(প্রিয়.কম) সেলফি কেন্দ্রিক স্মার্টফোনের তকমা সরিয়ে দিয়ে ‘অপো এ৭১’ নামের পূর্ণাঙ্গ একটি স্মার্টফোন বাজারে এনেছে বিশ্বের অন্যতম বড় মোবাইল ফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান অপো। ফ্রন্ট ক্যামেরা সমর্থিত কিছুটা সফটওয়্যার এতে যুক্ত করা হলেও অপো নতুন এ স্মার্টফোনটিকে যতোটা সম্ভব এন্ট্রি লেভেলে রাখতে চেয়েছে। স্মার্টফোনটির দাম রাখা হয়েছে ১৬,৯৯০ টাকা। অর্থাৎ, এটি অতোটাও সস্তা নয়। তবে এই দামে গ্রাহকরা বাজারের অন্যান্য হ্যান্ডসেটের তুলনায় সেরা সব ফিচারই পাবেন। বর্তমানে বাংলাদেশে অপোর সকল আউটলেটেই ফোনটি পাওয়া যাচ্ছে।  

অপো এ৭১ হ্যান্ডস-অন

অপো এ৭১ স্মার্টফোনে আছে স্লিম মেটালিক ইউনিবডি। এর আগে অপোর বেশিরভাগ স্মার্টফোনেই মেটালিক ব্যাক দেখেছি আমরা। স্মার্টফোনের পিছনের সূক্ষ্ম বাঁক এবং ফিলেটেড কোণার কারণে এটি সহজে ধরা যায়। স্মার্টফোনের পিছনের অংশ মসৃণ এবং আঙুলের কোন ছাপ পড়ে না।

ডিজাইন 

ডিজাইন

স্মার্টফোনটির ডিজাইনে আছে নতুনত্ব। এতে ন্যানো সিলভার প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। হ্যান্ডসেটটির নিচের দিকে মাইক্রোইউএসবি পোর্টসহ স্পিকার গ্রিল বিদ্যমান। ফোনটির বাম পাশে ভলিউম রকার এবং ডান পাশে পাওয়ার বাটন এবং সিম ট্রে আছে। এটি ডুয়াল ন্যানো সিম এবং মাইক্রোএসডি কার্ড সমর্থন করে। স্মার্টফোনটির উপরের দিকে ৩.৫ মিলিমিটার অডিও জ্যাক আছে। তবে এটি নিচের দিকে থাকলে গ্রাহকরা আরও সুবিধামতো ব্যবহার করতে পারতেন। হ্যান্ডসেটের সাউন্ড পরিষ্কার এবং ভলিউমও অনেক বেশি। ফোনে থাকা সাদা রঙের হেডফোনটির শব্দের মান চমৎকার। এতে রিসিভার আছে। রিসিভারের মাধ্যমে ফোনে কল আসলে রিসিভ এবং কথা বলা যাবে।  

ডিসপ্লে

ডিসপ্লে

স্মার্টফোনটিতে ৫.২ ইঞ্চি এইচডি আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে আছে। ডিসপ্লের ইঞ্চি প্রতি পিক্সেল ঘনত্ব ২৮২। ফোনের নিচের দিকে আছে ক্যাপাসিটিভ বাটন। প্যানেলের উপরে আছে ৫ মেগাপিক্সেল এফ/২.৪ ফ্রন্ট ক্যামেরা। ডিসপ্লের কালার ব্যালান্স পরিমিত। এতে আছে ১৬ বিট রঙিন ডিসপ্লে। সাধারণত ১৬ বিট রঙিন ডিসপ্লে থাকার অর্থ হলো এটি হাজারের উপর রঙ সমর্থন করে। এই ডিসপ্লেতে ভিডিও দেখে এবং গেম খেলে গ্রাহকদের অনন্য অভিজ্ঞতা হবে।

স্মার্টফোনের পিছনের দিক  

র‌্যাম এবং সিপিইউ

হ্যান্ডসেটটিতে ৩জিবি র‌্যাম বিদ্যমান। ৩জিবি র‌্যামের কারণে ফোনটি দ্রুত কাজ করতে সক্ষম। এতে আছে ১.৫ গিগাহার্টজ অক্টা-কোর মিডিয়াটেক এমটি৬৭৫০ প্রসেসর। ফোনটির আপগ্রেডেড ৬৪বিট অক্টা-কোর সিপিইউ মাল্টিটাস্কিং এবং অ্যাপের মধ্যে সহজে সুইচ করার সুযোগ দেয়। চিপসেটটি শক্তিও সাশ্রয় করে। অক্টা-কোর সিপিইউ এবং ৩জিবি র‌্যাম স্মার্ট অপারেশনে সহায়তা করে। 

