জনপ্রিয় গায়িকা টেইলর সুইফট। ছবি: Stylecraze

নিখুঁত ফিগার ধরে রাখতে যা করেন গায়িকা টেইলর সুইফট

পরিশ্রমী এই সেলিব্রিটি শুধু নিজের ক্যারিয়ারের ব্যাপারেই নয়, নিজের সুস্বাস্থ্য রক্ষার ব্যাপারেও দারুণ সতর্ক। আকর্ষণীয় ছিপছিপে শরীর ধরে রাখার জন্য তিনি কিন্তু না খেয়ে থাকেন না কখনোই।

ফাওজিয়া ফারহাত অনীকা
সহ-সম্পাদক
প্রকাশিত: ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১৮:২১ আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ০৪:৪৮
প্রকাশিত: ১৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১৮:২১ আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ০৪:৪৮


জনপ্রিয় গায়িকা টেইলর সুইফট। ছবি: Stylecraze

(প্রিয়.কম) বিখ্যাত সেলিব্রিটিদের পারফেক্ট ফিগার দেখে কখনো কি আপনার মনে প্রশ্ন জেগেছে, কীভাবে তারা এতো চমৎকার ও পারফেক্ট ফিগার নিয়ন্ত্রণ করেন? প্রতিদিনের এতো কাজের ব্যস্ততা, কাজের তালিকা, অনুষ্ঠান, ইভেন্ট, প্রমোশন, ট্যুর এর সাথে কীভাবে মানিয়ে নেন তারা? যদি জিজ্ঞাসা করা হয় টেইলর সুইফটকে দেখেও এমন প্রশ্ন মাথায় এসেছে কিনা তবে নিঃসন্দেহে বেশীরভাগ মানুষের উত্তর হবে ‘হ্যাঁ।‘

মাত্র ২৮ বছর বয়সী তরুণ এই আমেরিকান গায়িকা বর্তমান সময়ের তুমুল জনপ্রিয় একজন সেলিব্রিটি। মাত্র ১৪ বছর বয়সে কান্ট্রি সং দিয়ে ক্যারিয়ার জগতে পা রাখেন টেইলর। চারবার গ্র্যামি এওয়ার্ড বিজয়ী এই গায়িকা তার গাওয়া প্রতিটি চমৎকার গান দিয়ে চমকে দিয়েছেন সকলকে।

পরিশ্রমী এই সেলিব্রিটি শুধু নিজের ক্যারিয়ারের ব্যাপারেই নয়, নিজের সুস্বাস্থ্য রক্ষার ব্যাপারেও দারুণ সতর্ক। আকর্ষণীয় ছিপছিপে শরীর ধরে রাখার জন্য তিনি কিন্তু না খেয়ে থাকেন না কখনোই। এমনকি ব্যক্তিগতভাবে ‘ডায়েট’ শব্দটাই রয়েছে তার ঘোরতর আপত্তি। মজাদার খাবারের প্রতি টেইলরের রয়েছে দারুণ দুর্বলতা। তা সত্ত্বেও স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ করেন নিয়মিত টেইলর।  

টেইলর সুইফটের ডায়েট প্ল্যান ও ডায়েট খাবার সমূহ

পর্যাপ্ত পানি পানের মাধ্যমে শরীরকে হাইড্রেটেড রাখা

টেইল সুইফটের মতে সুস্থ এবং ফিট থাকার জন্য শরীরকে হাইড্রেটেড রাখা জরুরি। যার জন্য প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করতে হবে। প্রতিদিন টেইলর সুইফট প্রায় ১০ বোতল পরিমাণ পানি পান করে থাকেন। যেটা নিয়ে তার বন্ধুরা প্রায়শই ঠাট্টা-তামাশা করেন। কিন্তু তাতে মোটেও কান দেন না তিনি। কারণ, টেইলর সুইফট জানেন শরীরকে হাইড্রেটেড রাখা কতোটা জরুরি। নিয়মিত পানি করা তার কাছে এতোটাই জরুরি ব্যাপার যে, হাত ব্যাগ ও গাড়িতে সবসময় পানির বোতল রাখেন তিনি।

সপ্তাহের কাজের দিনগুলোতে স্বাস্থ্যকর খাদ্য গ্রহণ

কাজের ব্যস্ততম দিনগুলোতে স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণের প্রতি নজর রাখেন টেইলর সুইফট। তার খাদ্য তালিকার মাঝে থাকে সালাদ, স্যান্ডউইচ এবং দই। পাশাপাশি তিনি সবসময় চেষ্টা করেন চিনিযুক্ত কোমল পানীয় গ্রহণ না করার জন্য। মোট কথা, টেইলর চেষ্টা করেন খুব হালকা ধরণের খাবার খাওয়ার জন্য। তবে একেবারেই কোন ক্যালরীযুক্ত খাবার তিনি এড়িয়ে চলেন। সালাদ খান মিষ্টি জাতীয় খাবারের ইচ্ছা কমানোর জন্য। যথাযথ পুষ্টি উপাদান গ্রহণের জন্য মাঝে মাঝেই সালাদে বিভিন্ন ধরণের সবজী এবং মাছ যোগ করেন তিনি।

