ছবি সংগৃহীত

প্রিয় গন্তব্য: মৌলভীবাজারের মাধবকুণ্ড জলপ্রপাত

মৌলভীবাজার গেলে কেউ মাধবকুণ্ড জলপ্রপাত না দেখে ফেরে না।

খন্দকার ইশতিয়াক মাহমুদ
লেখক
প্রকাশিত: ০৫ এপ্রিল ২০১৭, ১৭:৩৫ আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ১৬:০০
প্রকাশিত: ০৫ এপ্রিল ২০১৭, ১৭:৩৫ আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ১৬:০০


ছবি সংগৃহীত
ভরা বর্ষায় মাধবকুণ্ড জলপ্রপাত। ছবি: মোহম্মদ নোমান।
 
(প্রিয়.কম): মৌলভীবাজার এলাকায় দেশের সবচেয়ে উঁচু জলপ্রপাতটি অবস্থিত। তার নাম মাধবকুণ্ড জলপ্রপাত। এ জলপ্রপাতের বিষয়ে তেমন কিছু জানা না গেলেও ইতিহাসবিদদের ধারনা প্রায় হাজার বছর আগে হিন্দু ধর্মাবলম্বী সন্ন্যাসী মাধবেশ্বর এখানে আস্তানা করেন। পাহাড়ঘেরা নির্জন প্রাকৃতিক স্থানে তিনি ধ্যানে মগ্ন থাকতেন। মাধবেশ্বরের আস্তানা ঘেঁষে বয়েছে ঝর্ণাধারা। পাথারিয়া পাহাড়ের প্রায় ২‘শ ৫০ ফুট উচু থেকে কল কল শব্দে ঝর্ণাধারা প্রবাহিত হচ্ছে। তিনি তার নিত্য-প্রয়োজনীয় কাজ সম্পন্ন করতেন ঝর্ণার শীতল জল দিয়ে। সেই থেকে প্রাকৃতিক জলধারাটির নাম মাধবকুণ্ড হিসেবে পরিচিতি লাভ করে।
 
মাধবকুণ্ড অতীত থেকেই হিন্দু সম্প্রদায়ের তীর্থ স্থান হিসাবে পরিচিত। মাধবেশ্বরের আশীর্বাদ নিতে হাজার হাজার মানুষ আসেন প্রতি বছরের চৈত্র মাসে। এ সময় মধু-কৃষ্ণা ত্রয়োদশীতে পুণ্যার্জন ও বারুণী স্নান করে পাপ মুক্তির কামনা করেন। মাধবের মন্দির ছাড়াও রয়েছে শিব মন্দির। বিশালাকার শিবলিঙ্গেরও পূজা হয়ে থাকে। চৈত্রমাসের ওই সময়ে বড় ধরনের মেলা বসে।
 
প্রায় ৮৫ মিটার উপর থেকে অনবরত পানি পড়ছে। আছে পানি পড়ার গর্জন। আছে পানি ছিটিয়ে রংধনু। আরও আছে একটি গুহা, মাধবেশ্বর যেটাতে ধ্যান করতেন বলে প্রবাদ আছে। সব মিলিয়ে রহস্যময় সুন্দর একটা গন্তব্য এটা।
 
শীতের সময় পানি কমে যায়, তবে সেটাও কম সুন্দর নয়। ছবি: তাসকিউর রহমান।
 
কোথায়: বাংলাদেশের সিলেট বিভাগের অন্তর্গত মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলার কাঁঠালতলিতে অবস্থিত এই মাধবকুণ্ড জলপ্রপাতটি। দেশের উচ্চতম জলপ্রপাত বলে খ্যাতি আছে এর।
 
কীভাবে যাবেন : প্রথমেই আপনাকে আসতে হবে সিলেট, মৌলভীবাজার কিংবা কুলাউড়া। বাসে করে আসতে পারেন এখানে। ঢাকা হতে সরাসরি বাস যোগাযোগ রয়েছে এসব স্থানে অথবা ট্রেনে করে যেতে পারেন সিলেট বা কুলাউড়া। সবচাইতে সহজ পথটি হল ট্রেনে করে কুলাউড়া আসা। ট্রেনে কুলাউড়া ষ্টেশনে নেমে সিএনজি ভাড়া করে সরাসরি মাধবকুণ্ড পৌছাতে পারেন। এতে আপনার খরচ ও পরিশ্রম, দুটোই কম হবে। কুলাউড়ায় নেমে বাসে করেও যেতে পারেন। সে ক্ষেত্রে আপনাকে কাঁঠালতলী বাজারে নামতে হবে। সেখান থেকে অটোতে মাধবকুণ্ডের দূরত্ব হবে ৮ কিলোমিটার। এখানে পৌঁছে টিকেট কেটে মাধবকুণ্ড এলাকায় প্রবেশ করে সোজা মাধবকুণ্ড জলপ্রপাতে যাওয়া যাবে।
 
সম্পাদনা: ড. জিনিয়া রহমান।
আপনাদের মতামত জানাতে ই-মেইল করতে পারেন [email protected] এই ঠিকানায়।