(প্রিয়.কম) সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলার লালাবাজার এলাকা থেকে এক রোহিঙ্গা কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ।

২৪ সেপ্টেম্বর রোববার রাত আটটার দিকে আবদুল আমিন (১৫) নামের ওই কিশোরকে আটক করা হয়।

আটক রোহিঙ্গা কিশোর জানায়, তার বাবা-মা ও দুই ভাই এখন মায়ানমারে রয়েছন। নির্যাতনের ভয়ে সে বাংলাদেশে চলে আসে। তিন দিন আগে কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে তারা তিন বন্ধু পালিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়। তবে দু’জন পুলিশের হাতে ধরা পড়ে। পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে সে (আব্দুল আমিন) সিলেটে চলে আসে। চাকরির সন্ধানে সিলেটে এসেছিল জানিয়ে আবদুল আমিন বলে চাকরি না পেয়ে সে আবার চট্টগ্রামে ফিরে যাওয়ার জন্য দক্ষিণ সুরমার লালাবাজারে ঘোরাঘুরি করছিল।

পুলিশ জানায়, আব্দুল আমিনের ঘোরাঘুরি দেখে স্থানীয়দের সন্দেহ হয়। তারা তাকে আটক করে পুলিশে খবর দেন। পরে দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশ তাকে থানায় নিয়ে আসে।

রোহিঙ্গা কিশোর আবদুল আমিনকে আটকের বিষয় নিশ্চিত করে দক্ষিণ সুরমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খায়রুল ফজল প্রিয়.কম-কে জানান, তার বাড়ি মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যের রেলওয়ারী উপজেলার বুজিডং গ্রামে। তার বাবার নাম আব্দুর রশিদ এবং মায়ের নাম হামিদা বেগম। আব্দুল আমিনকে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

প্রিয় সংবাদ/কামরুল