ছবি সংগৃহীত

এমপি লিটন হত্যা মামলার তদন্ত শেষ পর্যায়ে

গাইবান্ধার পিপি শফিকুল ইসলাম শফিক বলেন, 'কাদের খান এমপি লিটনকে হত্যায় তার সম্পৃক্ততার বিষয়টি স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন।'

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ০৮ মার্চ ২০১৭, ১৬:৩৭ আপডেট: ১৬ আগস্ট ২০১৮, ১৯:৪৮
প্রকাশিত: ০৮ মার্চ ২০১৭, ১৬:৩৭ আপডেট: ১৬ আগস্ট ২০১৮, ১৯:৪৮


ছবি সংগৃহীত

সাবেক এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন। ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সরকারদলীয় এমপি মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন হত্যা মামলার তদন্ত শেষ পর্যায়ে রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সুন্দরগঞ্জ থানার ওসি মো. আতিয়ার রহমান বলেন, 'রিমান্ডে নেওয়া আসামিদের তথ্য অনুযায়ী বহিষ্কৃত আওয়ামী লীগ নেতা চন্দন কুমার সরকারকে গ্রেফতার করা গেলে দ্রুতই আদালতে চার্জশিট দাখিল করা যাবে।'

তদন্ত কর্মকর্তা ও পরিদর্শক (তদন্ত) আবু হায়দার মো. আশরাফুজ্জামান বলেন, ‘এমপি লিটন হত্যা মামলার তদন্ত শেষ পর্যায়ে রয়েছে। জব্দ ও উদ্ধার করা সব আলামতের পরীক্ষা-নিরীক্ষা প্রতিবেদন হাতে এলে চার্জশিট দেওয়া যাবে। এদিকে অস্ত্র মামলায় কাদের খানের একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হলেও এখন পর্যন্ত জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করা হয়নি।'

গাইবান্ধার পিপি শফিকুল ইসলাম শফিক বলেন, 'কাদের খান এমপি লিটনকে হত্যায় তার সম্পৃক্ততার বিষয়টি স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন।'

তবে পুলিশের একটি সূত্র জানায়, হত্যা মিশনের সঙ্গে সম্পৃক্ততা থাকতে পারে এমন আরও কয়েকজনের ব্যাপারে খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে।

গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় সুন্দরগঞ্জ উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়নের শাহবাজ এলাকায় নিজ বাড়িতে দুর্বৃত্তদের গুলিতে আহত হন মঞ্জুরুল ইসলাম লিটন। গুরুতর আহতাবস্থায় লিটনকে রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ঘটনায় লিটনের বোন তাহমিদা বুলবুল বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা চার/পাঁচজনকে আসামি করে সুন্দরগঞ্জ থানায় মামলা করেন। 

প্রিয় সংবাদ/খোরশেদ/আলম