(প্রিয়.কম) ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া আসনের সংসদ সদস্য মো. মোসলেম উদ্দিনের বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এই অভিযোগ করেছেন সাংসদের মেয়ে সেলিমা বেগম।

তিনি অভিযোগ করেন, তাকে নিয়ে কিছু বলতে না পারায় তার বাবার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।

সেলিমা বেগম সমালোচনাকারীদের প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘সিডনিতে কিছু লোক সেলিমার বাবার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করছেন! কেন সেলিমার বিরুদ্ধে কিছু বলতে পারছেন না বলে? সেলিমার কাজ এবং গ্রহণযোগ্যতা আপনার হিংসার কারণ?’

তিনি বলেন, ‘আমার বাবা পাঁচবারের নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য, ময়মনসিংহের প্রতিষ্ঠিত আইনজীবীদের মধ্যে একজন। উনি ১৯৭০-এর নির্বাচিত প্রতিনিধি, গণপরিষদের সদস্য, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের একজন সংগঠক, বাংলাদেশের প্রথম সংবিধান প্রণেতাদের একজন, বাংলাদেশের সংবিধানে প্রথম স্বাক্ষরকারীদের একজন, ১৯৭২ সালের প্রথম সংসদ অধিবেশনে বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে সংসদ সদস্য হিসেবে যোগদানকারীদের একজন, বঙ্গবন্ধুর প্রিয়ভাজন হিসেবে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে ময়মনসিংহ আওয়ামী লীগ এবং ফুলবাড়ীয়া আওয়মী লীগের সঙ্গে থেকে দেশের জন্যে, এলাকার জন্যে কাজ করেছেন।’

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের কালো রাতের পরেও তার বাবা থেমে থাকেননি, দলের জন্যে, দেশের জন্যে, এলাকার জন্যে কাজ করে গেছেন জানিয়ে সেলিমা বেগম বলেন, ‘এখনও কাজ করছেন বঙ্গবন্ধুকন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বকে সামনে রেখে। বর্তমানে তিনি ফুলবাড়ীয়ার সংসদ সদস্য, ফুলবাড়ীয়া আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং ময়মনসিংহে আইনজীবী হিসেবে কাজ করছেন। এছাড়াও বিভিন্ন সংসদীয় কমিটির সদস্য হিসেবে দেশের জন্য কাজ করছেন ‘

সেলিমা দাবি করেন, মুক্তিযাদ্ধের সময় ১০ বছরের বালক নিজেকে মুক্তিযাদ্ধা হিসেবে পরিচয় দিয়ে জালালউদ্দীন নামের একলোক পয়সার বিনিময়ে অপরাজনীতির অংশ হিসেবে তার বাবার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করেন। ওই মামলা খারিজও হয়ে গেছে জানিয়ে সেলিমা বলেন, ‘এরপর আমার বাবা জালাল উদ্দীনের নামে মানহানির মামলা করেন’।

তিনি বলেন, ‘যারা জালাল উদ্দীনের করা মিথ্যা মামলার লিংক নিয়ে সিডনিতে অপপ্রচার করছেন, তারা আরেকটু কষ্ট করে বাংলাদেশের জাতীয় জাদুঘরে যান, বাংলাদেশের প্রথম সংবিধানে আমার বাবার নিজের হাতে স্বাক্ষর করা নাম দেখতে পাবেন।’

‘২০১৭ সালে অনেকগুলো টেলিভিশন চ্যানেল ‘জালাল উদ্দীনের করা আমার বাবার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলার’ ওপর প্রতিবেদন করেছে, ওইসব প্রতিবেদনের লিংগুলো সংগ্রহ করুন আমার বাবার বিরুদ্ধে কিছু বলার আগে,’ যোগ করেন সেলিমা।

‘আমার বাবার জন্য আমি গর্বিত’, বলেন তিনি।

‘আর সিডনিতে আমি আমার নাম দিয়েই কাজ করছি, আমার বাবার নাম দিয়ে নয়। সুতরাং আমার নামে কিছু বলার থাকলে সরাসরি আমার বিরুদ্ধে বললে ভালো হয়। অযথা মুরুব্বিদের নাম নিয়ে টানাটানি কেন?’ প্রশ্ন রাখেন সেলিমা।

প্রিয় সংবাদ/রিমন