ছবি সংগৃহীত

আমি খুব কার্টুন পছন্দ করি: নুরুন্নবী চৌধুরী হাছিব

নুরুন্নবী চৌধুরী হাছিব একাধারে বাংলা উইকিপিডিয়ার প্রশাসক, ওপেন নলেজ ফাউন্ডেশন নেটওয়ার্ক বাংলাদেশের অ্যাম্বাসেডর।

এম. মিজানুর রহমান সোহেল
জেষ্ঠ্য প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১৮ জানুয়ারি ২০১৭, ১১:১৪
আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ২৩:১৬


ছবি সংগৃহীত

বাংলা উইকিপিডিয়ার প্রশাসক নুরুন্নবী চৌধুরী হাছিব। ছবি: সংগৃহীত। 

(প্রিয়.কম) দেশে বসবাস করে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশ বাংলা ভাষার ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে কাজ করছেন নুরুন্নবী চৌধুরী হাছিব। তিনি একাধারে বাংলা উইকিপিডিয়ার প্রশাসক, ওপেন নলেজ ফাউন্ডেশন নেটওয়ার্ক বাংলাদেশের অ্যাম্বাসেডর, উইকিমিডিয়া ফাউন্ডেশনের ইন্ডিভিজ্যুয়াল এঙ্গেজমেন্ট গ্র্যান্টস (আইইজি) কমিটির এবং গ্র্যান্টস অ্যাডভাইজারি কমিটির (জিএসি) সদস্য। যুক্ত আছেন বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন), বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সঙ্গেও। এক যুগেরও বেশি সময় ধরে সাংবাদিকতা করছেন। 

বর্তমানে নিজের প্রতিষ্ঠান ‘ওপেন ডিজিটাল কমিউনিকেশন’ নিয়ে কাজ করছেন। নিজের প্রতিষ্ঠান নিয়ে কাজ করছেন যেখানে তিনি মূলত কন্টেন্ট ও ডিজিটাল নানা কাজ করে থাকেন। পাশাপাশি ইন্টারনেটে সমৃদ্ধ তথ্যভাণ্ডার হিসেবে সবার কাছে সহজ তথ্যপ্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করতে বাংলা উইকিপিডিয়ার সাথে জড়ে আছেন অতপ্রতোভাবে। 

নুরুন্নবী চৌধুরী হাছিব চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার সরখাল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন ১৯৮৬ সালের ১৩ এপ্রিল। বাবা শরীফুল আলম চৌধুরী এবং মা হাছিনা আক্তারের দুই সন্তানের মধ্যে তিনি বড়। ছোট ভাই আছিব চৌধুরী একটি আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানে সফটওয়্যার প্রকৌশলী হিসেবে কর্মরত। সহধর্মিণী নুসরাত জাহান একজন ব্যাংকার। তাদের এক ছেলে নুহান নেহাদ। পড়াশোনা করেছেন বালিথুবা আব্দুল হামিদ উচ্চ বিদ্যালয়, ফরিদগঞ্জ, চাঁদপুর, পুরানবাজার বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, চাঁদপুর, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। 

জীবনের প্রথম আয় হয়েছিল জাতীয় একটি পত্রিকার ফান ম্যাগাজিনে লিখে বিজয়ী হয়ে ১০০ টাকার প্রাইজবন্ড পান। তাঁর শখ আর নেশা ছিল লেখালেখি এবং পরবর্তীতে সেটাকেই পেশা হিসেবে নিয়েছেন।এখন পর্যন্ত তার প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা ৫।

হাছিব তার নিজের সিক্রেট সম্পর্কে বলেন, 'আমি খুব কার্টুন পছন্দ করি এবং এখন নিয়মিত কমিকস পড়ি। পাশাপাশি নিয়মিত কার্টুন দেখি টেলিভিশনে!' নিজের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে বলেন, 'আমি বাংলা নিয়ে কাজ করতে চাই। দীর্ঘদিন ধরেই বাংলায় লেখালেখি এবং তথ্যপ্রযুক্তি নিয়ে কাজ করায় মনে হয়েছে আমাদের বাংলায় কাজ করার অনেক সুযোগ রয়েছে। সেটা আমার প্রতিষ্ঠান থেকে এবং স্বেচ্ছাসেবী ভিত্তিতে যেভাবেই হোক বাংলা নিয়ে কাজ করতে চাই। পাশাপাশি লেখালেখি চলবে।' 

সম্পাদনা: গোরা 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
স্পন্সরড কনটেন্ট