ঝামেলামুক্ত ভ্রমণ করতে চাইলে ব্যবহার করুন মোনজো ট্রাভেল কার্ড।

মোনজো ট্রাভেল কার্ড: বাড়তি খরচ ছাড়াই বিদেশ ভ্রমণে টাকা উত্তোলন

ভ্রমণ করতে ভালোবাসেন? মোনজো নিয়ে এলো প্রিপেইড ব্যাংকিং কার্ড যার মাধ্যমে কোনো প্রকার বাড়তি ফি ছাড়াই ভ্রমণে খরচ করতে পারবেন ইচ্ছেমতো।

উম্মে মোনতেজামা
ফিচার রাইটার, ট্রাভেল
প্রকাশিত: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ২৩:৪২ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ০১:১৬
প্রকাশিত: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ২৩:৪২ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ০১:১৬


ঝামেলামুক্ত ভ্রমণ করতে চাইলে ব্যবহার করুন মোনজো ট্রাভেল কার্ড।

(প্রিয়.কম) সাম্প্রতিক সময়ে সাইবার নিরাপত্তা থেকে শুরু করে আরো নানা ইস্যুর কারণে বিকল্প ব্যাংকিং ব্যবস্থায় উৎসাহী হচ্ছেন সবাই। ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ড ছাড়াও ট্রাভেল কার্ড ব্যবহার করা হচ্ছে। কার্ড ইস্যুতে প্রথমেই রয়েছে ভিসা, এরপর মাস্টার কার্ড। অনেকে আমেরিকান এক্সপ্রেসের কার্ডগুলোও ব্যবহার করেন। ইন্টারনেট সহজলভ্য হওয়ায় বর্তমানে মানি ট্রান্সফার ও নিজ অ্যাকাউন্টের ব্যাংকিং তথ্য সহজেই জানা যায়। আর যারা ভ্রমণ করতে ভালোবাসেন তাদের জন্য মোনজো নিয়ে এলো প্রিপেইড ব্যাংকিং কার্ড যার মাধ্যমে কোনো প্রকার বাড়তি ফি ছাড়াই আপনার ভ্রমণে খরচ করতে পারবেন ইচ্ছেমতো।


ভ্রমণের সময় মোনজো ট্রাভেল কার্ডের বিকল্প নেই। 

বিদেশে অর্থ জোগাড় করতে যেন ঝামেলায় পড়তে না হয় সেই উৎসাহে ২০১৫ সালে এটি চালু করা হয়েছে। একটি ভালো ট্রিপ কাটাতে চাইলে মোনজো ট্রাভেল কার্ডের বিকল্প চিন্তা করবেন না। এটি অনলাইনভিত্তিক স্টার্ট আপ ব্যাংকের একটি ধারাবাহিক ধারণা আর ভ্রমণকারীদের জন্য লোভনীয় সুযোগ। সহজ কথায় বলতে গেলে মোনজো স্মার্টফোন প্রজন্মের জন্য একটি স্মার্ট ব্যাংক যা আপনাকে ব্যাংক ব্যবস্থার প্রাচীন পদ্ধতি থেকে দূরে রাখবে। এখন পর্যন্ত ১৩ টিরও বেশি দেশে মোনজো কার্ড ব্যবহারকারীরা প্রায় ২০ মিলিয়ন পাউন্ডের বেশি ব্যয় করেছেন।

