জাকির নায়েক। ছবি সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) সন্ত্রাসবাদে উস্কানির অভিযোগে ভারতে গ্রেফতারি পরোয়ানা থাকা বিতর্কিত ধর্মপ্রচারক জাকির নায়েককে সৌদি আরব নাগরিকত্ব দিয়েছে। শুক্রবার মিডল ইস্ট মনিটর এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। আরব সূত্রের বরাত দিয়ে লন্ডনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম পর্যবেক্ষণকারী এই সংস্থা বলছে, জাকির নায়েককে ইন্টারপোল যাতে গ্রেফতার করতে না পারে সেজন্য সৌদি বাদশা সালমান বিন আবদুল আজিজ আল-সৌদ তার নাগরিকত্ব অনুমোদন করেন।

গত বছর ঢাকার গুলশানে জুলাইয়ে জঙ্গি হামলার পর অভিযোগ ওঠে, জঙ্গিদের মধ্যে কয়েকজন জাকির নায়েকের বক্তব্য শুনতেন নিয়মিত এবং সেখান থেকেই জঙ্গিবাদের প্রতি তার অনুরক্ত হয়েছেন। এরপরই তার বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ ওঠে। পরবর্তীতে তার বিরুদ্ধে মামলা করা হলে সৌদিতে থাকা জাকির নায়েক আর দেশে ফেরেননি।

সন্ত্রাসবাদে সংশ্লিষ্টতা ও মুদ্রা পাচারের মামলায় গত মাসে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে দ্বিতীয়বারের মতো গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছিল ভারতের একটি আদালত। ওই সময় মালয়েশিয়া সফরে ছিলেন তিনি। জাকির নায়েক তখন ভারত না ফেরার এবং মালয়েশিয়ায় থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। পাঁচ বছর আগে তাকে মালয়েশিয়ায় স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি দিয়েছিল সে দেশের সরকার।

চিকিৎসা শাস্ত্রে লেখাপড়া করা নায়েক বিভিন্ন সময়ে ইসলাম ধর্ম, জঙ্গিবাদ, জিহাদ নিয়ে বক্তব্যের জন্য বিতর্কিত হয়েছেন; নিষিদ্ধ হয়েছেন বিভিন্ন দেশে। ১৯৬৫ সালে মুম্বাইয়ে জন্ম নেওয়া জাকির নায়েক কিষানচাঁদ চেলারাম কলেজের পর টোপিওয়ালা ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজে মেডিসিন বিষয়ে লেখাপড়া করেন। পরে বিওয়াইএল নায়ার চ্যারিটেবল হাসপাতালেও তিনি লেখাপড়া করেন।

সূত্র মিডল ইস্ট মনিটর

প্রিয় সংবাদ/ফারজানা/কামরুল