(প্রিয়.কম) সম্প্রতি ‘নায়ক’ চলচ্চিত্রে উচ্চবিত্ত পরিবারের সন্তানের চরিত্রে অভিনয় করছেন অধরা খান। ১২ জানুয়ারি, শুক্রবার বিএফডিসি-তে চলছে সে সিনেমার শুটিং। এর আগেও বেশ কিছু চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন অধরা। কিন্তু সেগুলোর একটিও মুক্তি পায়নি অবশেষে। অধরা অভিনীত প্রথম ছবি ‘পাগলের মতো ভালোবাসি’ চলচ্চিত্রটিও মুক্তির মুখ দেখেনি। এ ছাড়াও ‘রোহিঙ্গা’ নামের একটি চলচ্চিত্র থেকে ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে ইস্তফা দিয়েছিলেন তিনি। নায়ক চলচ্চিত্রের শুটিং, তার অভিনীত চলচ্চিত্রগুলো মুক্তি না পাওয়া এবং রোহিঙ্গা চলচ্চিত্র থেকে তার পিছু ফেরা প্রসঙ্গে আজ প্রিয়.কমের সঙ্গে কথা হয় এ অভিনেত্রীর।

প্রিয়.কম : প্রিয়.কম থেকে বলছি। আপনি কি ফ্রি? কথা বলা যাবে?

অধরা খান : জি, বলুন।

প্রিয়.কম : কথা বলতে চাচ্ছি ‘নায়ক’ চলচ্চিত্রসহ অন্যান্য বিষয় নিয়ে। ‘নায়ক’ সিনেমার শুটিং কি হচ্ছে?

অধরা খান : হ্যাঁ, আমরা অলরেডি শুটিংয়ে আছি।

প্রিয়.কম : কোথায় আছেন এখন?

অধরা খান : আছি এফডিসি-তে, মেকআপ রুমে।

 

প্রিয়.কম: আচ্ছা, আপনার অভিনীত একের পর এক সিনেমা হচ্ছে, কিন্তু সেগুলো মুক্তি পাচ্ছে না কেন?

অধরা খান : হা হা হা। এটি খুব কঠিন কোয়েশ্চেন। সিনেমা রিলিজ কেন হচ্ছে না, বিষয়টি টোটালি ডিপেন্ডস অন দ্য প্রোডাকশন হাউস।

প্রিয়.কম : ওকে, ফাইন। আপনার অন্য সিনেমার কী খবর?

অধরা খান : আমার প্রথম ছবি রেডি হয়ে আছে।

প্রিয়.কম : ‘মনের শহর’?

অধরা খান : না, ‘মনের শহর’ না। ওটা হচ্ছে ‘পাগলের মতো ভালোবাসি’।

প্রিয়.কম : ও আচ্ছা। এটিও তো মনে হয় রিলিজ হয়নি।

অধরা খান: ‘পাগলের মতো ভালোবাসি’-মূলত এটিই কমপ্লিট হয়েছে। ‘মনের শহর’ এখনো স্টার্টই হয়নি আর ‘মাতাল’ তো রানিং।

অভিনেত্রী অধরা খান। ছবি শামছুল হক রিপন; প্রিয়.কম

প্রিয়.কম : ‘মাতাল’ ও ‘নায়ক’ চলচ্চিত্রে কি একই সঙ্গে কাজ করছেন আপনি?

অধরা খান : হ্যাঁ, ‘মাতাল’ ও ‘নায়কে’ পাশাপাশি কাজ করা হচ্ছে।

প্রিয়.কম : যা হোক, আপনার সম্পর্কে স্টাডি করতে গিয়ে মনে হলো, ‘প্রেম’ বিষয়ে আপনার একটু আপত্তি রয়েছে। ঠিক? আপনার মতে, প্রেম করলে নাকি কাজের ক্ষেত্রে অনেক বাধা আসে। বিষয়টা একটু খোলাসা করুন।

অধরা খান : বাস্তবে আসলে এ রকমই হয়। রিকোয়্যারমেন্টস তখন এ রকমই চলে আসে তো। নিজস্ব এক্সপেরিয়েন্স বলতে তেমন একটা নেই। ফ্রেন্ড সার্কেলে যারা আছে, তাদের উপলব্ধি করেই এমনটা ধারণা আমার।

প্রিয়.কম : ‘রোহিঙ্গা’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করা থেকে আপনি ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে ফিরে এসেছেন। সত্যি কি?

অধরা খান : আসলে 'রোহিঙ্গা' চলচ্চিত্র থেকে ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে আমি চলে আসিনি। যেভাবে কাজটি হওয়ার কথা ছিল, সেভাবে হয়ে ওঠেনি। তাই ইউটার্ন।

প্রিয়.কম : একটু খোলসা করবেন, প্লিজ।

অধরা খান : আসলে ওটা একটু ডিফারেন্ট ক্যাটাগরির কাজ ছিল। তার জন্য আলাদা প্রিপারেশন দরকার। প্রিপারেশনটা ও সময়ের ভেতর করা সম্ভব ছিল না।

প্রিয়.কম : ও আচ্ছা। আপনি তো শুটিংয়ে, সময় নষ্ট করছি না তো?

অধরা খান : একদম না। আপনি কথা বলুন।

প্রিয়.কম : শীতের মধ্যে শুটিং কেমন লাগছে?

অধরা খান : আমি আসলে বুঝতে পারছি না, মেকআপ রুমে তো। হা হা হা।

প্রিয়.কম : ‘নায়ক’ চলচ্চিত্রে আপনার বিপরীতে কে অভিনয় করছেন?

অধরা খান : বাপ্পি ভাইয়া। মৌসুমী আপু আছেন।

প্রিয়.কম : চিত্রনায়িকা মৌসুমী কি?

অধরা খান : হ্যাঁ, মৌসুমী আপু।

প্রিয়.কম : চিত্রনায়ক বাপ্পি চৌধুরী'র সঙ্গে কি এটি আপনার প্রথম কাজ?

অধরা খান : হ্যাঁ, বাপ্পী ভাইয়ার সঙ্গে এটি আমার প্রথম কাজ।

প্রিয়.কম : তো কেমন লাগছে তার সঙ্গে কাজ করে?

অধরা খান : ভালো লাগছে।

প্রিয়.কম : আশা করি এ চলচ্চিত্রটি মুক্তি পাবে।

অধরা খান : হা হা হা। হোপ সো, ২০১৮ অথবা ২০১৯-এ আমার সব সিনেমাই রিলিজ পাবে, ইনশাআল্লাহ। ‘মেইন কোয়েশ্চেন ছিল আমার সিনেমা কেন রিলিজ হচ্ছে না। এ প্রশ্নটি কিন্তু প্রোডাকশন হাউসের জন্য রাখা উচিত। আমার জন্য না।‘

প্রিয়.কম : ওকে। ভালো থাকবেন। ধন্যবাদ আপনাকে।

অধরা খান : আপনাকেও।

 

প্রিয় বিনোদন/সিফাত বিনতে ওয়াহিদ/আজাদ চৌধুরী