(প্রিয়.কম) ‘তুমি কি কেবলই ছবি, শুধু পটে লিখা, ওই-যে সুদূর নীহারিকা, যারা করে আছে ভিড় আকাশের নীড়, ওই যারা দিনরাত্রি, আলো হাতে চলিয়াছে আঁধারের যাত্রী, গ্রহ তারা রবি’। বাংলাদেশের অমর নায়ক সালমান শাহ জীবনের সঙ্গে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের কবিতার এ লাইনগুলো যথার্থই। বলিউড বাদশাহ'র সঙ্গে সালমান শাহর এ ছবিটি দেখলে মনে হয়- 'তুমি কি কেবলই ছবি!'

তার জীবনকাল যতই সংক্ষিপ্ত হোক না কেন, এই ক্ষণজন্মা তারকা কিন্তু তার কর্ম দিয়ে আজও বেঁচে আছেন ভক্তদের মনে। শুধু তাই নয় বাংলাদেশের মতো ছোট একটি দেশ এবং দেশের সংস্কৃতিকে নিয়ে গিয়েছিলেন আন্তর্জাতিক পর্যায়ে।

বলিউড বাদশাহ শাহরুখ খানের সঙ্গে ছিল প্রয়াত এই তারকার বন্ধুত্ব। পাশাপাশি দাঁড়িয়ে আছেন বলিউড এবং ঢালিউডের দুই হার্টথ্রব শাহরুখ খান-সালমান শাহ।

১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর ১১/বি নিউ ইস্কাটন রোডের ইস্কাটন প্লাজার বাসার নিজ কক্ষে সালমান শাহকে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। এরপর সালমানের স্ত্রী সামিরা হক, চলচ্চিত্র প্রযোজক ও ব্যবসায়ী আজিজ মোহাম্মদ ভাইসহ ১১ জনকে সালমান শাহের মৃত্যুর জন্য দায়ী করে হত্যা মামলা দায়ের করে সালমানের পরিবার।

জানা গেছে, পুলিশ দুই দফা ময়নাতদন্ত করে এই ঘটনাকে আত্মহত্যা বলেছিল। কিন্তু তখন সালমান শাহর পরিবার থেকে নারাজি আবেদন করা হয়। মামলাটির বিচার বিভাগীয় তদন্তও হয়েছিল। এখন মামলাটি পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনে (পিবিআই) আছে।

বাংলাদেশের ১৯৯০-এর দশকের অন্যতম শ্রেষ্ঠ নায়ক সালমান শাহ। টেলিভিশন নাটক দিয়ে তার অভিনয় জীবন শুরু হলেও পরে তিনি চলচ্চিত্রে একজন জননন্দিত শিল্পী হয়ে উঠেন। ১৯৯৩ সালে তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত 'কেয়ামত থেকে কেয়ামত' মুক্তি পায়। জনপ্রিয় এই নায়ক নব্বইয়ের দশকের বাংলাদেশে সাড়া জাগানো অনেক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। তিনি সর্বমোট ২৭টি চলচ্চিত্র অভিনয় করেন।


প্রিয় বিনোদন/শামীমা সীমা।