(প্রিয়.কম)  আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট বা আইএস মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে তাদের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য লেনদেনের মাধ্যম হিসেবে পেপ্যাল এবং ভুয়া ইবে ব্যবহার করে থাকে বলে জানিয়েছে দেশটির গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই। সম্প্রতি ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের এক প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে।

গত বছর মার্কিন নাগরিক মোহাম্মদ এলশিনাভিকে মেরিল্যান্ড থেকে গ্রেফতার করা হয়। এফবিআই এর দাবি, এলশিনাভি তার কম্পিউটার প্রিন্টার ই কমার্স জায়ান্ট ইবে তে বিক্রি করে এবং পেপ্যালে অর্থ গ্রহণ করে। 

সম্প্রতি এফবিআই এফিডেভিটের কারণে এই বিষয়টি সামনে আসে। এশিনাভি বিশ্বব্যাপী একটি নেটওয়ার্কের অংশ যেখানে আইএসআইএস তহবিল সংগ্রহ করার জন্য এ ধরনের চ্যানেল ব্যবহার করে থাকে। প্রতিবেদনে বলা হয়, এশিনাভি আইএসআইএস থেকে ৮ হাজার ৭০০ মার্কিন ডলার গ্রহণ করেছে। আর এই অর্থের মধ্যে আইএসআইএস কর্মকর্তা সাইফুল সুজান এর প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান থেকে ৫টি পেপ্যাল লেনদেন ছিল। এই তহবিল আইএসআইএস এর সাথে যোগাযোগের জন্য একটি ল্যাপটপ, একটি সেলফোন এবং একটি ভিপিএন কিনতে ব্যবহার করা হয়েছে। সাইফুল ২০১৫ সালে এক ড্রোন হামলায় নিহত হয়। 

এ বিষয়ে ইবে'র একজন মুখপাত্র ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে বলেছে, “অপরাধমূলক কার্যকলাপের জন্য ইবে'তে জিরো টলারেন্স বা শূন্য সহনশীলতা রয়েছে”। অন্যদিকে পেপ্যালের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, “আমাদের প্ল্যাটফর্মে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড প্রতিরোধ করার জন্য উল্লেখযোগ্য সময় এবং রিসোর্স ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এবং আমরা তদন্তমূলক আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে সমর্থন করার জন্য সক্রিয়ভাবে সন্দেহজনক ক্রিয়াকলাপগুলোর ব্যপারে তাদের প্রতিবেদন করি এবং আইনী অনুরোধগুলিতে দ্রুত সাড়া দিই।”

এলশিনাভিকে আইএসআইএস সমর্থনের জন্য দোষী সাব্যস্ত করেননি কিন্তু প্রসিকিউটররা অভিযোগ করেন যে তিনি যে অর্থ পেয়েছিলেন তা যুক্তরাষ্ট্রের সম্ভাব্য সন্ত্রাসী হামলার জন্য ব্যবহার করা হতো। তবে এলশিনাভি দাবি করেছেন, সন্ত্রাসী হামলার কোন পরিকল্পনায় তিনি ছিলেন না এবং বর্তমানে তিনি বিচারের অপেক্ষায় রয়েছেন।

সূত্র: দ্য ভার্জ

প্রিয় টেক