(প্রিয়.কম) টিভিতে অনেক সময়েই হয়ত আপনি দেখে থাকবেন বিভিন্ন স্যানিটারি ন্যাপকিন বা প্যাডের বিজ্ঞাপন। সবগুলোতেই এই প্যাডের কার্যকারিতা বোঝানোর জন্য এতে একটা নীল রঙের তরল ঢেলে দেখানো হয়, কত দ্রুত সেই প্যাড একে শুষে নিচ্ছে। এতে আসলে খটকা লাগতেই পারে। নারীর পিরিয়ড বা মাসিকের রক্ত কি নীল? না, তা আসলে সাধারণ রক্তের মতোই লাল। কিন্তু কোনো এক অদ্ভুত কারণে মাসিকের পুরো ব্যাপারটাই আমাদের কাছে নিষিদ্ধ, আর তাই লাল রক্ত দেখাতে লজ্জা বা সংকোচ বোধ করেন বিজ্ঞাপন প্রস্তুতকারকেরা! সব সময়েই তাই স্যানিটারি ন্যাপকিনের বিজ্ঞাপনে দেখতে হয় নীল রক্ত। কিন্তু সেই রীতি ভেঙ্গেছে বডিফর্ম ব্র্যান্ডের এই বিজ্ঞাপন। এখানে রক্তকে দেখানো হয়েছে রক্তের মতোই, টকটকে লাল!

ইউকের এক ফেমিনিন প্রটেকশন ব্র্যান্ড হলো বডিফর্ম। হ্যাঁ, মাসের বিশেষ সময়টায় নারীর জন্য প্রয়োজনীয় পণ্য তারা তৈরি করেছে বটে। কিন্তু এর পাশাপাশি মানুষকে পিরিয়ডের ব্যাপারে সঠিক তথ্যটাও জানাতে চাইছে তারা। মাসিক হওয়াটা নারীর জন্য একদমই নিত্যনৈমিত্তিক একটা ব্যাপার, কিন্তু বেশিরভাগ মানুষ ভয়ংকর নিষিদ্ধ একটা ব্যাপার মনে করে এটাকে! ভাবে এটা নিয়ে কথা বলাই যাবে না! এই ধারণা ভাংতেই একটি পদক্ষেপ তাদের এই বিজ্ঞাপন।

বডিফর্মের ২০১৬ সালের একটি বিজ্ঞাপনে দেখানো হয়, রক্তাক্ত অবস্থাতেও এগিয়ে চলছেন নারী ক্রীড়াবিদেরা। ‘ডোন্ট লেট ইওর পিরিয়ড স্টপ ইউ’ এই ছিল তার স্লোগান। তাদের নতুন বিজ্ঞাপনটি হলো “ব্লাড নরমাল”, যেখানে দেখানো হয় একজন পুরুষ তার পরিচিত কোনো নারীর জন্য কিনছেন স্যানিটারি ন্যাপকিন, আর এর শুরুতেই দেখানো হয় নীল তরলের পরিবর্তে লাল তরল ঢেলে দেওয়া হচ্ছে একটি প্যাডে। এই বিজ্ঞাপনটির স্লোগান হলো, পিরিয়ডস আর নরমাল, শোয়িং দেম শুড বি টু। অর্থাৎ, পিরিয়ডের মতো সাধারণ একটা ব্যাপার নিয়ে আসলে লুকোছাপা করার কিছু নেই।

বডিফর্মের মার্কেটিং ম্যানেজার ট্রেসি ব্যাক্সটার কসমোপলিটানকে জানান, “আমরা পিরিয়ড নিয়ে সমাজের কুসংস্কার এবং নেতিবাচক মনোভাব দূর করতে চাই, যেন বর্তমানে এবং ভবিষ্যতেও যে কেউ পিরিয়ড নিয়ে নিঃসংকোচে আলোচনা করতে পারে।” তাদের আলোচিত ভিডিওটি দেখতে পারেন এখানে-

সুত্র: Popsugar

প্রিয় লাইফ/ রুমানা বৈশাখী