(প্রিয়.কম) ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ফোন দিয়ে রোহিঙ্গা সংকটে বাংলাদেশের পদক্ষেপের প্রশংসা করেন। সে সময় রোহিঙ্গা ইস্যুতে গৃহীত পদক্ষেপগুলোর সমর্থন জানানোর পাশাপাশি বাংলাদেশের পাশে থাকার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন তিনি। 

১৪ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার রাতে ফোন কলের মাধ্যমে এ সমর্থন জানানো হয় বলে নিশ্চিত করেছেন প্রধানমন্ত্রীর উপ প্রেস সচিব নজরুল ইসলাম।

এর আগে চলমান রোহিঙ্গা ইস্যুতে তড়িঘড়ি করে মিয়ানমার সফরের মাধ্যমে দেশটির প্রতি সমর্থন জানিয়ে এসেছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। যার পরিপ্রেক্ষিতে দেশে এবং দেশের বাইরে সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে তাকে।

ফোনালাপকালে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া শরণার্থীদের ফেরত নেয়ার পাশাপাশি রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর নির্যাতন বন্ধে দ্বিপাক্ষিক ও বহুপাক্ষিক চাপ সৃষ্টির চেষ্টা করছে ভারত। রোহিঙ্গা সমস্যা এখন অঞ্চল ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে পৌঁছে গেছে।’

এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘বাংলাদেশ কেবলমাত্র মানবিক বিবেচনায় রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছে। মিয়ানমারকে অবশ্যই স্বীকার করতে হবে যে, রোহিঙ্গা তাদের নাগরিক। রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিতে অস্থায়ী ব্যবস্থা করার জন্য জমি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। কিন্তু তাদের দীর্ঘ মেয়াদে অবস্থান বাংলাদেশের জন্য অবশ্যই বড় ধরনে সমস্যার সৃষ্টি করবে।’

ফোনালাপকালে বাংলাদেশে ভারতীয় রাষ্ট্রদূত হর্ষবর্ধন শ্রিংলা, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী ও মুখ্য সচিব ড. কামাল আবদুল নাসের গণভবনে উপস্থিত ছিলেন।

প্রিয় সংবাদ/শিরিন