(প্রিয়.কম) রাজধানীর সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছাত্রী আফিয়া জাহিন চৈতীর মৃত্যুর ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় হাসপাতালটির পরিচালককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ১৮ মে বৃহস্পতিবার রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃত ডা. এম এ কাশেম মামলার ৯ নম্বর আসামি বলে জানিয়েছেন ধানমন্ডি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মশিউল আলম।

এর আগে, এ ঘটনায় চিকিৎসকসহ সংশ্লিষ্ট ৯ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন ঢাবি ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আমজাদ আলী।

প্রসঙ্গত, ৩ দিনের জ্বর নিয়ে বুধবার সকালে ধানমন্ডির সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভর্তি হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী আফিয়া জাহিন চৈতী। প্রথমে পরীক্ষা নিরীক্ষার পর তার ব্লাড ক্যান্সার হয়েছে বলে জানান কর্তব্যরত চিকিৎসক।

পরে তার অবস্থার অবনতি হলে রাত ৪ টার দিকে চৈতীকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। সেখানকার ডাক্তার জানান তার ক্যান্সার নয় ডেঙ্গুই হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে আইসিইউতেই মারা যায় জাহিন।

খবর পেয়ে চৈতীর সহপাঠী ও বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ হাসপাতালে আসে। বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা হাসপাতালে ভাংচুর চালায়।পরে ধানমন্ডি থানা পুলিশ গিয়ে শিক্ষার্থীদের বাধা দেয়। এ নিয়ে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনাও ঘটে।

প্রিয় সংবাদ/শিরিন/মিজান