(প্রিয়.কম) ঠাকুরগাঁওয়ের সদর উপজেলায় ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে এটি হত্যাকাণ্ড বলে দাবি করেছে নিহতের পরিবার।

১৫ অক্টোবর রোববার সকালে সেনুয়া নদীর পাড়ের একটি গাছ থেকে মরদেহটি উদ্ধারের পরে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে পুলিশ।

নিহত নাজমিন আক্তার (১৪) উপজেলার বাসিয়াদেবী ফকিরপাড়া গ্রামের নুর নবীর মেয়ে। তিনি সালন্দর উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়তেন।

নিহতের পরিবারের বরাত দিয়ে ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কফিল উদ্দিন জানান, শনিবার বিকেলে সেনুয়া নদীর পাড়ে ধান ক্ষেত দেখতে গিয়ে আর বাড়ি ফেরেনি নাজমিন। 

সকালে ওই নদীর পাড়ের একটি গাছে নাজমিনের মরদেহ ঝুলতে দেখে থানায় খবর দেন স্থানীয়রা। পরে পুলিশ গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে পাঠায়।

ওসি আরও জানান, নাজমিন হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন বলে তার বাবা অভিযোগ করেছেন। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে। এর পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রিয় সংবাদ/শিরিন