(প্রিয়.কম) নভেম্বর মাসে বৃষ্টিকে হঠাৎ বৃষ্টি বা নভেম্বর রেইন উপমা দেওয়ার চল বহু পুরনো। তবে বৃহস্পতিবার সকালে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে শঙ্কাটাই ছিল বেশি। তবে কি নভেম্বর মাসের সুখকর বৃষ্টি ঢাকা লিট ফেস্টের প্রথম দিনকে বিষণ্ণ করে তুলবে? সব ছাপিয়ে বৃষ্টির সুরের সঙ্গে নেদা শাকিবার আধ্যাত্মিক সুর দিয়েই শুরু হয় ঢাকা লিট ফেস্টের প্রথম দিন। বৃষ্টি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ছাতা নিয়ে প্রবেশ বেড়েছে অতিথি আর দর্শকদের।

বেলা ১১টায় আব্দুল করিম সাহিত্যবিশারদ মঞ্চে শুরু হয় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। একে একে মঞ্চে উঠে আসেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান, ঢাকা লিট ফেস্টের পরিচালকেরা- কাজী আনিস আহমেদ, সাদাফ সায, আহসান আকবর এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের নাতি রাদোয়ান মুজিব সিদ্দিকী। তাদের সঙ্গে মঞ্চে উঠে আসেন এই আয়োজনের প্রধান অতিথি সিরিয়ান বংশোদ্ভূত কবি আদোনিস।

লিট ফেস্টের পরিচালক কাজী আনিস বলেন, ‘এ উৎসব আয়োজন আমরা কেন করি, তা অনেকে জানতে চান। এর উত্তর হলো- আমরা সাহিত্য ও শিল্পকে পৃষ্ঠপোষকতা করতে চাই। ভাষাভাষীর দিক থেকে বাংলা পৃথিবীর সপ্তম বৃহত্তম ভাষা। আমাদের নিজস্ব সংস্কৃতি রয়েছে। এই সংস্কৃতি আমাদের এতই ঘিরে রাখে যে আমরা অন্য দেশের সংস্কৃতির দিকে তাকানোর সুযোগ পাই না

লিট ফেস্ট ২০১৭। ছবি: সংগৃহীত।

কাজী আনিস আরও বলেন, ‘কিন্তু বঙ্গবন্ধু স্বাধীন জাতি হিসেবে আমাদের ভাষা-সাহিত্য-সংস্কৃতিকে এগিয়ে নেওয়ার কথা বলেছিলেন। আমরাও চাই, আমাদের ভাষা-সাহিত্যকে এগিয়ে নিতে, বিশ্বের সামনে আমাদের ভাষা-সাহিত্যকে তুলে ধরতে। লিট ফেস্টেও আমাদের মূল মনোযোগের জায়গাতে থাকে আমাদের ভাষা, সাহিত্য ও সংস্কৃতি। সবার বক্তব্য শেষে ফরাসি, আরবী ও স্প্যানিশ ভাষায় লিট ফেস্টের উদ্বোধন ঘোষণা করেন কবি আদোনিস।

এবারের লিট ফেস্টে তিন ক্যাটাগরিতে চারজন পেয়েছেন জেমকন সাহিত্য পুরস্কার। বাংলাদেশের সাহিত্যিকদের সবচেয়ে বড় সম্মাননা জেমকন সাহিত্য পুরস্কার। প্রতিবছরের ন্যায় এবারও ঢাকা লিট ফেস্টে ঘোষণা করা হলো ১২ তম জেমকন সাহিত্য পুরস্কার। এবছর একজন প্রবীণ কথাসাহিত্যিক এবং তিনজন তরুণ লেখককে এ সম্মাননা প্রদান করে জেমকন গ্রুপ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলানয়তনে এ পুরস্কার ঘোষণা করেন জেমকন গ্রুপের পরিচালক কাজী নাবিল আহমেদ, এমপি।

লিট ফেস্ট ২০১৭। ছবি: সংগৃহীত।

প্রবীণ কথাসাহিত্যিক মোহাম্মদ রফিককে তাঁর দুটি গাথাকাব্য কাব্যগ্রন্থের জন্য এবছর পুরস্কৃত করা হচ্ছে। পুরস্কার হিসেবে পাচ্ছেন আট লাখ টাকার চেক, উত্তরীয়, বই, ক্রেস্ট এবং সম্মাননাপত্র। তরুণ কথাসাহিত্যিক আশরাফ জুয়েল এবং মামুন অর রশিদ যৌথভাবে পাচ্ছেন জেমকন তরুণ সাহিত্য পুরস্কার-২০১৭। তাদের প্রত্যেকেই পাচ্ছেন ৫০ হাজার টাকার চেক, উত্তরীয়, বই, ক্রেস্ট এবং সম্মাননাপত্র। জেমকন তরুণ কবিতা পুরস্কার পেলেন নুসরাত নুসিন। তাঁর কাব্যগ্রন্থ দীর্ঘ স্বরের অনুপ্রাস এর পান্ডুলিপির জন্য পাচ্ছেন এক লাখ টাকার চেক, উত্তরীয়, বই, ক্রেস্ট এবং সম্মাননাপত্র। পুরস্কার বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন কাজী নাবিল আহমেদ,এমপি।

জেমকন সাহিত্য পুরস্কারের জুরি ছিলেন অধ্যাপক সৈয়দ আকরম হোসেন, কথকাশিল্পী সেলিনা হোসেন, নন্দন তাত্ত্বিক তপোধীর ভট্টাচার্য, কথশিল্পী কিন্নর রায় এবং কথাশিল্পী মইনুল আহসান সাবের। জেমকন তরুণ কথাসাহিত্য পুরস্কারের জুরি ছিলেন কবি জহর সেন মজুমদার, কথাশিল্পী আকতার হোসেন, অধ্যাপক বিশ্বজিৎ ঘোষ, কথাশিল্পী জাকির তালুকদার, কথাশিল্পী বল্লরী ঘোষ। জেমকন তরুণ কবিতা পুরস্কারের জুরি ছিলেন কবি আসাদ মান্নান, কবি খালেদ হোসাইন, কবি কুমার চক্রবর্তী, কবি বিভাস রায় চৌধুরী এবং কবি সেবন্তি ঘোষ। পুরো অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন পুরস্কার পর্ষদের সদস্য সচিব কবি শামিম রেজা।

প্রিয় সাহিত্য/গোরা