মুক্তিপিন, প্রিয়.কম

মুক্তিপিন ক্যাম্পেইন সর্ম্পকে

বর্তমানে ‘প্রিয়পিন’ নামক একটি লোকেশন বেইজ সার্ভিস প্রিয়.কমের পোর্টালে সংযুক্ত করা হয়েছে, যার মাধ্যমে দেশের যেকোনো প্রান্তের যেকোনো ব্যক্তি সরাসরি এবং তাৎক্ষণিকভাবে ঘটে যাওয়া যেকোনো সংবাদ পোস্ট করতে পারেন এবং পোস্টকৃত সংবাদটি সরাসরি ম্যাপের মাধ্যমে প্রকাশ করা হচ্ছে।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ২৫ নভেম্বর ২০১৭, ১৬:৩৫ আপডেট: ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ১১:১৭
প্রকাশিত: ২৫ নভেম্বর ২০১৭, ১৬:৩৫ আপডেট: ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ১১:১৭


মুক্তিপিন, প্রিয়.কম

এই প্রজেক্টের মাধ্যমে দেশের শাতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিবিজড়িত স্থানগুলোকে মানচিত্রে চিহ্নিত করতে আগ্রহী করার জন্য নানা রকম আয়োজনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন জাতীয় অনুষ্ঠানে মুক্তিপিনের সম্পর্কে সবাইকে জানানোর জন্য নানা রকম ইভেন্টের আয়োজন করা হয়েছে। ইতোমধ্যে দেশের শীর্ষস্থানীয় ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়াতে মুক্তিপিন প্রচুর সাড়া জাগিয়েছে। এছাড়া দেশব্যাপী কয়েকটি জোনে ভাগ করে রোড শো করা হবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও মুক্তিপিনের সম্পর্কে এই প্রজন্মকে জানানোর জন্য বেশকিছু পদক্ষেপ হাতে নেওয়া হয়েছে।

প্রতিটি জেলায় পর্যাপ্ত প্রতিনিধি নিয়োজিত করা সহ অন্যান্য রিসার্চ প্রতিষ্ঠান ও আর্কাইভের সাথে যোগাযোগ করা হচ্ছে। সঠিক ইতিহাস যাচাইয়ের লক্ষ্যে এবং পর্যাপ্ত ডকুমেন্টেশনের ব্যবস্থা করার জন্য সংশ্লিষ্ট জাতীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর সাথে যোগাযোগ স্থাপন করা হচ্ছে। এছাড়াও, একটি রিসার্চ টিমসহ মুক্তিপিন প্রজেক্টের একটি সুবিশাল মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক লাইব্রেরী রয়েছে যেখানে ডিজিটাল ও প্রিন্টেড প্রচুর সংগ্রহ রয়েছে। নিয়োজিত আছে প্রয়োজনীয় ভিডিও নির্মাতা বিভাগ, চিত্রশিল্পী এবং লেখক ও গবেষকবৃন্দ।

প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী সকল পিনদাতাদের মধ্য থেকে বিচারক প্যানেলের মাধ্যমে যাচাই-বাছাই শেষে সেরা ১০০জনকে অন্যান্য পুরস্কারের সঙ্গে ১০ হাজার টাকা করে সম্মানী দেওয়া হবে। এ ছাড়া সেরা ১০টি পিন স্টোরি দিয়ে ১০টি ডকুমেন্টারি তৈরি করা হবে, যা সমাপনী অনুষ্ঠানের দিন দেখানো হবে। ‘মুক্তিপিন’ ইভেন্টের এই আয়োজনে পেমেন্ট পার্টনার হিসেবে যুক্ত রয়েছে আইপে সিস্টেমস লিমিটেড। এছাড়াও সার্বিক সহযোগিতায় রয়েছে মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেডএজি ফুড লিমিটেড ও ‍ডিবিসি টিভি। 

প্রিয় মুক্তিপিন ক্যাম্পেইন সম্পর্কে আপডেট পেতে সংযুক্ত থাকুন আমাদের ফেসবুক পেইজ ও ইভেন্ট পেইজে। ধারাবাহীকভাবে প্রিয় মুক্তিপিন তৎপরতা কর্মসূচীর জন্য উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে আমাদের কর্মসূচীতে যারা অংশগ্রহণ করেছেন তাদের সর্বশেষ আপডেট-

১. সিটি ইউনিভার্সিটিতে হয়ে গেল প্রিয় মুক্তিপিনের কর্মসূচি

২. চুয়েট ও পোর্ট সিটি ইউনিভার্সটিতে প্রিয় মুক্তিপিনের কর্মসূচী অনুষ্ঠিত

৩. খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রিয় মুক্তিপিন

৪. জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান মিলনায়তনে ‘প্রিয় মুক্তিপিন’ 

৫. বইমেলা ২০১৮-তে প্রিয় মুক্তিপিন

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...