(প্রিয়.কম) নব্বই দশকের অনেক জনপ্রিয় নাটকের অভিনেত্রী তিনি। একটা সময় ছিল যখন আবুল হায়াত, বিপাশা হায়াত এবং নাতাশা হায়াত নিয়মিত ব্যস্ত থাকতেন টিভি নাটকের অভিনয় নিয়ে। কিন্ত হায়াত পরিবারের অন্য সবাই অভিনয় মাঠের নিয়মিত খেলোয়াড় হলেও নাতাশা সেই দল থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন খুব নিরবে। তাইতো ছোট পর্দায় বা বড় পর্দায় তার দেখা পাওয়া যায় না দীর্ঘদিন। 

মাঝে অবশ্য অভিনয়ে ফেরার কথা থাকলেও শেষ পর্যন্ত ফ্যাশন ডিজাইনিং নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন হায়াত পরিবারের এই কনিষ্ঠ সদস্য। 

নিজের একটি ডিজাইন স্টুডিও আছে তার। এর মধ্যে নিজের তৈরি পোশাকের প্রদর্শনী করেও বেশ প্রসংশিত হন। এক কন্যা আর এক পুত্র সন্তানের জননী নাতাশার এখন একটাই লক্ষ্য নিজের সন্তানদের সময় দেওয়া। স্বামী আর সংসারকে সময় দেওয়া। এসব করেই এখন সময় কাটে তার। সহসাই অভিনয়ে ফিরছেন না তিনি। যদি মন চায় হুট করে ফিরতেও পারেন।

 

বাবার কোলে ছোট্ট নাতাশা। ছবি: সংগৃহীত। 

এদিকে গত কোরবানির ঈদের ছুটিতে পুরো হায়াত পরিবার আনন্দ ভ্রমণে গিয়েছিল মালয়েশিয়াতে। নাতাশা ছাড়াও এ ভ্রমণে ছিলেন মা শিরিন হায়াত, বাবা আবুল হায়াত, বড় বোন বিপাশা হায়াত, বোন জামাই তৌকীর আহমেদ, স্বামী শাহেদ শরীফ খানসহ দুই বোনের বাচ্চারা। আজ এই অভিনেত্রীর জন্মদিন। তাই অনেক তারকাই তাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। 

নাতাশার সেলফিতে পুরো হায়াত পরিবার। ছবি: সংগৃহীত।