ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে অতিথিরা। ছবি: সংগ্রহিত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ১০০ মেধাবী শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান

উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক শিক্ষার্থীদের কল্যাণে বৃত্তি প্রদান করায় দাতাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ২৮ মে ২০১৭, ১৭:৪৮ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ০৮:৩২
প্রকাশিত: ২৮ মে ২০১৭, ১৭:৪৮ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ০৮:৩২


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে দরিদ্র ও মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে অতিথিরা। ছবি: সংগ্রহিত

(প্রিয়.কম) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের বিভিন্ন বিভাগের দরিদ্র ও মেধাবী একশো আবাসিক শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে। ২৮ মে রোববার বিজনেস স্টাডিজ অনুষদস্থ আব্দুল্লাহ ফারুক মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে এ বৃত্তি প্রদান করা হয়। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে শিক্ষার্থীদের হাতে বৃত্তির চেক তুলে দেন। 

ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড ও আর আই খান ট্রাস্ট ফান্ড-এর সহযোগিতায় দরিদ্র ও মেধাবী আবাসিক শিক্ষার্থীদের এই বৃত্তি প্রদান করা হয়েছে। 

অনুষদের ডিন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ ওয়াসেফ মো. আলী এবং ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী সেলিম আর. এফ. হুসাইন। 

অনুষ্ঠানে সামাজিক দায়বদ্ধতা কর্মসূচির আওতায় ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড এবং ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড-এর পক্ষ থেকে যথাক্রমে ৩০ লক্ষ ও ২৪ লক্ষ টাকার চেক হস্তান্তর করা হয়। প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে ৫ হাজার টাকা করে প্রতি মাসে ৫০ জন শিক্ষার্থীকে শিক্ষা বৃত্তি প্রদান করবে ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড এবং ৪০ জনকে বৃত্তি প্রদান করবে ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড। এ সময় ব্যাংকদ্বয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থী ও শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

এছাড়াও ব্যাংকিং এন্ড ইন্স্যুরেন্স বিভাগের প্রয়াত শিক্ষক রফিকুল ইসলাম খানের স্মরণে তার মেয়ে ড. হাসিনা শেখ, আর আই খান ট্রাস্ট ফান্ডের পক্ষ থেকে ১০ জন শিক্ষার্থীকে বৃত্তি প্রদান করেন। বৃত্তি নির্বাচন কমিটির প্রধান অধ্যাপক ড. রাজিয়া বেগম নির্বাচন পদ্ধতি সম্পর্কে অবহিত করেন। অতিথিবৃন্দ তাদের বক্তৃতায় ভবিষ্যতে এধরনের কর্মকান্ডে তাদের হাত আরও প্রসারিত করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন। 

উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক শিক্ষার্থীদের কল্যাণে বৃত্তি প্রদান করায় দাতাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন, শুধুমাত্র মেধার যোগ্যতায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি প্রক্রিয়ায় উত্তীর্ণ হয়ে আজ তারা উচ্চতর পড়াশোনা অব্যাহত রেখেছে। 

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে উপাচার্য আরও বলেন, একটি দেশের সম্পদ হলো মেধা, তোমরা এই দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠের মেধাবী শিক্ষার্থী। সবার মাঝেই অমিত সম্ভাবনা আছে, সেই সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে এগিয়ে নিয়ে যাওয়াই সকলের উদ্দেশ্য। তোমাদের সেই অগ্রযাত্রায় বিশ্ববিদ্যালয় সবসময়  পাশে থাকবে, পাশে থাকবেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ। সেই যাত্রাপথে সব ধরনের হীনমন্যতাকে পাশ কাটিয়ে আত্মমর্যাদা ও আত্মবিশ্বাসের সাথে সব বাধা অতিক্রম করে তোমরা এগিয়ে যাবে। উপাচার্য দেশ ও জনগনের উন্নয়নের জন্য কাজ করতে শিক্ষার্থীদের প্রতি প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

প্রিয় সংবাদ/ইরফান/শান্ত