(প্রিয়.কম) টানা দু-তিন মাস স্থির থাকার পর বাড়তি সরবারহের কারণে দেশে চীনা বাদামের দাম প্রতি মণে ৮৫০ থেকে ৯৫০ টাকা কমেছে। 

পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, বৃহত্তম পাইকারি বাজার খাতুনগঞ্জে সপ্তাহের ব্যবধানে চীনাবাদামের দাম কমেছে মণে (৩৭ দশমিক ৩২ কেজি) ৯০০ টাকা।

চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জ ও চাক্তাই এলাকার আড়ত ও দোকানগুলোয় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গতকাল বাজারে প্রতি মণ খোসা ছাড়া চীনাবাদাম বিক্রি হয়েছে ২ হাজার ৪২৫ থেকে ২ হাজার ৪৩০ টাকায়। এক সপ্তাহ আগেও বাজারে একই মানের চীনাবাদাম বিক্রি হয়েছিল ৩ হাজার ৩৫৮ থেকে ৩ হাজার ২৮৪ টাকায়। সে হিসাবে এক সপ্তাহের ব্যবধানে পণ্যটির দাম কমেছে মণে ৮৫৮-৯৩৩ টাকা।

এ বিষয়ে খাতুনগঞ্জের ব্যবসায়ীরা জানান, দু-তিন মাস স্থিতিশীল থাকার পর হঠাত্ সরবরাহ চাপ বেড়ে যাওয়ায় নিম্নমুখী প্রবণতায় রয়েছে চীনাবাদামের বাজার। আর এইচ ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী বাদাম ব্যবসায়ী রবিউল হাকিম জানান, টানা দু-তিন মাস পণ্যটির বাজার স্থির ছিল। ওই সময় বাজারে প্রতি কেজি খোসা ছাড়া চীনাবাদাম বিক্রি হয় ৯০ টাকার উপরে। এরপর দিন দশেক ধরে পাইকারি বাজারে পণ্যটির দাম নিম্নমুখী হতে শুরু করে; যা এখনো অব্যাহত রয়েছে। প্রতিদিনই পণ্যটির দাম একটু একটু করে কমতে থাকে। বৃহস্পতিবার পাইকারি বাজারে খোসা ছাড়া চীনাবাদাম প্রতি কেজি ৬৫-৬৬ টাকায় বিক্রি হয়। এর আগে পণ্যটি প্রতি কেজি ৬৯-৭০ টাকায় বিক্রি হয়েছিল। 

চীনাবাদামের সরবরাহ মৌসুম শুরু হতে যাচ্ছে কিছুদিনের মধ্যেই। এ অবস্থায় কৃষক ও উৎপাদনকারীরা বাজারে নিজ নিজ মজুদের চীনাবাদাম ছেড়ে দিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

সূত্র: বণিক বার্তা

প্রিয় বিজনেস/মিজান