হত্যার অভিযোগে আটক জিয়াবুল।

রামুতে বাংলাদেশিকে কুপিয়ে হত্যা, রোহিঙ্গা নাগরিক আটক

কক্সবাজারের রামুতে আব্দুল জব্বার (৩২) নামে এক বাংলাদেশি নাগরিক কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে এক রোহিঙ্গা নাগরিকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় আটক জিয়াবুল হক মিয়ানমারের ফকিরা বাজার এলাকার মীর আহমদের ছেলে। দুই মাস আগে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে।

তাজুল ইসলাম পলাশ
প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ২৮ অক্টোবর ২০১৭, ১৬:২১ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ২৩:০০
প্রকাশিত: ২৮ অক্টোবর ২০১৭, ১৬:২১ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ২৩:০০


হত্যার অভিযোগে আটক জিয়াবুল।

(প্রিয়.কম) কক্সবাজারের রামুতে আব্দুল জব্বার (৩২) নামে এক বাংলাদেশি নাগরিক কুপিয়ে হত্যার অভিযোগে জিয়াবুল হক নামের এক রোহিঙ্গা নাগরিককে আটক করেছে পুলিশ। জিয়াবুল মাস দুয়েক আগে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে এসে তার আত্মীয়ের কাছে ওঠেন।

২৭ অক্টোবর শুক্রবার দিবাগত রাতে এই ঘটনা ঘটেছে। নিহত জব্বার রশিদ আহমদ ফকিরের ছেলে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রামুর খুনিয়াপালং ইউনিয়নের হেডম্যানপাড়া এলাকার মালয়েশিয়া প্রবাসী শামসুল আলমের স্ত্রী ভেলুয়ারা বেগমের আত্মীয় হন জিয়াবুল হক। তিনি মিয়ানমারের ফকিরা বাজার এলাকার মীর আহমদের ছেলে। মিয়ানমার থেকে জিয়াবুল পালিয়ে এসে ভেলুয়ারা বেগমের কাছে ওঠেন। ভেলুয়ারা নিজেও রোহিঙ্গা।

ভেলুয়ারার সঙ্গে আব্দুল জব্বারের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। শুক্রবার রাতে তারা দেখা করার সময় জব্বারকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করে জিয়াবুল। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার সময় মারা যান তিনি।

এর আগে কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালীতে রোহিঙ্গাদের হামলায় ৪ বাংলাদেশি শ্রমিক আহত হয়েছেন। ২৭ অক্টোবর শুক্রবার রাতের এ ঘটনায় ২ জন রোহিঙ্গাকে অস্ত্রসহ আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতরা হচ্ছেন, ইলিয়াস ও নূর। তাদের বয়স ২৫-২৬ বছরের মতো হবে বলে জানা গেছে।

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...