(প্রিয়.কম) প্রযুক্তিপাড়া বেশ কয়েকদিন ধরেই সরব গুগলের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুন্দর পিচাইকে নিয়ে। অনেক বিশেষজ্ঞই মনে করছেন গুগলের প্রধান নির্বাহীর পদ থেকে পদত্যাগ করা উচিত তার। 

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বিশ্বখ্যাত সংবাদমাধ্যম নিউ ইয়র্ক টাইমস-এর এক মতামত বিশ্লেষণে এমনটিই বলেছেন পত্রিকাটির প্রভাবশালী কলামিস্ট ডেভিড  ব্রুক্স ।

তিনি বলেন, বর্তমান সময়ে গুগলে চলা নাটকে বেশ কয়েকজন অভিনেতা রয়েছেন। গুগলের এই খারাপ পরিস্থিতির জন্য অনেকেই দায়ি। তবে তাদের মধ্যে অন্যতম একজন হলেন প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী কর্মকর্তা সুন্দর পিচাই।

ওই কলামিস্ট বলেন, এ সব ঘটনার প্রথম অভিনেতা জেমস ড্যামর। যিনি সার্চ জায়ান্ট গুগলের সংস্কৃতি নিয়ে ১০ পাতার একটি ইশতেহার প্রকাশ করেছেন। যেখানে তিনি বলতে চেয়েছেন গুগলে কেন ৮০ শতাংশ কর্মীই পুরুষ। তিনি প্রতিষ্ঠানের ভেতরের বৈষম্য তুলে ধরেছেন। তিনি নারী-পুরুষের জেনেটিক পার্থক্য তুলে ধরেছেন। দ্বিতীয় অভিনেতা হলেন নারীরা, যারা প্রযুক্তি দুনিয়ায় কাজ করেন। এসব নারীরা মনে করেন এই ইশতেহার তাদের জীবনকে আরও কঠিন করে তুলেছে। তৃতীয় অভিনেতা গুগলের ডাইভারসিটি অফিসার ড্যানিয়েল ব্রাউন। তিনি ড্যামরের ইশতেহারের পেছনে সঠিক কোনো যুক্তি না তুলে ধরেই তিনি ড্যামরের ইশতেহারগুলোকে ভুল বলে মন্তব্য করেছেন।

এ ঘটনায় চতুর্থ অভিনেতার ভূমিকা পালন করেছে গণমাধ্যম। তারা এই ড্যামরের ইশতেহারগুলোকে ভয়াবহ বলে উল্লেখ করে প্রকাশ করেছে। সবশেষ এই ঘটনায় অবতরণ হয়েছেন সুন্দর পিচাই। তিনি বিষয়টি নিয়ে গবেষণা করতে পারতেন। তিনি তথ্য প্রবাহ ঠেকাতে অবস্থান নিতে পারতেন। তিনি জনগণের সঙ্গে এক কাতারে দাঁড়াতে পারতেন। কিন্তু তিনি তা না করে ড্যামোরকে প্রতিষ্ঠান থেকে বের করে দিয়েছেন। সুন্দর পিচাই বলেছেন, কারও শারীরিক বৈশিষ্ট্যের কারণে গুগল তাদের মূল্যায়ন কম করবে এ ধরনের মন্তব্য মেনে নেওয়ার মতো নয়। এটা আমাদের মৌলিক মূল্যবোধ ও আচরণবিধির পরিপন্থী। এ ব্যাপারে কারও মনগড়া মনোভাবকে কখনোই মেনে নেবে না গুগল।, বলেন তিনি।

ড্যামরের পক্ষ নিয়ে এই কলামিস্ট বলেন, সুন্দর পিচাই তার সাবেক কর্মী ড্যামরের ইশতেহারকে নিখুঁতভাবে অপ্রীতিকর চরিত্রায়ন করেছেন। কারণ ড্যামোর তার ইশতেহারে তার কলিগদের বিরুদ্ধে এমন কিছু লিখেননি।

তিনি আরও বলেন, সুন্দর পিচাই ড্যামরের লেখা বোঝার জন্য অপ্রস্তুত ছিলেন। অথবা তিনি জনসাধারণের সঙ্গে একমত হতে ভয় পাচ্ছিলেন।

ডেভিড ব্রুক্স বলেন, এসব থেকেই বোঝা যায় সুন্দর পিচাইয়ের নেতৃত্ব থেকে সরে আসা উচিত। কারণ জনগণ এবং প্রমাণ বুঝতে হলে ভালো নেতৃত্বের প্রয়োজন।

সূত্র- নিউ ইয়র্ক টাইমস

প্রিয় টেক/মিজান