ফাইল ছবি

কওমি সনদের স্বীকৃতির বৈধতা চ্যালেঞ্জের রিট খারিজ

সোমবার বিচারপতি সৈয়দ মো. দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো. আতাউর রহমান খানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। রিটটি যথাযথভাবে উত্থাপিত না হওয়া তা খারিজ করে দেন।

প্রিয় ডেস্ক
ডেস্ক রিপোর্ট
প্রকাশিত: ২২ মে ২০১৭, ২২:১৯ আপডেট: ১৮ আগস্ট ২০১৮, ২৩:৪৮
প্রকাশিত: ২২ মে ২০১৭, ২২:১৯ আপডেট: ১৮ আগস্ট ২০১৮, ২৩:৪৮


ফাইল ছবি

(প্রিয়.কম) কওমি মাদ্রাসার সর্বোচ্চ স্তর দাওরায়ে হাদিসকে মাস্টার্সের সমমান হিসেবে স্বীকৃতি প্রদানের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা রিট খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট।

২২ মে সোমবার বিচারপতি সৈয়দ মো. দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো. আতাউর রহমান খানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। রিটটি যথাযথভাবে উত্থাপিত না হওয়া আদালত তা খারিজ করে দেন।

গত ১৩ এপ্রিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ কওমি মাদ্রাসার সর্বোচ্চ সনদকে সাধারণ শিক্ষার স্নাতকোত্তর ডিগ্রির স্বীকৃতি দিয়ে গেজেট প্রকাশ করে। এতে বলা হয়, বৈশিষ্ট্য বজায় রেখে ও দারুল উলুম দেওবন্দের মূলনীতিগুলোকে ভিত্তি ধরে কওমি মাদ্রাসার দাওরায়ে হাদিসের সনদকে মাস্টার্সের (ইসলামিক স্টাাডিজ ও আরবি) সমমান প্রদান করা হলো।

এই সমমান দেওয়ার লক্ষ্যে কওমি মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান শাহ আহমদ শফীকে প্রধান করে একটি কমিটিও গঠন করে সরকার। এ কমিটির অধীনে ও তত্ত্বাবধানে দাওরায়ে হাদিসের পরীক্ষা হবে বলে সরকারি আদেশে বলা হয়েছে। কমিটি দাওরায়ে হাদিসের সিলেবাস প্রণয়ন, পরীক্ষা পদ্ধতি, পরীক্ষার সময় নির্ধারণ, অভিন্ন প্রশ্নপত্র প্রণয়ন, উত্তরপত্র মূল্যায়ন, ফলাফল ও সনদ তৈরিসহ আনুষঙ্গিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য এক বা একাধিক উপ-কমিটি গঠন করতে পারবে। এ কমিটি নিবন্ধিত মাদ্রাসাগুলোর দাওরায়ে হাদিসের সনদ মাস্টার্সের সমান বিবেচিত হবে।

এ গেজেটের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের অনুসারী ফজলুল হক হাইকোর্টে রিট করেন।

প্রিয় সংবাদ/জন/শান্ত  

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...