(প্রিয়.কম) শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ক্যান্ডি টেস্টে মাঠে নামার দু'দিন আগে ঐতিহাসিক অশোক বন ঘুরে দেখেছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। সতীর্থদের সঙ্গে ছিলেন মোহাম্মদ শামি। শ্রীলঙ্কায় অশোক বন ঘুরে দেখার মুহূর্তগুলো ফ্রেমবন্দী করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে পোস্ট করেন ডানহাতি এই ফাস্ট বোলার। ব্যস! তাতেই ক্ষেপেছেন শামির ‘মৌলবাদী’ সমর্থকরা। 

হিন্দু ধর্মাবল্বীদের কাছে অশোক বন মূলত সীতার স্মৃতি বিজড়িত এক স্থান। বিষ্ণু পুরাণ অনুসারে, অপহরণ করে এই অশোক বনেই সীতাকে আটকে রেখেছিলো রাবণ। পরবর্তীতে রাম এসে সেখান থেকে সীতাকে উদ্ধার করেন। হিন্দু ধর্ম এবং সীতার স্মৃতি বিজড়িত স্থানে শামি ঘুরতে যাওয়ার কারণেই ক্ষেপছে মৌলবাদীরা। মুহূর্তের মধ্যে শামির পোস্টে ধর্মের প্রলেপ লাগিয়ে বিতর্ক উসকে দেয় তারা।

নির্ধারিত সময়ের একদিন আগেই শেষ হয়েছে কলম্বো টেস্ট। তাই ক্যান্ডিতে তৃতীয় টেস্টে মাঠে নামার আগে পাঁচদিন বিরতি পায় ভারত। এই সুযোগে গেল বৃহস্পতিবার ঐতিহাসিক অশোক বন ঘুরতে যান শ্রীলঙ্কা সফরে দলের সঙ্গে থাকা ভারতের প্রায় অধিকাংশ ক্রিকেটার। তবে অশোক বন ঘুরতে যাওয়ার স্মৃতিটা সুখকর হয়নি শামির জন্য। প্রথম দুই টেস্টে বল হাতে লঙ্কান ব্যাটসম্যানদের যতটা না বিব্রত করেছেন তার চেয়ে বেশি বিব্রত হচ্ছেন মৌলবাদীদের আক্রমণে।

এমন অভিজ্ঞতা অবশ্য শামির জন্য এটাই প্রথম নয়। কিছুদিন আগে শিশুকন্যার জন্মদিন পালনের ছবি ফেসবুকে পোস্ট করায় ধর্মীর কট্টরপন্থীদের সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। এর আগে গেল বছর ক্রিসমাস ডে'তে ওয়েস্টার্ন পোশাকে স্ত্রীর ছবি পোস্ট করেও বিতর্কের মুখে পড়তে হয় তাকে।

কেবল শামি একা নন। সম্প্রতি মৌলবাদীদের এমন আক্রমণের শিকার হয়েছেন ভারতীয় অলরাউন্ডার ইরফান পাঠান ও দেশটির সাবেক ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ কাইফ। কাইফ তার ছেলের সাথে দাবা খেলার ছবি পোস্ট করায় এবং ইরফান পাঠানের স্ত্রী হিজাব পরে মুখ না ঢাকায় ও হাতে নেইলপলিশ দেওয়ায় তারা ব্যাপক সমালোচিত হয়েছেন।

প্রিয় স্পোর্টস/মিজান