(প্রিয়.কম) আপনি যদি সময়কে ঠিকমতো কাজে লাগাতে পারেন তাহলে একদিনেই কিন্তু ঘুরে দেখতে পারবেন অনেক কিছু। আর ঢাকার ভেতরে হলে তো কথাই নেই। একটু গুছিয়ে পরিকল্পনা করলেই দিনের মাঝেই হতে পারে মজার ফুল বিনোদন প্যাকেজ ট্যুর। আসুন জেনে নিই শরিফুল হাসানের গল্পটা-
 
একদিনের টুরে ঘুরে আসতে পারেন মিরপুর দিয়াবাড়ীতে অবস্থিত তামান্না ওয়ার্ল্ড ফ্যামিলি পার্ক সুইমিংপুল এন্ড রাইড, বিরুলিয়া জমিদারবাড়ি, মন্দির, সাদুল্লাপুর গোলাপ গ্রাম। সাথে উপভোগ করতে পারবেন তাজা তালের রস আর তুরাগ নদীতে নৌকা ভ্রমন।
 
যেভাবে যাবেন:
তামান্না পার্ক:
মিরপুর ১ নং থেকে বেড়িবাঁধ হয়ে গাবতলিগামি যে কোন বাসে (আলিফ, মোহনা, লেগুনায়) তামান্না পার্কের গেটে নামবেন। ভাড়া ১০-১৫ টাকা। মেইন রোডের পাশেই। এন্ট্রি -৫০ টাকা, সুইমিংপুল -২০০ টাকা ঘন্টাপ্রতি। যদিও ভোরে যাওয়ায় আর বড় গ্রুপ হওয়ায় টাইমের ব্যাপারে ছাড় আছে। আমরা ২ ঘন্টা ছিলাম। কাপড় বদলানোর সুবিধা আছে। পার্কে বেশ কিছু রাইড আছে খুবই সাধারণ মানের। ৪০ টাকা পার রাইড। মসজিদ ও খাবার হোটেল আছে পার্কের ভিতরেই।
 
বিরুলিয়া জমিদারবাড়ি:
তামান্না পার্কের গেইট থেকে মেইনরোডে এসে বিরুলিয়াগামী যে কোন লেগুনা বা বাসে উঠে যাবেন। ভাড়া ১৫-২০ টাকা। নামতে হবে বিরুলিয়া ব্রিজ পার হয়েই হাতের বামে নদীর মাঝ দিয়ে জমিদারবাড়ির দিকে যে রাস্তা চলে গেছে সেখানে। ব্রিজের শেষ মাথা থেকে ৫ মিনিট হাঁটা দুরত্বে জমিদারবাড়ি, মন্দির, নদীর ঘাট।
 
গোলাপ গ্রাম:
জমিদারবাড়ি ঘুরে বিরুলিয়া ব্রীজের মাথায় মেইনরোডে এসে আক্রাইন বাজার (সাভার) অভিমুখি যে কোন মিনিবাস, লেগুনা বা অটোতে উঠবেন। ভাড়া ১০ টাকা। আক্রাইন বাজার নামতে হবে। দুপুরে খাবার এখানেই খেতে পারেন। মোটামুটি ভালো খাবার হোটেল আছে (গরু ৮০, মুরগি ৬০ টাকা)।
 
আক্রাইন বাজার অটো স্ট্যান্ড থেকে সাদুল্লাপুর বাজারগামী ব্যাটারিচালিত অটো পাবেন। ভাড়া ১৩ টাকা। পথেই পড়বে গোলাপ গ্রাম। গোলাপের রাজ্যে যেতে হলে রাস্তা থেকে একটু ভেতরে ঢুকে যেতে হবে তখনি পাবেন চারপাশে গোলাপ আর গোলাপ। ৩০ পিসের গোলাপ তোড়া কিনতে পারেন এখানে, প্রতি পিস গোলাপ মাত্র ৩ টাকা! অনেক তালগাছ চোখে পড়বে। তাজা তালের রস নিয়ে গাছিরা যাবার সময় তাদের থেকে কিনে খেতে পারেন। এক হাড়ি/৩ লিটার ১৫০ টাকা।
 
গোলাপ গ্রাম ঘুরে কাছেই সাদুল্লাপুর বাজার থেকে মিরপুর দিয়াবাড়ী গামী ট্রলারে উঠে যাবেন। ভাড়া ২৫-৩০ টাকা। অথবা বড় গ্রুপ হলে রিজার্ভ ট্রলার ভাড়া করতে পারেন, শুয়ে বসে যেতে পারবেন। ভাড়া ৮০০-১০০০ টাকা। এখন বর্ষায় অনেক পানি আর কচুরিপানা থাকায় ডিংগি নৌকা চলে না তাই ট্রলারই ভরসা। মিরপুর নৌকা ঘাটে নেমে মিরপুর-১ বা উত্তরাগামী বাস পাবেন। মিরপুর -১ থেকে ঢাকার যেকোন দিকে যাবার বাস পাবেন।
 
তামান্না পার্কে দুইটি রাইড আর সুইমিংপুল সহ আমরা ২২ জনের গ্রুপে সব স্পট ঘুরে এসেছি, জনপ্রতি ৬৫০ টাকা খরচ পড়েছে। কেউ তামান্না পার্কে না গেলে ৩৫০ টাকাতেই সব ঘুরা হয়ে যাবে।
 
মনে রাখবেন:
সন্ধ্যা ৬ টার পরে সাদাল্লুপার গোলাপ গ্রাম থেকে ট্রলার নাও পেতে পারেন। তখন আবার সড়কপথে আক্রাইনবাজার এসে মিরপুরগামী রাইডারে উঠতে হবে।
 
সম্পাদনাঃ ড. জিনিয়া রহমান।
আপনাদের মতামত জানাতে ই-মেইল করতে পারেন [email protected] এই ঠিকানায়।