নোবেলজয়ী বাংলাদেশি ড. মুহাম্মদ ইউনূস। ছবি: সংগৃহীত

শ্রম আদালতে ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে আরও ১৫ মামলা 

কর্মীদের নিট মুনাফা ১০৭ কোটি ৯৩ লাখ টাকা হয়। যার ৮০ শতাংশ পাওয়ার কথা কর্মীদের, ১০ শতাংশ সরকার এবং বাকি ১০ শতাংশ কল্যাণ তহবিলে যাওয়ার কথা।

হাসান আদিল
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ২৪ অক্টোবর ২০১৭, ১৮:৩৪ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ২১:৩২
প্রকাশিত: ২৪ অক্টোবর ২০১৭, ১৮:৩৪ আপডেট: ২০ আগস্ট ২০১৮, ২১:৩২


নোবেলজয়ী বাংলাদেশি ড. মুহাম্মদ ইউনূস। ছবি: সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) শ্রমিকদের ‘প্রাপ্য বকেয়া’ পরিশোধ না করার অভিযোগে শ্রম আদালতে ড. মুহাম্মদ ইউনূসের বিরুদ্ধে আরও ১৫টি মামলা করা হয়েছে। এর আগেও একই অভিযোগে ১২টি মামলা করা হয়েছে।

২৪ অক্টোবর মঙ্গলবার ঢাকার তৃতীয় শ্রম আদালতের বিচারক সুলতান মাহমুদের আদালতে এ মামলাগুলো করা হয়।

শান্তিতে নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ ও গ্রামীণ টেলিকমের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ১২ অক্টোবর থেকে ২৪ অক্টোবর মঙ্গলবার পর্যন্ত মোট ১৫টি মামলা হয়েছে। বিচারক প্রাথমিকভাবে এসব মামলা গ্রহণ করে বিবাদীদের আগামী ৩ ও ৫ জানুয়ারির মধ্যে জবাব দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানান আদালতের সেরেস্তা সহকারী মোহাম্মদ জামাল।

তিনি আরও জানান, একই অভিযোগে এর আগেও ১২টি মামলা দায়ের করা হয় ড. ইউনূসের বিরুদ্ধে। এগুলোতে ড. ইউনূস ছাড়াও গ্রামীণ টেলিকমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আশরাফুল হাসানকে বিবাদী করা হয়েছে।

মামলার অভিযোগে জানা যায়, গ্রামীণ টেলিকম ২০০৬ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত প্রায় দুই হাজার ১৫৮ কোটি টাকা লাভ করেছে। শ্রম আইনের বিধান অনুযায়ী নিট মুনাফার ৫ শতাংশ কোম্পানির কর্মীদের দিতে হবে। এই হিসাব অনুযায়ী কর্মীদের নিট মুনাফা ১০৭ কোটি ৯৩ লাখ টাকা হয়। যার ৮০ শতাংশ পাওয়ার কথা কর্মীদের, ১০ শতাংশ সরকার এবং বাকি ১০ শতাংশ কল্যাণ তহবিলে যাওয়ার কথা। কিন্তু গ্রামীণ টেলিকম কর্মীদের এবং সরকারের প্রাপ্য টাকা দেয়নি। এর প্রতিকার চেয়ে মামলা দায়ের করা হয়েছে শ্রম আইনে।

প্রিয় সংবাদ/শান্ত  

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...