(প্রিয়.কম) বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘আমরা বিভক্তি চাই না, কখনও করিনি। রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে সরকারকে সহযোগিতা করা আমাদের অভিপ্রায়। সরকার ও সংশ্লিষ্টদের বলতে চাই, কাদা ছোঁড়াছুঁড়ি বন্ধ করে সমস্যা একসঙ্গে মোকাবিলা করাই হবে সঠিক সিদ্ধান্ত।’  

একইসঙ্গে তিনি বলেন, ‘রোহিঙ্গা শরণার্থীদের নিয়ে সৃষ্ট সংকট নিরসনের বিএনপি সরকারকে সহযোগিতা করতে চায়।’ 

১৭ সেপ্টেম্বর রোববার দুপুরে রাজধানীর নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল এ সব কথা বলেন।

মিয়ানমার মানবতার ওপর আঘাত করছে বলে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘মিয়ানমার সরকার মানবতার ওপর চরম আঘাত করেছে। প্রতিদিনই শরণার্থীদের সংখ্যা বেড়েই চলছে।’

এ সময় তিনি সকলকে একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘ভয়াবহ এ পরিস্থিতিতে সরকারের উচিত ছিল সব রাজনৈতিক দল ও পেশাজীবীদের নিয়ে সংকট সমাধানে জাতীয় ঐক্য সৃষ্টি করা। কিন্তু তারা তা না করে অন্যায়ভাবে বিএনপির ত্রাণ কাজে বাধা দিয়েছে। এটা প্রমাণ করে, সরকারের পক্ষে ত্রাণ বিতরণ ছিল লোক দেখানো।’

রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফিরিয়ে নিতে সরকারকে কূটনৈতিক তৎপরতা বাড়াতে পরামর্শ দিয়ে বলেন, ‘রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে হবে। কূটনৈতিক তৎপরতার আরও বাড়াতে হবে।’

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস রোহিঙ্গাদের জন্য দেশ-বিদেশ থেকে আসা ত্রাণ সুষ্ঠুভাবে বিতরণের জন্য সেনাবাহিনী মোতায়েন করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স প্রমুখ।

প্রিয় সংবাদ/শান্ত