বিশ্বের সবচেয়ে বিপজ্জনক ৫টি রানওয়ে

বিশ্বে এমন কিছু এয়ারপোর্ট রয়েছে যেখানে রানওয়ে যথেষ্ট বিপজ্জনক।

ফারজানা মাহাবুবা
সহ-সম্পাদক
১৩ আগস্ট ২০১৭, সময় - ১০:০০

ভুটানে সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং প্যারো এয়ারপোর্ট। ছবি সংগৃহীত

(প্রিয়.কম) যারা দেশ বিদেশে ঘুরে বেড়ান তারা অনেক এয়ারপোর্ট সম্পর্কেই জানেন। আর সবাই ধারনা করেন হয়তো পৃথিবীর সকল এয়ারপোর্ট বেশ সুন্দর আর এসব এয়ারপোর্টের রানওয়ে যথেষ্ট নিরাপদ। কিন্তু বিশ্বে উড়োজাহাজের অবতরণের দিক থেকে বেশকিছু এয়ারপোর্ট রয়েছে যেগুলোর রানওয়ে শুধু বিপজ্জনকই নয়, আতঙ্কজনকও বটে। 

আর এমনই ৫টি বিপজ্জনক রানওয়ে নিচে দেওয়া হল-

প্রিন্সেস জুলিয়ানা ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট

এই এয়ারপোর্ট সেন্টমার্টিন ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট নামেও পরিচিত। এটা সেন্টমার্টিনের ক্যারিবিয়ান আইল্যান্ডের প্রধান এয়ারপোর্ট। এই এয়ারপোর্টের রানওয়ে শেষ হয়েছে একটি বিচে।

এই এয়ারপোর্ট সেন্টমার্টিন ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট নামেও পরিচিত। এটা সেন্টমার্টিনের ক্যারিবিয়ান আইল্যান্ডের প্রধান এয়ারপোর্ট। এই এয়ারপোর্টের রানওয়ে শেষ হয়েছে গিয়ে একটি বিচে।

প্রিন্সেস জুলিয়ানা ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট

ফলে এখানে প্লেন ঠিক ভ্রমণকারীদের মাথার উপর দিয়ে চলে যায়। ফলে বিচে ভ্রমণে আসা মানুষদের জন্য একটি সতর্কবার্তা সাইনবোর্ড রয়েছে সেখানে। কেননা জেট ইঞ্জিনের ফোর্সে সেখানে থাকা মানুষ আহত হতে পারে। ২০১৭ সালের জুলাই মাসে এখানে এক ব্যক্তি প্লেনের খুব কাছাকাছি থাকায় নিহত হয়।

নারসারসুক এয়ারপোর্ট

এই এয়াপোর্ট গ্রিনল্যান্ডের দক্ষিণ দিকে অবস্থিত। এই রানওয়ে এলাকায় সবসময় ঝড় থাকে এবং কম দৃশ্যমান এলাকা।

এই এয়াপোর্ট গ্রিনল্যান্ডের দক্ষিণ দিকে অবস্থিত। এই রানওয়ে এলাকায় সবসময় ঝড় থাকে এবং কম দৃশ্যমান এলাকা। ফলে পাইলটদের অসুবিধায় পড়তে হয়।

নারসারসুক এয়ারপোর্ট

ফলে পাইলটদের অসুবিধায় পড়তে হয়। এছাড়া এর কাছাকাছি এলাকায় আগ্নেয়গিরির ফলে মেঘের মধ্যে মারাত্মক ইঞ্জিন ধ্বংসকারী ছাই এসে পড়ে। 

জুয়ানকো ই. ইয়ারসকুইন এয়ারপোর্ট

নেদারল্যান্ডের সাবা আইল্যান্ডে এই এয়ারপোর্ট। এই এয়ারপোর্টে আছে অবিশ্বাস্য রকমের ছোট রানওয়ে রয়েছে। এটি লম্বায় মাত্র ১৩১২ ফুট লম্বা। ফলে গতির সামান্য এদিক সেদিক হলেই প্লেন সোজা গিয়ে পড়বে সাগরে।

নেদারল্যান্ডের সাবা আইল্যান্ডে এই এয়ারপোর্ট। এই এয়ারপোর্টে আছে অবিশ্বাস্য রকমের ছোট রানওয়ে রয়েছে। এটি লম্বায় মাত্র ১৩১২ ফুট লম্বা।

জুয়ানকো ই. ইয়ারসকুইন এয়ারপোর্ট

এছাড়া ছোট রানওয়ে মানে প্লেন উড্ডয়নের সময় যেকোনো পর্বতের সাথে ধাক্কা লাগতে পারে।

জিব্রাল্টার ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট

এ বিমান বন্দরটির মালিক জিব্রাল্টারের স্থানীয় সরকার। এই এয়ারপোর্টের মাঝ দিয়ে একটি ব্যস্ত সড়ক রয়েছে।

এই এয়ারপোর্টের মাঝ দিয়ে একটি ব্যস্ত সড়ক রয়েছে। এখানে একটি স্টপলাইট রয়েছে যেটি গাড়িকে কখন থামতে হবে সেই নির্দেশ দেয়।

জিব্রাল্টার ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট

এখানে একটি স্টপলাইট রয়েছে যেটি গাড়িকে কখন থামতে হবে সেই নির্দেশ দেয়। 

প্যারো ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট

ভুটানের প্যারো ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট এর চারপাশে ঘিরে রয়েছে অসংখ্য পর্বত। কিছু কিছু পর্বতের উচ্চতা ১৮ হাজার ফুট। এজন্য এখানে প্লেনগুলোকে খুব দ্রুত অবতরণ করতে হয়।

ভুটানের প্যারো ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট এর চারপাশে ঘিরে রয়েছে অসংখ্য পর্বত। কিছু কিছু পর্বতের উচ্চতা ১৮ হাজার ফুট।

প্যারো ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট

অবস্থা এতটাই ভয়াবহ যে এখানে নির্বাচিত কিছু পাইলট অবতরণ করতে পারে এবং পাইলটদের অবতরণের জন্য আলাদা সার্টিফিকেশনের প্রয়োজন হয়। আর এটিকে বিশ্বের সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং এয়ারপোর্ট বলা হয়। 

সূত্র: বিজনেস ইনসাইডার

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


স্পন্সরড কনটেন্ট
জনপ্রিয়
আরো পড়ুন