(প্রিয়.কম) বিগ বস নামের রিয়েলিটি শো আসলে একটি বিতর্ক সৃষ্টির মঞ্চ। একে একে ১০টি মৌসুম পার করার পর ১১ তম মৌসুমে যেন লাজ লজ্জার বাধ ভেঙে গেলো। প্রতিযোগী বাংড়ি কালরা ও পুনিশ শর্মা শতাধিক ক্যামেরার সামনে চুম্বন থেকে শুরু করে একই চাদরের নিচে ঘুমানো, সমস্ত কিছু চালিয়ে যাচ্ছেন বিগ বসের ঘরে। এমন ঘনিষ্ঠতা মেনে নিতে পারছেন না প্রতিযোগীর বাড়ির মালিক। বাড়ি ছাড়ার নোটিশ পেলেন বাংড়ি কালরা।

পুনিশের সঙ্গে যেভাবে ঘনিষ্ঠ হচ্ছেন বাংড়ি, তাতে সমাজে খারাপ প্রভাব পড়তে পারে, এমনই মনে করছেন বাংড়ির বাড়ির মালিক। কিছুদিন আগে পুনিশ-বাংড়িকে একসঙ্গে বাথরুমেও দেখা গিয়েছে। এসব দেখেই ক্ষুব্ধ বাংড়ির বাড়ির মালিক। আর সেই কারণে তাকে মুম্বাইয়ের বাসভবন খালি করে দিতে বলা হয়েছে।  

বিগ বস হাউজে প্রবেশের জন্য পাঞ্জাবের জালালাবাদ থেকে মুম্বাইয়ে বাড়ি ভাড়া নিয়ে থাকতে শুরু করেন বাংড়ি। সেই বাড়ির মালিকই এবার অসন্তুষ্ট তার উপর। বিগ বসের হাউজ থেকে ফেরার পর বাংড়ি আর ঐ বাড়িতে থাকতে পারবেন না বলেও স্পষ্ট জানিয়েছেন তিনি। ইতোমধ্যেই বাংড়ির ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের সে কথা জানিয়েছেন তার বাড়িওয়ালা। 

জানা যাচ্ছে, ক্যামেরা চলাকালীন বাংড়িকে ‘পোশাক খোলার’ কথাও নাকি বলতে শোনা যায় পুনিশকে। যা নিয়ে প্রকাশ্যেই আপত্তি জানান শোয়ের সঞ্চালক ও অভিনেতা সালমান খান। শোয়ের শালীনতার মাত্রা যেন না লঙ্ঘন করা হয়, সে বিষয়েও সতর্ক করেছিলেন সালমান। তাতেও কোন লাভ হয়নি। এসবের পাশাপাশি মেয়ের আচরণে নাকি অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বাংড়ির বাবা। রক্তচাপ বেড়ে যাওয়ায় তাকে ইতোমধ্যেই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।     

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

প্রিয় বিনোদন/সিফাত বিনতে ওয়াহিদ