রোহিঙ্গাদের দ্রুত ফিরিয়ে নিতে হবে: তুরস্কের উপপ্রধানমন্ত্রী

মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিকদের বিতাড়নকে বর্বরতা ও নৃশংসতা হিসাবে উল্লেখ করে রিসেপ আকদাদ রোহিঙ্গাদের সার্বিক সহযোগিতা ও নিজ দেশে ফিরিয়ে নিতে সকল মুসলিম দেশকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান।

শেখ নোমান
সহ-সম্পাদক
২২ নভেম্বর ২০১৭, সময় - ২১:৩৫

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের একাংশ। ছবি: প্রিয়.কম

(প্রিয়.কম) মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিকদের বাংলাদেশ থেকে দ্রুত ফিরিয়ে নেওয়ার আহবান জানিয়ে তুরস্কের উপ-প্রধানমন্ত্রী রিসেপ আকদাদ বলেছেন, মিয়ানমার জুলুম করে সেদেশের রোহিঙ্গা নাগরিকদের বাংলাদেশে বিতাড়িত করেছে। 

মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিকদের বিতাড়নকে বর্বরতা ও নৃশংসতা হিসাবে উল্লেখ করে রিসেপ আকদাদ রোহিঙ্গাদের সার্বিক সহযোগিতা ও নিজ দেশে ফিরিয়ে নিতে সকল মুসলমান দেশকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান। 

২১ নভেম্বর আংকারা সফরত বাংলাদেশের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া), বীরবিক্রম-এর সাথে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে তার কার্যালয়ে মতবিনিময় শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে তুরস্কের উপ-প্রধানমন্ত্রী এ সব কথা বলেন। 

উপ-প্রধানমন্ত্রী রিসেপ আকদাদ রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারের ওপর আন্তর্জাতিক চাপ আরও কার্যকরভাবে বৃদ্ধির জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানান।

দশ লক্ষাধিক রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দিয়ে বাংলাদেশ বিশ্বে এক নজিরবিহীন মানবিকতা দেখিয়েছে বলে তিনি বাংলাদেশকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। 

বাংলাদেশের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া) সেসময় বলেন, নিতান্ত মানবিক কারণে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিকদের বাংলাদেশে আশ্রয় দিয়েছেন। 

তিনি বলেন, ‘রোহিঙ্গা এখন বাংলাদেশে এক নিদারুণ আর্থিক, সামাজিক ও শৃঙ্খলাগত সমস্যার সৃষ্টি করেছে। এদের বাসস্থান, খাদ্য, চিকিৎসা, স্যানিটেশন, পানীয়জল ও জ্বালানির জন্য আন্তর্জাতিক সহযোগিতা প্রয়োজন।’ 

মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (মায়া) রোহিঙ্গা সমস্যার শান্তিপূর্ণ সমাধানের জন্য আন্তর্জাতিক হস্তক্ষেপ কামনা করেন এবং রোহিঙ্গা সমস্যার শুরু থেকে বাংলাদেশকে সমর্থন ও সহযোগিতা দেয়ায় তিনি তুরস্কের সরকার ও জনগণকে ধন্যবাদ জানান।

প্রিয় সংবাদ/শান্ত   

 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


স্পন্সরড কনটেন্ট
জনপ্রিয়
আরো পড়ুন