৫০ লাখ টাকার মানহানির মামলা থেকে শাকিবকে অব্যাহতি

বাদীপক্ষের আইনজীবী এমএ মজিদ জানান, মামলার আসামির তালিকা থেকে নায়ক শাকিব খানকে বাদ দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই।

মিঠু হালদার
নিজস্ব প্রতিবেদক
১৪ মার্চ ২০১৮, সময় - ১৩:৩৫

শাকিব খান। ছবি: প্রিয়.কম

(প্রিয়.কম) হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ের অটোরিকশা চালক ইজাজুল মিয়ার দায়ের করা ৫০ লাখ টাকার মানহানি মামলা থেকে অব্যাহতি পেয়েছেন জনপ্রিয় অভিনেতা শাকিব খান

গত ১৩ মার্চ বিকেলে হবিগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শম্পা জাহানের আদালতে এ মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা ও জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ওসি মো. শাহ আলম। সেই প্রতিবেদন থেকে শাকিব খানের নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। 

তিনি জানান, ৩১ পৃষ্ঠার প্রতিবেদন তৈরির সময় নিরপেক্ষ ছয়জনের ৬১ ধারায় সাক্ষ্য নেওয়া হয়েছে।

গণমাধ্যমকে শাহ আলম বলেন, ‘মামলায় ৪২০ ধারার কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। সেন্সর বোর্ড থেকে যেহেতু সিনেমাটি অনুমতি পেয়েছে তাই নায়ককে অভিযুক্ত করার সুযোগ নেই। সিনেমাতে যারা অভিনয় করেন তারা শুটিংয়ে পরিচালকের নির্দেশ মেনে চলেন। পরিচালক যে ডায়ালগ দিতে বলেন নায়ক-নায়িকারা তাই বলেন। ডায়ালগের ব্যাপারে সাধারণত অভিনেতা-অভিনেত্রীদের নিজস্ব মতামত নেই।’

এদিকে বাদীপক্ষের আইনজীবী এমএ মজিদ জানান, মামলার আসামির তালিকা থেকে নায়ক শাকিব খানকে বাদ দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। এ ব্যাপারে প্রতিবেদনের ওপর নারাজি দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানান তিনি।

মানহানি মামলার কারণ হিসেবে জানানো হয়েছিল, বুলবুল বিশ্বাস পরিচালিত মুক্তিপ্রাপ্ত ‘রাজনীতি’ সিনেমায় একটি মোবাইল ফোন নম্বর ব্যবহার করা হয়। সে নম্বরটি ছিল অটোরিকশা চালক ইজাজুলের ব্যক্তিগত ফোন নম্বর। আর এ নম্বর ব্যবহারে সিনেমার নির্মাতা, অভিনেতা, প্রযোজক কিংবা সংশ্লিষ্ট কেউ তার থেকে কোন ধরনের অনুমতি নেননি।

ছবিটি মুক্তি পাওয়ার পর থেকেই শাকিব খান মনে করে ইজাজুলকে ফোনের পর ফোন দিতে শুরু করেন শাকিব ভক্তরা। এর মধ্যে নারী ভক্তদের কলই বেশি। এরপর তিনি দাবি করেন, চলচ্চিত্র মুক্তির পর প্রতিদিনই অসংখ্য ছেলে-মেয়ে তাকে ফোন করে বিরক্ত করেন। অপরিচিত মেয়েদের নম্বর থেকে কল আসায় স্বামী পরকীয়ায় আসক্ত সন্দেহে বাবার বাড়ি চলে যান তার স্ত্রী মিশু আক্তার। গড়ে প্রতিদিন ৫০০ থেকে ৬০০ কল আসে বলে অভিযোগ করেন ইজাজুল।

গত রোজার ঈদে সারাদেশে মুক্তি পায় শাকিব খান-অপু বিশ্বাস জুটির সিনেমা ‘রাজনীতি’। এতে আরও অভিনয় করেছেন আনিসুর রহমান মিলন, শহীদুল আলম সাচ্চু, আলীরাজ, সাদেক বাচ্চু, পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়, জয়শ্রী কর জয়াসহ আরও অনেকেই। ছবিটি বাণিজ্যিক দিক থেকেও সফলতার মুখ দেখেছে।

ইজাজুল মিয়া বানিয়াচং উপজেলা সদরের যাত্রাপাশা গ্রামের মোবারক মিয়ার ছেলে। হবিগঞ্জের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শম্পা জাহানের আদালতে গত বছরের ২৮ অক্টোবর বানিয়াচং থানায় রাজনীতি সিনেমার নায়ক শাকিব খান, প্রযোজক আশফাক আহমেদ, পরিচালক বুলবুল বিশ্বাসের বিরুদ্ধে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন ইজাজুল।

প্রিয় বিনোদন/গোরা 

পাঠকের মন্তব্য(০)

মন্তব্য করতে করুন


আরো পড়ুন
জনপ্রিয়