ছুটির দিনে কিছুটা পছন্দের খাবার খাওয়া

সকলেরই ইচ্ছা করে ছুটির দিনে অবসর সময়ে নিজের প্রিয় খাবারটি খেতে। এমন ইচ্ছা একজন সাধারণ মানুষ তো বটেই একজন সেলিব্রিটির মাঝেও তৈরি হয়। অবশ্যই টেইলর সুইফট ব্যতিক্রম নন। শুনে অবাক হবেন, ছুটির দিনগুলোতে টেইলর সুইফট নির্দ্বিধায় নিজের পছন্দের খাবারগুলো খেয়ে থাকেন। যার মাঝে বেশীরভাগ খাবারই উচ্চ-ক্যালোরিযুক্ত ভারী ধরণের। তার পছন্দের খাবার হলো বার্গার, সাথে ফ্রেঞ্চ ফ্রাইস। মিষ্টি জাতীয় খাবারের মাঝে আইসক্রিম হলো অন্যতম পছন্দের খাবার। এমনকি তার মায়ের হাতে তৈরি কুকিজ এবং টফি চকলেটও তার খুব প্রিয়। প্রায় ছুটির দিনে তিনি কুকিজ খেয়ে ফেলেন একসাথে অনেকগুলো। যদি তার ভালোভাবেই জানা আছে, কত উচ্চ মাত্রার ক্যালোরি তিনি গ্রহণ করছেন একসাথে।

খাবারে স্বাদ বাড়াতে নিজের হাতে রান্না

রান্নাবান্নার প্রতি ভালোই আগ্রহী টেইলর সুইফট। বিশেষ করে বেকিং এর প্রতি বেশ দুর্বলতা রয়েছে তার। শীতকালে তিনি তার পুরো পরিবারের জন্য মিষ্টিকুমড়ার কেক তৈরি করেন। বাইরের চেইন শপগুলোর মাঝে স্টারবাকস তার অন্যতম প্রিয়। প্রায় দিনই তিনি এখান থেকে পাম্পকিন স্পাইস ল্যাটে কিনে থাকেন। বেকিং এর বাইরেও সহজে রান্না করা যায় এখন খাবারগুলো রাঁধতে ভালোবাসেন তিনি। কোন অনুষ্ঠানে পরিবার ও বন্ধুদের জন্য নিজের হাতে মুরগীর মাংস ও পাস্তা বানান তিনি।

তার ফ্রিজে যা থাকে

তরুণ এই গায়িকার ফ্রিজে অন্যান্য সকলের মতোই সাধারণ খাদ্য উপাদান থাকে সবসময়। সকালের নাস্তায় ডিম খেতে ভালোবাসেন তিনি। পানি পানের পাশপাশি ফলের রসও পান করেন নিয়মিত। তবে খুব ইচ্ছা হলে ডায়েট কোক পান করেন। এছাড়াও পারমেজান পনীর খেতে দারুণ পছন্দ করেন তিনি।

স্ন্যাক্স হিসেবে যা খেতে পছন্দ করেন তিনি

কাজের সুবাদে অথবা কোন ট্যুরে বাইরে থাকাকালীন সময়ে স্ন্যাক্স জাতীয় খাবার খাওয়া তার জন্যে জরুরি হয়ে পড়ে। যদিও তিনি চীজ বার্গার খেতে ভীষণ ভালোবাসেন, কিন্তু চেষ্টা করেন স্বাস্থ্যকর স্ন্যাক্স জাতীয় খাবার গ্রহণের জন্য। যে কারণে, তাজা ফলের শেইক তৈরি করে বাইরে বের হন তিনি। এতে থাকে পিনাট বাটার, চকলেট চিপস এবং বেরি।

তিনি কীভাবে তার খাদ্যাভ্যাস রক্ষা করেন এবং কোন সময়ে কতটুকু পরিমাণে খাদ্য গ্রহণ করেন সেটা বোঝার জন্য নীচে তার প্রতিদিনের খাদ্য তালিকা যুক্ত করে দেওয়া হলো।

ডায়েট চার্ট

টেইলর সুইফটের প্রাত্যহিক ডায়েট চার্ট। ছবি কৃতজ্ঞতা: স্টাইল্ক্রেজ 

টেইলর সুইফটের খাদ্যাভ্যাস নিয়ে বিশেষজ্ঞের মতামত

ডায়েট এক্সপার্ট এবং নিউট্রিশনিষ্টদের মরে, টেইলর সুইফট যে ডায়েট চার্টটি নিয়মিত মেনে চলেয় সেটা প্রায় শতভাগ সঠিক ও কার্যকরী। বিশেষ করে, বর্তমান যুগের তরুণ-তরুণীদের জন্য। যারা বাড়তি ওজন কমানোর পাশাপাশি স্বাস্থ্যকর খাবারও গ্রহণ করার প্রতি সচেতন। ডিউক ইউনিভার্সিটির ডায়েট এন্ড ফিটনেস এক্সপার্ট এলিজাবেট্টা পোলিটি জানান, টেইলর সুইফট হালকা ধরণের খাদ্য উপাদান গ্রহণ করেন এবং পর্যাপ্ত পানি পান করেন। পাশপাশি খুব অল্প পরিমাণে ফাস্ট ফুড গ্রহণ করেন। এতে সকল কিছুর ব্যালান্স ঠিক থাকে।

টেইলর সুইফটের ডায়েট চার্ট আপনার জন্যে কাজ করবে কি?

