(প্রিয়.কম) আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট বা আইএস এর অন্যতম সমর্থক এবং বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত বৃটিশ যুবক ইমরান মিয়া এখন বাংলাদেশে অবস্থান করছেন।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে ইমরানের দেশে অবস্থানের তথ্যটি জানিয়েছেন তারই মা আনোয়ারা বেগম।

দেশের আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে ইমরানের বিষয়ে তদন্ত করার আহ্বান জানিয়ে ডেইলি মেইল জানিয়েছে,পূর্ব লন্ডনের ম্যানোর পার্কে ইমরান ও তার পরিবারের বসবাস। পেশায় ইমরান মিয়া একজন শিক্ষক। বৃটেনে মাধ্যমিক পর্যায়ের বেশ কিছু স্কুলে শিক্ষকতা করেছেন তিনি। তবে এ সময়েই ছদ্মনাম ব্যবহার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও ইন্সটাগ্রামে পোস্ট দিতে থাকে। নিজের নাম ইমরান মিয়া হলেও তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছিলেন ইমরান ইবনে ফরিদ।

সংবাদমাধ্যমটির অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে বলা হয়, ইমরান ফেসবুক ও ইন্সটাগ্রামে সমকামীদের বর্বরভাবে হত্যা সমর্থন করেছেন। যারা ধর্মীয় ভিন্নমত পোষণ করেন তাদের ধারালো ছুরি দিয়ে হামলা করার হুমকি দিয়েছেন। ফেসবুকে আইএসের জঙ্গিদের বিজয় উদযাপন করেছেন ইমরান। ওই গ্রুপের একটি কালো পতাকার ছবি পোস্ট করেছেন। আইএসের হামলায় যারা নিহত হয়েছেন তাদের সম্মানে আয়োজিত নীরবতা পালন নিয়ে মস্করা করেছেন।

এ ছাড়া গত বছর প্যারিসের নিস শহরে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হন কমপক্ষে ৮৬ জন। নিহতদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে তিনি অন্য এক পোস্টে মস্করা করেছেন। নিহতদের প্রতি শোক প্রকাশ করে একটি পত্রিকায় রিপোর্ট প্রকাশ হয়। তার নিচে ইমরান মিয়া লিখেছেন, আমাদের মৃতরা জান্নাতে প্রবেশ করেছে। অন্যদিকে তোমাদের মৃতরা নরকে।

এদিকে ইমরানের দেশে ফেরার বিষয়ে সংশ্লিষ্ট উচ্চপদস্থ কোনো কর্মকর্তার মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

প্রিয় সংবাদ