কীভাবে এটি কাজ করবে:
এটি মাস্টারকার্ডের একটি প্রিপেইড ডেবিট কার্ড। সরাসরি ট্রানজিকশনের জন্য আপনার আলাদা কোনো ব্যাংক অ্যাকাউন্ট বা কোড নাম্বারের দরকার নেই। স্মার্টফোনে গুগল প্লে-স্টোর থেকে সহজেই মোনজো অ্যাপস ডাউনলোড করা যায়। অ্যাপস থেকেই কার্ডে টাকা ভরে ক্যাশ মেশিন, দোকানে কিংবা অনলাইনে ব্যবহার করতে পারবেন। এমনকি একই জায়গায় অন্যান্য কার্ডের সাথেও ব্যবহার করতে সমস্যা হবেনা। লেনদেন ছাড়াও আপনার অ্যাকাউন্ট ব্যালেন্স সহ কোথায় কোথায় ঠিক কতোটুকু টাকা খরচ হলো তা আপনাকে নোটিফিকেশনের মাধ্যমে জানিয়ে দিবে। কার্ডটি যদি হারিয়ে ফেলেন অথবা চুরি হয়ে যায় তাহলে শুধু অ্যাপস দিয়েও লেনদেন করতে পারবেন। এর আরেকটি সুবিধা হলো, অনেকদিন ধরে ব্যবহার না করলেও কার্ড ব্লক হয়ে যাবেনা। এছাড়া প্রতিবার কার্ড ব্যবহারে আপনাকে কোনো ফি বা চার্জ পরিশোধ করতে হবেনা। ভবিষ্যতে অ্যাপল ও অ্যান্ড্রয়েড পে, ওভারড্রাফ্‌ট, ইন্টারন্যাশনাল ব্যাংক ট্রানজিট, বিল স্প্লিটিং, ভার্চুয়াল সেভিংস অ্যাকাউন্টের মতো সুবিধা অন্তর্ভুক্ত করা হবে। 


খুব সহজে আপনার স্মার্টফোনে মোনজো অ্যাপস ইন্সটল করুন। 

এটি সেট আপ করবেন কীভাবে:
মোনজো একটি অনলাইন ভিত্তিক ব্যাংক হওয়ায় কেবল আপনার স্মার্টফোনের অ্যাপস দিয়েই ব্যাকিং কাজগুলো চেক করতে পারবেন।

১। গুগল প্লে স্টোর বা অ্যাপ স্টোর থেকে মোনজো অ্যাপলিকেশনটি ডাউনলোড করুন।
২। বেসিক তথ্য দিয়ে রেজিস্ট্রেশনের পর আপনার ইমেইল অ্যাড্রেস নিশ্চিত করুন।
৩। সেট আপ একবার হয়ে গেলে আপনার পরিচয় ভেরিফাই করার জন্য বলা হবে।
৪। ব্যাংকটি অনলাইনে হওয়ার কারণে আপনার পাসপোর্ট বা স্বাক্ষরের কপি দিতে হবেনা। শুধু পাসপোর্টের একটি ছবি তুলুন এবং সাথে আপনার একটি ছোট্ট ভিডিও ক্লিপ পাঠিয়ে দিন।
৫। কমপক্ষে ১০০ ডলার রিচার্জ করুন। আপনার ডেবিট কার্ডগুলি অ্যাপে ঢুকিয়ে খুব সহজেই এটি করা যাবে। ব্যাংক ট্রান্সফারের জন্যও এই বিকল্প পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারেন। 
৬। একবার এটি হয়ে গেলে কিছুদিনের মধ্যে আপনার ঠিকানায় কার্ড পৌঁছে যাবে।
৭। কার্ড আসার পর কার্ডের জন্য একটি পিন নাম্বার আপনাকে টেক্সট মেসেজের মাধ্যমে পাঠানো হবে।
৮। যুক্তরাজ্যের বাইরে যারা কার্ডটি রিচার্জ করবেন তারা প্রথমেই মাস্টারকার্ডের এক্সচেঞ্জ রেট চেক করে নিবেন।

মানি এক্সচেঞ্জ বা এটিএম থেকে টাকা উত্তোলনের জন্য যদিও আলাদা করে ফি এর দরকার নেই। তবে যুক্তরাজ্যের বাইরে বিদেশী এটিএম থেকে টাকা তুলতে গেলে আপনাকে চার্জ করা হতে পারে কিন্তু এটি মোনজার চার্জ নয়। মোনজা সম্পর্কে কোনো প্রশ্ন থাকলে লিখতে পারেন তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে

সম্পাদনাঃ ড. জিনিয়া রহমান

প্রিয় ট্রাভেল সম্পর্কে আমাদের লেখা পড়তে ভিজিট করুন আমাদের ফেসবুক পেইজে। যে কোনো তথ্য জানতে মেইল করুন [email protected] এই ঠিকানায়। ভ্রমণ বিষয়ক আপনার যেকোনো লেখা পাঠাতে ক্লিক করুন এই লিংকে-https://www.priyo.com/post