ভক্তের সাথে মুশফিকুর রহিম। ছবি: ফেসবুক

(প্রিয়.কম) অন্যান্য ক্রিকেটারদের মতো ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগ (ডিপিএল) নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন জাতীয় দলের টেস্ট অধিনায়ক মুশফিকুর রহিমের। প্রিমিয়ার লিগে নেতৃত্ব দিচ্ছেন লিজেন্ডস অব রূপঞ্জকে। এই ব্যস্ততার মাঝেও ভক্তকে সময় দিলেন জাতীয় দলের এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান।

মুশফিকের এই ভক্ত পেশায় একজন নিরাপত্তাকর্মী। মুশফিকের পাশের বাসায়ই গেল চার-পাঁচ বছর ধরে কাজ করছেন তিনি। মুশফিকের চাচার মাধ্যমে নিরাপত্তাকর্মী জানতে পারেন খুব কাছেই থাকেন তার প্রিয় ক্রিকেটার। জানা মাত্রই বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়কের সাথে দেখা করার আবদার করে বসেন তিনি।

ভক্তের আবদারে সাড়া দিয়েছেন মুশফিকও। সময় করে ডেকে পাঠিয়েছেন নিজের বাসায়। দেখা করে কথা বলেছেন ভক্তের সাথে। শুধু তাই নয়, ভক্তকে দিয়েছেন আতিথেয়তা। ভক্তের সাথে দেখা করার মুহূর্তটি ফ্রেমবন্দীও করে রেখেছেন মুশফিক। পরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে নিজের ফেরিফাইড পেজ থেকে ছবিটি পোস্ট করেন তিনি।

 

মুশফিকের ফেসবুক পোস্টের স্ক্রিনশট। ছবি: ফেসবুক

ছবির ক্যাপশনে মুশফিক যা লিখেছেন তা হুবহু তুলে ধরা হলো-

'গেল রাতে এই লোকটি আমার বাসায় এসে জানান, তিনি একটি বাড়িতে গেল চার-পাঁচ বছর ধরে নিরাপত্তাকর্মী হিসেবে কাজ করছেন। আমার চাচার মাধ্যমে তিনি জানতে পারেন, আমি এখানেই থাকি এবং তার কর্মস্থল থেকে খুবই কাছে। জানামাত্র আমার সাথে একবার দেখা করার অনুরোধ করেন তিনি। আমি যখন তাকে কিছু খাওয়ার জন্য বললাম, দেখলাম তার হাত কাঁপছিলো এবং যখন আমি তার সাথে কথা বলছিলাম, সে ঠিকভাবে কথাও বলতে পারছিলো না। এরপর আমার চাচা তাকে বললেন আমার সাথে একটি ছবি তোলার জন্য। তিনি বললেন, 'তার কোনো দরকার নেই স্যার, আমার জীবন এখন পরিপূর্ণ।' তিনি আরও জানালেন আমাকে সরাসরি দেখার সুযোগ পাওয়ায় তিনি এখন শান্তিতে মরতেও পারবেন। এরপর আমি তার সাথে একটি ছবি তুলে নিলাম। পরবর্তীতে এই ছবিটি আমি তাকেও পৌঁছে দিবো। তার মতো এমন লক্ষ লক্ষ মানুষ আছেন যারা ক্রিকেটারদের ভালোবাসেন এবং তাদের সকলের আশীর্বাদেই আমরা পারফর্ম করতে পারি। এই সম্মান ও দেশকে প্রতিনিধিত্ব করার এমন সুযোগ পাওয়ায় মহান আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করছি। যারা অল্প কিছু উপার্জন করেন কিন্তু কোনো খেলাই মিস করেন না বা আমরা ভালো করি অথবা খারাপ খেলি আমাদের সমর্থন করতে ভোলেন না তাদেরকে শ্রদ্ধা জানাচ্ছি। তাদের এমন সমর্থন ও ভালোবাসা আমার কাছে অনেক বড় কিছু। এই সকল ভক্ত ও সমর্থকই আমাদের মূল অনুপ্রেরণা। ইনশাল্লাহ ভবিষ্যতে আরও ভালো পারফর্ম করার চেষ্টা করবো যাতে তাদের মুখে সমসময় এমন হাসি থাকে।'

 

প্রিয় স্পোর্টস/ মুশাহিদ মিশু/ শান্ত মাহমুদ