(প্রিয়.কম) মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গারা সেনাবাহিনীদের হাত থেকে প্রাণ বাঁচাতে সন্তান ভারে করে বৃদ্ধ পিতা-মাতাকে বহন করে কিংবা ছেলের কাঁধে চড়ে বাবা দুর্গম পথ পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশের কক্সবাজারের টেকনাফের আশেপাশের এলাকায় আশ্রয় নিচ্ছে।     

তবে এবার জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচআর প্রকাশিত একটি ভিডিওতে দেখা যায়, মাত্র কয়েক দিনের দু'টি রোহিঙ্গা যমজ শিশু একটি ঝুড়িতে পাশাপাশি শুয়ে আছে। পাশে একজন তাদের ওপর থেকে কম্বল সরিয়ে মুখমণ্ডল দেখার ব্যবস্থা করে দিচ্ছে।

রোহিঙ্গাদের সঙ্গে আসা এই দুই শিশুর ভিডিও ইন্টারনেটে প্রকাশ করে রোহিঙ্গাদের দুঃসহ মানবেতর জীবনের জন্য সহানুভূতি প্রত্যাশা করা হয়েছে। অপর একটি দৃশ্যে দুই যমজ শিশুকে দাড়িপাল্লা চড়িয়ে ওজন মাপতে দেখা যায়। পরক্ষণেই চিকিৎসক দুই শিশুর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন।

ভিডিও দেখে বোঝা যাচ্ছে, মিয়ানমার থেকে নবজাতক দুই যমজ শিশুকে ঝুড়িতে বহন করে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশ আনা হয়েছে।

এদিকে, জাতিসংঘের সর্বশেষ তথ্য মতে, মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সহিংসতায় গত ২৫ আগস্ট থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় ৩ লাখ ৭০ হাজার রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে ঠাঁই নিয়েছে।

উল্লেখ্য, মিয়ানমারের রাখাইনে গত ২৪ অগাস্ট রাতে একযোগে ৩০ টির মতো পুলিশ ফাঁড়ি এবং একটি সেনা ক্যাম্পে হামলার জের ধরে সহিসংতার শুরু। এরপর থেকে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর হামলায় প্রায় তিন হাজারেরও বেশি রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে। পুড়িয়ে দেয়া হচ্ছে রোহিঙ্গাদের ঘরবাড়ি। কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করা হচ্ছে। নারীদের ধর্ষণ করা হচ্ছে।

ভিডিও

প্রিয় সংবাদ/শিরিন