অপারেটিং সিস্টেম, ক্যামেরা

অপো ‘স্পিডি অপারেশন’ নামে এ৭১ স্মার্টফোনটি বাজারজাত করেছে। এতে কালার ওএস ৩.১ ভিত্তিক অ্যান্ড্রয়েড ৭.১.১ ন্যুগাট অপারেটিং সিস্টেম বিদ্যমান। কালার ওএস ৩.১ অপারেটিং সিস্টেমে সেফটি কিবোর্ড আছে। নতুন এ অপারেটিং সিস্টেমের আওতায় স্বাচ্ছন্দ্যে আধুনিক সব অ্যাপ ব্যবহার এবং গেম খেলা যাবে। এতে স্পিল্ট-স্ক্রিন, আই প্রোটেকশন ডিসপ্লে রয়েছে। স্পিল্ট স্ক্রিন ফিচারের মাধ্যমে একই সময়ে ইউটিউব ভিডিও দেখা এবং হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক মেসেঞ্জারসহ অন্যান্য মেসেজিং অ্যাপ ব্যবহার করা যাবে। আর আই প্রোটেকশন ডিসপ্লে ফিচারটি ব্যবহার করে রাতে আলো কমিয়ে চোখের ক্ষতি না করে ডিসপ্লের দিকে তাকিয়ে হ্যান্ডসেট ব্যবহার করা যাবে।   

ক্যামেরা

ফোনটির ফ্রন্ট ক্যামেরায় বিউটিফাই ৪.০সহ অপো ফটোগ্রাফি প্রযুক্তি যুক্ত করা হয়েছে। সেলফি তোলার জন্য এতে বিভিন্ন ধরণের ফিল্টার, সেলফি প্যানোরোমা এবং বোকেহ ইফেক্ট আছে। অন্ধকারে ফোনটির ১.৪ মাইক্রোপিক্সেল সাইজ ক্যামেরাটি নিখুঁত ছবি তোলে। 

এতে আছে ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ক্যামেরা। এ ক্যামেরা দিয়ে খুব দ্রুত ছবি তোলা সম্ভব। এতে মাল্টি ফ্রেম ডি-নয়েজিং প্রযুক্তি আছে যার ফলে ছবি তুললে নয়েজ কম হয়। ফোনটির সেন্সর সাইজ ১/৩.০৬ হওয়ায় রাতেও ভালো ছবি তোলা যায়। পিডিএএফ থাকায় ফোকাসও দ্রুত করা যায়। ফোনটির মনোক্রম ফিল্টারটি গাঢ় ডেপথে ছবি তুলে থাকে। ফোনটির ভিডিও রেজ্যুলেশন এবং রঙও অসাধারণ। একটানা অনেকক্ষণ ভিডিও করা সম্ভব।   

নেটওয়ার্ক

অপো এ৭১ স্মার্টফোনটি টুজি, থ্রিজি এবং ফোরজি সংযোগ সমর্থন করে। ফোনটির ২জি নেটওয়ার্কের পরিসীমা জিএসএম ৮৫০/৯০০/১৮০০/১৯০০ মেগাহার্টজ। হ্যান্ডসেটের সিম ১ এবং সিম ২ দুটোতেই ২জি সমর্থন করে। হ্যান্ডসেটের থ্রিজি নেটওয়ার্কের পরিসীমা এইচএসডিপিএ ৮৫০/৯০০/১৯০০/২১০০ মেগাহার্টজ এবং এটি টিডি-এসসিডিএএমএ সমর্থন করে। ফোনটির ফোরজি নেটওয়ার্কের এলটিই ব্যান্ড ৩৮(২৬০০), ৪০(২৩০০), ৪১(২৫০০)। 

ব্যাটারি

ব্যাটারি: স্মার্টফোনটিতে ৩০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি আছে। এটি লি-আয়ন (লিথিয়াম আয়ন) ব্যাটারি এবং নন-রিমুভ্যাবল। ব্যাটারিতে একবার ফুল চার্জে টানা একদিন ভরপুর কথা, গান শোনা, ছবি তোলা এবং ভিডিও করা যায়। ফোনটির সাথে দেওয়া অ্যাডাপ্টার ব্যবহার করে খুব সহজে চার্জ দেওয়া সম্ভব। 

