই আছে যা আপনি ফ্রিজে রাখছেন না, কিন্তু ফ্রিজে রাখলে এগুলো অনেকদিন ভালো থাকে। অনেকদিন ফ্রিজে রাখলেও এগুলোর পুষ্টিগুণের কোন হেরফের হয় না এবং নষ্ট হয় না বিধায় আপনার টাকাও বাঁচে অনেক। চলুন, আজ তাহলে জানি সেই খাবারগুলোর কথা। 

১) গুঁড়ো দুধ

কখনো কি লক্ষ্য করেছেন যে গুঁড়ো দুধের প্যাকেটের মুখ খোলার কয়েকদিনের মাঝেই কেমন যেন একটা পুরাতন গন্ধ আসতে থাকে? এই ভয়ে আমরা অনেকেই কিন্তু বড় প্যাকেটের গুঁড়ো দুধ কিনি না, যদিও বড় প্যাকেটের কিনলেই সাশ্রয়ী হয় বেশি। আজ থেকে এই ঝামেলা আর না। গুঁড়ো দুধের প্যাকেট খুলুন, যেটুকু লাগবে বের করে নিন। তারপর প্যাকেটের মুখ ভালভাবে বন্ধ করে ফ্রিজে রেখে দিন। চাইলে ডিপ ফ্রিজেও রাখতে পারেন। না, গুঁড়ো দুধ এতে মোটেও নষ্ট হবে না বা জমাট বেঁধে যাবে না। বরং ভালো থাকবে অনেক দিন। 

২) গুঁড়ো মশলা/ গুঁড়ো রূপচর্চার পণ্য

রূপচর্চার প্রাকৃতিক পণ্য আজকাল অনেকেই ব্যবহার করছেন, তাই না? যেমন মেথি গুঁড়ো, আমলা বা শিকাকাই গুঁড়ো, মসুর ডালের গুঁড়ো ইত্যাদি। এই সবই ফ্রিজ বা ফ্রিজে সংরক্ষণ করতে পারেন সহজেই। পোকা ধরবে না, নষ্টও হবে না। সেই সাথে হলুদ-মরিচ-ধনিয়া গুঁড়ো, গোল মরিচ বা সরিষা গুঁড়ো ইত্যাদি খাবারও কিন্তু প্যাকেটের মুখ খোলার কয়েকদিন পর ফ্লেভার হারিয়ে ফেলে। তাই না? এই সবই কিন্তু আপনি ফ্রিজে রাখতে পারেন। একটুও নষ্ট হবে না ফ্লেভার। একবার কিনে খেতে পারবেন অনেকদিন। সবসময়েই স্বাদ হবে একদম নতুনের মতন।  আর হ্যাঁ, সরিষা গুঁড়ো কিংবা বেসন ফ্রিজে রাখলে কিন্তু কখনোই আর তেতো হয়ে যাবে না! 

৩) ঘি ও তেল

ঘি, নারিকেল তেল, অলিভ অয়েল বা যে কোন তেল জাতীয় জিনিস ফ্রিজ বা ফ্রিজারে সহজেই সংরক্ষণ করা যায়। তেল কিছুদিন রেখে দিলেই বিচ্ছিরি একটা পুরানো গন্ধ আসে। ফ্রিজে রাখলে সেটা হবে না কখনোই। তেলের গুনাগুনও নষ্ট হবে না। 

৪) বিস্কুট/চানাচুর ইত্যাদি মুচমুচে খাবার

জি, আপনি শুনে অবাক হলেও এটা সত্যি যে বিস্কুট, চানাচুর, চিপস সহ যে কোন ক্রিসপি খাবার মুখ বন্ধ প্যাকেটে ফ্রিজে রেখে দিলে থাকবে একেবারেই মুচমুচে ও সতেজ! 

৫) বাদাম ও ডাল জাতীয় জিনিস

কিছুদিন ঘরে রাখলেই কিন্তু বাদামে পোকা ধরতে শুরু করে। অন্যদিকে মসুর ডালে দেরীতে পোকা ধরলেও  বুটের ডাল বা মুগের ডালে পোকা সামান্য তেই ধরে যায়। তাহলে উপায়? উপায় হচ্ছে ফ্রিজে রেখে দিন। কক্ষনো আর পোকা ধরবে না। এমনকি বাসমতী চালও ফ্রিজে রাখলে ভালো থাকবে!

লেখক: অরগানিক ফুড শপ ও কেটারিং হাউজ মিট মনস্টারের হেড শেফ