তিন্দু, বড়পাথর অত্যন্ত সুন্দর একটি জায়গা। তবে বর্ষায় এটা হতে পারে অত্যন্ত বিপজ্জনক। ছবি: কালপুরুষ অপূ।

নিষিদ্ধ করা হয়েছে তিন্দু, বড় পাথর, রেমাক্রী, নাফাখুম ও আমিয়াখুম!

তিন্দু, বড় পাথর, রেমাক্রী, নাফাখুম ও আমিয়াখুম পর্যটকদের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়েছে!

খন্দকার ইশতিয়াক মাহমুদ
লেখক
প্রকাশিত: ২০ জুলাই ২০১৭, ১৪:০০ আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ০৬:১৬
প্রকাশিত: ২০ জুলাই ২০১৭, ১৪:০০ আপডেট: ১৯ আগস্ট ২০১৮, ০৬:১৬


তিন্দু, বড়পাথর অত্যন্ত সুন্দর একটি জায়গা। তবে বর্ষায় এটা হতে পারে অত্যন্ত বিপজ্জনক। ছবি: কালপুরুষ অপূ।
(প্রিয়.কম): চলছে ভারী বর্ষণ আর সে কারণে পাহাড় হয়ে গেছে অস্থিতিশীল। থানচি এলাকার যে দর্শনীয় স্থানগুলো আছে, সেগুলোতে জারি করা হয়েছে অনির্দিষ্ট কালের জন্য নিষেধাজ্ঞা।
 
বান্দরবান জেলার থানচি উপজেলার স্থানীয় গাইড মোঃ: হারুন অর রাশীদ এর দেয়া তথ্য মতে স্থানীয় প্রশাসন অনির্দিষ্টকালের জন্য এই এলাকাগুলোতে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। ধারণা করা হচ্ছে অতিবৃষ্টির কারণে এই এলাকাগুলোতে যে পাহাড়ি পানির ঢল নামে, সেটা থেকে পর্যটকদের সুরক্ষা দেবার জন্যই এই নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে।
 
বর্ষার সময় পাহাড় হয়ে যায় অস্থিতিশীল, তার প্রমাণ আমরা কিছুদিন আগে পেয়েছি। বান্দরবান ও পার্বত্য চট্টগ্রাম জেলার বিভিন্ন স্থানে হয়েছে পাহাড়-ধস এবং নদীর পানি বেড়ে গিয়ে জনজীবন করেছে বিপর্যস্ত। বর্ষায় তাই এরকম কোথাও ঘুরতে যাওয়া হতে পারে অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ। সেটা হতে পারে পাহাড়ি ঢল, হতে পারে ধস কিংবা পানি বেড়ে যাবার কারণে কোথাও কয়েকদিন আটকে থাকা খাবার কিংবা আশ্রয় সহ। হতে পারে এর চেয়েও ভয়ানক কিছু।
 
সুতরাং, আপনারা যারা আগামী বন্ধের দিনগুলোতে ছুটি নিয়ে যেতে চেয়েছিলেন তিন্দু, বড় পাথর, রেমাক্রী, নাফাখুম ও আমিয়াখুমে, তারা আবারও ভেবে নিন, একটু ভিন্ন ভাবে সাজিয়ে নিন নিজের পরিকল্পনাটিকে। অবশ্যই কয়েকদিনের মজার তুলনায় জীবনের মূল্য অনেক অনেক বেশি। আমরা আশা করতে পারি যে আবহাওয়া ও এলাকার পরিবেশ নিরাপদ হলে এটা আবারও খুলে দেয়া হবে।
 
 
সম্পাদনা: ড. জিনিয়া রহমান।
আপনাদের মতামত জানাতে ই-মেইল করতে পারেন [email protected] এই ঠিকানায়।

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন

loading ...