(প্রিয়.কম) ছেলেটি মানসিক ভারসম্যহীন। ছেলেটির মা কথা বলছেন না। তা অবশ্য কাউকে জানায়নি ছেলেটি। মৃত মায়ের পাশে বসে প্রায় তিনদিন একঘরে কাটালেন মানসিক ভারসাম্যহীন ওই ছেলে।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দুর্গাপুরে বিধাননগর এলাকার রবীন্দ্রপল্লীর ভাড়া বাড়িতে মা সানন্দা নন্দীর (৭২) সঙ্গে থাকতেন ছোট ছেলে ইন্দ্রদীপ নন্দী (৩৫)।

মৃতদেহ থেকে বের হওয়া দুর্গন্ধ প্রকাশ্যে এনেছে আসল ঘটনা।  স্থানীয়দের তৎপরতায় শুক্রবার মাঝরাতে বিষয়টি জানাজানি হয়েছে। 

ইন্দ্রদীপ নন্দীর বড় ভাই ইন্দ্রনীল (৪০) কাছেই অন্য একটি বাড়িতে থাকতেন। কিন্তু বড় ভাইকেও জানায়েনি ইন্দ্রদীপ।

এদিকে ইন্দ্রনীলের দাবি, মায়ের সঙ্গে তার শেষ দেখা হয়েছিল গত রোববার। তখনও পর্যন্ত সানন্দা নন্দী সুস্থ ছিলেন বলেই জানিয়েছেন তিনি।

জিজ্ঞাসাবাদে ইন্দ্রদীপ নন্দী জানায়, ৩-৪ দিন ধরে মা তার সঙ্গে কথা বলছে না।  অর্থাৎ ৩-৪ দিন আগেই মৃত্যু হয়েছে সানন্দাদেবীর। অথচ ঘটনাটি কাউকে জানাননি তিনি।  

৮ সেপ্টে্বের শুক্রবার রাতে সানন্দার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়। 

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস