(প্রিয়.কম) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি দোতলা বাস উল্টো পথে যাওয়ার সময় বাধা দেওয়ায় দায়িত্বরত এক ট্রাফিক পুলিশ সার্জেন্টকে মারধর করেছেন ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী।

১৭ জুলাই সোমবার বিকেল সোয়া পাঁচটার দিকে রাজধানীর বাংলামোটরে এ ঘটনা ঘটে। হামলার শিকার সার্জেন্টের নাম কায়সার হামিদ।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী রিয়াজ রায়হান গণমাধ্যমকে বলেন, ‘বিকেলে শাহবাগের দিক থেকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দুটি দোতলা বাস বাংলামোটরে সিগন্যালে এসে থামে। এ সময় কয়েকজন ছাত্র বাস থেকে নেমে কারওয়ান বাজারের (সোনারগাঁও ক্রসিং) দিক থেকে শাহবাগগামী গাড়িগুলোকে আটকে দোতলা বাস দুটিকে উল্টো পথে নেওয়ার চেষ্টা করলে কর্তব্যরত সার্জেন্ট এসে বাধা দেন।’

‘সার্জেন্টের সঙ্গে তাদের বাগ্‌বিতণ্ডা শুরু হয়। সার্জেন্ট ছাত্রদের চলতি ট্রাফিক আটকাতে নিষেধ করেন। একপর্যায়ে বাস থেকে অন্য ছাত্ররা নেমে সার্জেন্টের ওপর চড়াও হয়ে মারধর শুরু করেন। এ সময় আবার কিছু শিক্ষার্থী হামলাকারীদের নিরস্ত করারও চেষ্টা করেন। তবে তাদের থামানো যাচ্ছিল না। ঘটনাস্থলে থাকা আরেক সার্জেন্ট দৌড়ে গিয়ে মোবাইল ফোনে ঘটনার ভিডিও ধারণ শুরু করলে ছাত্ররা বাসে ফিরে যান। তখন বাস দুটি সোজা পথেই কারওয়ান বাজারের দিকে রওনা হয়’, বলেন তিনি।

এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর ট্রাফিক পুলিশের রমনা অঞ্চলের সহকারী কমিশনার মো. আলাউদ্দীন বলেন, ‘জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দুটি বাস বাংলামোটর থেকে উল্টো পথে সোনারগাঁও ক্রসিংয়ের দিকে যেতে চাইলে কর্তব্যরত সার্জেন্ট কায়সার হামিদ বাধা দেন। বাগ্‌বিতণ্ডার একপর্যায়ে তারা সার্জেন্টের ওপর চড়াও হনকিছু ধাক্কাধাক্কি করেন। পরে অবশ্য বাস দুটি সোজা পথেই পাঠানো হয়েছে।’ 

প্রিয় সংবাদ/শান্ত