অপো এ৭১ আনবক্সিং

বাক্স

অপো এ৭১ স্মার্টফোনের ছবিযুক্ত সাদা বাক্সে নতুন এ ফোনটি হাতে পাবেন ক্রেতারা। বাক্সটিতে বেশ কিছু আইটেম আছে। আইটেমগুলো হলো- 

কুইক গাইড বুকলেট 

ইনফরমশেন গাইড 

সিম ট্রে ইজেক্টার

হেডফোন 

মাইক্রোইউএসবি ক্যাবল

তাছাড়া বাক্সের ভিতরে একটি ওয়াল আউটলেট অ্যাডাপ্টার আছে। কিন্তু এটি ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি সমর্থন করে না। তবে এই অ্যাডাপ্টার দিয়ে হ্যান্ডসেটটি দ্রুত চার্জ হয়। মজার ব্যাপার হলো ফোনটির ভিতরে একটি স্বচ্ছ ফোন কেস এবং প্রি-ইনস্টলড স্ক্রিন প্রটেক্টরও দিয়েছে চীনা স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি।

আনবক্সিং

পরিশেষ: 

হ্যান্ডসেটটির ফিচারগুলো নজরকাড়া। ফোনটির ডিসপ্লে ইনপুট ডিটেকশন দ্রুততর। ক্যামেরা অ্যাপটি ছবি তোলায় দ্রুত কাজ করে। সাব-পিএইচপি ৯কে ক্যাটাগরির ফোন হিসেবে অপো এ৭১ কিনে গ্রাহক লাভবান হবেন। এখানে হ্যান্ডসেটটির পুরো ফিচারের বিবরণ দেওয়া হলো-

এক নজরে অপো এ৭১ 

সাধারণ তথ্য: 

ডিভাইস টাইপ: স্মার্টফোন 

বাংলাদেশের বাজারে মুক্তি: ৩০ আগস্ট, ২০১৭

দাম: ১৬,৯৯০ টাকা

ডিজাইন

টাইপ: বার

আকৃতি: ১৪৮* ৭৩.৮* ৭.৬ মিলিমিটার 

ওজন: ১৩৭ গ্রাম 

রঙ: গোল্ড, ব্লাক

সিম

ন্যানো সিম সমর্থিত স্মার্টফোনটি ডুয়াল সিম সমর্থণ করে।

আকার

৫.২ ইঞ্চি 

রেজ্যুলেশন: ৭২০*১২৮০ পিক্সেল 

ডিসপ্লের রং: ১৬ বিট রঙিন 

পিক্সেল ঘনত্ব: ২৮২ পিপিআই

টাচ স্ক্রিন: ক্যাপাসিটিভ টাচস্ক্রিন 

ফিচার: মাল্টি টাচ

ক্যামেরা 

প্রাইমারি: ১৩ মেগাপিক্সেল, এফ/২.২, ফেস ডিটেকশন অটোফোকাস, এলইডি ফ্লাশ

ভিডিও: ১০৮০ পিক্সেল, সেকেন্ড প্রতি ফ্রেম ৩০

ফ্ল্যাশ: এলইডি 

সেকেন্ডারি: ৫ মেগাপিক্সেল, এফ/২.০

সফটওয়্যার

অপারেটিং সিস্টেম: অ্যান্ড্রয়েড ৭.০ ন্যুগাট 

ইউজার ইন্টারফেস: কালার ওএস ৩.০

হার্ডওয়্যার

চিপসেট: মিডিয়াটেক এমটি৬৭৫০

সিপিইউ: অক্টা-কোর ১.৫ গিগাহার্টজ

জিপিইউ: আদ্রেনো ৫০৫ 

র‌্যাম: ৩জিবি 

ইন্টারনাল স্টোরেজ: ১৬জিবি

কার্ড স্লট: মাইক্রোএসডি, ২৫৬ জিবি পর্যন্ত 

সেন্সর: অ্যামবিয়েন্ট লাইট সেন্সর, অ্যাকসেলেরোমিটার, প্রোক্সিমিটি, কমপাস

সংযোগসমূহ: 

ব্লুটুথ: ৪.১, এ২ডিপি

ওয়াই-ফাই: ৮০২.১১ বি/জি/এন  

জিপিএস: আছে

ডাটা: জিপিআরএস, ইডিজিই

প্রিয় টেক/মিজান