লো-ক্যালোরির এই ডায়েট চার্টটি আপনার ক্ষেত্রে কার্যকরি হতেও পারে আবার নাও হতে পারে। তবে এই ডায়েট চার্টটি মেনে চলতে চাইলে কিছু গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার খেয়াল রাখতে হবে। প্রতিবার খাবার গ্রহণের পূর্বে ২-৩ ঘন্টার বিরতি রাখতে হবে। রাতের খাবার সঠিক সময়ের মাঝে খেয়ে নিতে হবে এবং রাতের খাবার গ্রহণের ২-৩ ঘণ্টা পর ঘুমাতে হবে। প্রতিদিন ৭-৮ ঘন্টা ঘুমাতে হবে।

এই ডায়েট চার্টটি নিজের সুবিধামতো ও সহজলভ্য খাদ্য উপাদান দিয়েও পরিবর্তিত করে নেওয়া যাবে। যেমন: টফু পাওয়া না গেলে বাচ্চা মুরগীর মাংস খাওয়া যেতে পারে। ডিমের পরিবর্তে কলা খাওয়া যাবে স্বাচ্ছন্দ্যে।

তবে মনে রাখতে হবে, আপনার বর্তমান ওজন, উচ্চতা, বয়স এবং মেডিক্যেল হিস্ট্রির উপর নির্ভর করে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী ডায়েট চার্ট মেনে চলা উচিৎ। এতে করে স্বাস্থ্য ভালো থাকে এবং ডায়েট দ্রুত কার্যকরী হয়।

টেইলর সুইফটের শরীরচর্চার নিয়মাবলী

প্রাত্যহিক শরীরচর্চা করা

টেইলর সুইফট যেমন স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণে বদ্ধপরিকর, তেমনই নিয়মিত শরীরচর্চা করার ব্যাপারেও। প্রতিদিন সকালে তিনি কয়েক মাইল দৌড়ে থাকেন। যার ফলে তার শারীরিক শক্তি বৃদ্ধি পায়।

তিনি ট্রেডমিল ব্যবহার করেন

টেইলর সুইফটের লম্বা পা তার সৌন্দর্যে মাত্রা যেন আরো খানিকটা বাড়িয়ে দেয়। তিনি তার পায়ের ব্যাপারে বেশ সচেতন। যার কারণে তিনি ট্রেডমিল এবং এলিপ্টিক্যাল ট্রেইনার ব্যবহার করেন নিয়মিত।

অতিরিক্ত চিকন শরীর নিয়ে তার মাথাব্যাথা নেই

যদিও তিনি নিয়মিত স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ করেন এবং শরীরচর্চা করেন, অতিরিক্ত চিকন শরীর রক্ষা করার ব্যাপারে তার মাঝে বিশেষ মাথাব্যথা নেই। অন্য সকলের মাঝে নিজেকে দেখতে কেমন লাগছে- এটা নিয়ে তিনি একেবারেই চিন্তিত থাকেন না। সুস্থ থাকার উদ্দেশ্যেই তিনি স্বাস্থ্যকর অভ্যাস গড়ে তুলেছেন এবং মেনে চলেন।

শরীরের বিষাক্ত পদার্থ বের করতে ঘাম ঝড়িয়ে ফেলেন

অতিরিক্ত শরীরচর্চা করলে ও দৌড়ালে ঘাম তো হবেই। ঘেমে গেলে তাকে দেখতে কেমন লাগবে- এই ব্যাপারটি নিয়ে তিনি একেবারেই ভাবেন না। তার মতে, শরীরের জন্য ক্ষতিকর ও বিষাক্ত পদার্থ বের করে ফেলার জন্য ঘাম হলো সবচাইতে উপকারী। নিজেকে সুস্থ রাখার জন্য একটু ঘামা খারাপ কিছু তো নয়।

টেইলর সুইফটের ডায়েট ও শরীরচর্চার পরিকল্পনা সবকিছুই বিশেষজ্ঞ দ্বারা আলাদাভাবে তৈরি করা। যা তাকে সুস্থ রাখতে এবং সঠিক ওজনে থাকতে সাহায্য করে। একই সাথে নিজেকে সঠিক ও নিয়ন্ত্রিত ওজনে রাখার জন্য দারুণ পরিশ্রম করেন তিনি। কারণ, সুস্বাস্থ্য ও সঠিক ওজন খুব সহজেই ধরা দেয় না।

সূত্র: Stylecraze  

প্রিয় লাইফ/ কে এন দেয়া

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...