(প্রিয়.কম) আশুলিয়ার নবীনগরে বিলাসবহুল গ্রীন লাইনের পরিবহনের দুরপাল্লার যাত্রীবাহি এসি বাসে তল্লাশী চালিয়ে ফেনসিডিলের চালান উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় বাসের চালক, হেলপার, সুপারভাইজার ও এক যাত্রীকে আটক করা হয়। এ ছাড়া বাসটি (ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৩৪০৩) আটক করে আশুলিয়া থানায় রাখা হয়েছে।

১৩ আগস্ট রোববার সকালে ঢাকা আরিচা মহাসড়কের আশুলিয়ার নবীনগরে তল্লাশী চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। আটককৃতরা হলেন- বাসের চালক মো. হারুন, সুপারভাইজার সোহেল উদ্দিন, হেলপার শাহআলম এবং যাত্রী রজনুর জামান নিয়ল।

আটককৃতদের মধ্যে মো. হারুন কুমিল্লার লাকসাম থানাধীন ইসাপুর গ্রামের মফিদুর রহমানের ছেলে। সুপারভাইজার সোহেল উদ্দিন রাজধানীর মিরপুরের মৃত জাফরু হোসেনের ছেলে। হেলপার শাহআলম মিরপুরের জাফর হোসেনের ছেলে। আর যাত্রী রজনুর জামান নিয়ল কুষ্টিয়ার কুমারখালী থানাধীন কুন্ডপাড়া গ্রামের আবদুল লতিফের ছেলে। 

এ বিষয়ে সাভার সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) খোরশেদ আলম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কলকাতা থেকে ঢাকাগামী গ্রীন লাইনের পরিবহনের একটি এসি বাসে তল্লাশী চালানো হয়। সে সময় বাসের ভেতরে বিভিন্ন সিটে ও বক্সে অভিনব কৌশলে লুকিয়ে রাখা প্রায় ২০০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়। 

এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে চালকসহ চারজন আটক করা হয়। অভিযোগ রয়েছে বিভিন্ন সময় কৌশল খাটিয়ে মাদকের এমন চালান পাচার হয়। এর সঙ্গে আরও যারা জড়িত রয়েছে তাদের আটকের চেষ্টা চলছে। এ বিষয়ে আশুলিয়া থানায় মাদক দ্রব্য আইনে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

প্রিয় সংবাদ/কামরুল