(প্রিয়.কম) মাত্রই অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপ শেষ করলেন সাইফ হাসান। পাকিস্তানের বিপক্ষে বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে হারের পর দেশের জার্সি খুলে গায়ে তুললেন খুলনা টাইটান্সের জার্সি। এবারের মিশন বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল)। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের জনপ্রিয় এই টুর্নামেন্টে খেলতে এসে আসরটিকে আলোচনায় আসার মঞ্চ হিসেবে দেখছেন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান।

এশিয়া কাপে বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দেওয়া এই ক্রিকেটার চার ম্যাচে দুটি হাফ সেঞ্চুরিসহ রান করেছেন ১৭৯। সর্বোচ্চ ৯১ রানের ইনিংসটি ছিল মালয়েশিয়ার বিপক্ষে। বল হাতে একটি উইকেটও পেয়েছেন ওই ম্যাচে। সেমিফাইনালে পাকিস্তানের বিপক্ষে বৃষ্টি আইনে হেরে দেশে ফেরা সাইফ আপাতত ফোকাস করছেন টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে।

রোববার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুশীলন শেষে সাইফ জানালেন, বিপিএলে এশিয়া কাপের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে চান। বিশেষ করে এই টুর্নামেন্টে ক্রিকেটার হিসেবে নিজেকে এক্সপোজ করার অনেক সুযোগ থাকে বলে মনে করেন তিনি।

বলেছেন, ‘বিপিএলে নিজেকে এক্সপোজ করার চমৎকার একটি প্ল্যাটফর্ম। গেল বছর আফিফ খুব ভাল এক্সপোজার ছিল। নিজেকে খুব ভালভাবে এখানে মেলে ধরা যায়। আমিও সুযোগ পেলে সেটা করতে চেষ্টা করব।’

এশিয়া কাপে ওয়ানডে ফরম্যাটে খেলে এসেছেন। বাংলাদেশে খেলবেন টি-টোয়েন্টি। ফরম্যাট ছোট বলেই খানিকটা মানিয়ে নেওয়ার ব্যাপার থাকে। সাইফ নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছেন, কারণ দলের কোচ হিসেবে পেয়েছেন শ্রীলঙ্কান কিংবদন্তি মাহেলা জয়াবর্ধনেকে।

ছোটবেলা থেকে যার ব্যাটিং অনুসরণ করেন, সেই জয়াবর্ধনে প্রসঙ্গে বললেন, ‘উনি (জয়াবর্ধনে) গ্রেট ব্যাটসম্যান, আমার খুব পছন্দের। ছোটবেলা থেকে উনার ব্যাটিং ফলো করি। এখানে উনার কাছ থেকে অনেককিছু শেখার চেষ্টা করব। তিনি আমাকে বলেছেন যেহেতু অন্য একটা (ওয়ানডে ) ফরম্যাট থেকে এসেছি তাই নিজেকে ব্যস্ত রাখতে। বলেছেন শট খেলার চেষ্টা করতে, আউট হলেও সমস্যা নেই।’

প্রিয় স্পোর্টস/শান্ত মাহমুদ