গর্ডন গ্রিনিজ। ছবি: শামসুল হক রিপন

শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করতে চান সেই গর্ডন গ্রিনিজ

গর্ডন গ্রিনিজ বলেন, ‘আমি এভাবে সম্মান পাবো, আমাকে এভাবে ডাকা হবে আমি ভাবিনি। সত্যিই ভাবিনি।’

সামিউল ইসলাম শোভন
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৬ মে ২০১৮, ২১:০৩ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ০৬:১৬
প্রকাশিত: ১৬ মে ২০১৮, ২১:০৩ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ০৬:১৬


গর্ডন গ্রিনিজ। ছবি: শামসুল হক রিপন

(প্রিয়.কম) এই লোকটির হাত ধরেই ১৯৯৭ সালে আইসিসি চ্যাম্পিয়নস ট্রফি জিতেছিল বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। সেই গর্ডন গ্রিনিজকে ‘বাজেভাবে’ বিদায় বলেছিলে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ঘটনা ১৯৯৯ সালের। এরপর ১৯ বছরের মাথায় ২০১৮ সালে বাংলাদেশে এলেন রাজার বেশে। যদিও মাঝে একবার এসেছিলেন। তবে এবার এলেন বিবিসির আমন্ত্রণে। বিসিবি তার সম্মানে একটি নৈশভোজেরও আয়োজন করেছে। সেখানেই বক্তৃতা রাখতে গিয়ে ক্যারিবিয়ান সাবেক এই ওপেনার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করতে চাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করলেন।

১৯৯৭ সালে ট্রফি জয়ের পর বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে নাগরিকত্ব দেওয়া হয়েছিল গ্রিনিজকে। সেটা দিয়েছিলেন এই শেখ হাসিনা। কিন্তু ১৯৯৯ সালে নর্দাম্পটনে পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলা চলাকালীন সময়ে যখন তার হাতে বরখাস্তের চিঠি ধরিয়ে দেওয়া হলো, তাতে কষ্ট তো পেয়েছিলেনই। তাই ১৯ বছর পর তার সম্মানে নৈশভোজ আয়োজনে তিনি জানান, এভাবে সম্মান পাবেন তিনি তা কখনোই আশা করেননি।

বিসিবির আয়োজিত নৈশভোজেই গর্ডন গ্রিনিজ বলেন, ‘আমি এভাবে সম্মান পাবো, আমাকে এভাবে ডাকা হবে আমি ভাবিনি। সত্যিই ভাবিনি।’

মজা করে এটাও বললেন, ‘প্রথমবারের পর দ্বিতীয়বার ডাক পেতে এত দেরি হলো। আশা করি তৃতীয়বার এতো সময় লাগবে না এখানে আমন্ত্রণ পেতে।’

পাঁচ দিনের সফরে বাংলাদেশে এসেছেন গ্রিনিজ। আকরাম খান-আমিনুল ইসলাম বুলবুলদের এই কোচের সফর শেষ হচ্ছে শুক্রবার। এই সময়ের মধ্যেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করার আগ্রহ প্রকাশ করলেন তিনি। তার হাতেই বাংলাদেশের পাসপোর্ট পেয়েছিলেন তিনি।

গ্রিনিজ বলেন, ‘আমি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করব। জানি না, সে সুযোগ হবে কি না। কিন্তু যে কদিন আছি অবশ্যই চেষ্টা করব তার সাথে একবার দেখা করে যেতে।’

সবুজ পাসপোর্টটা নবায়ন করতে ২০১৪ সালেও একবার বাংলাদেশে এসেছিলেন গ্রিনিজ। জানালেন, আবারও নবায়ন করছেন সেটা। দ্রুতই নতুন পাসপোর্ট হাতে পাবেন তিনি।

প্রিয় খেলা/রুহুল 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...